০২:২৭:১২ মঙ্গলবার, ১৯ মার্চ ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • চাচা-ভাতিজা মিলে ভাইয়ের মেয়েকে গণধর্ষণের পর হত্যা     • সর্বোচ্চ তিন মাসের মধ্যে আবরারের নামে ফুটওভার ব্রিজ: মেয়র আতিকুল     • বাবা শুধু চিৎকার করছিলেন-“মাই সান, মাই সান” বলে!     • পাকিস্তানের আকাশ ব্যবহারে নিষেধাজ্ঞা, ক্ষতির মুখে এয়ার ইন্ডিয়া     • মসজিদে হামলাকারী সর্বোচ্চ সাজা পাবে: নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী     • প্রয়োজনে বিশ্বকাপ ফাইনালও পাকিস্তানের সঙ্গে খেলবো না: গম্ভীর     • 'হ্যালোব্রাদার' জানিয়ে উইলিয়ামসনের পোস্ট, ভাইরাল ছবি     • নিউজিল্যান্ডে একসঙ্গে ৩৫০ জনের ইসলাম ধর্ম গ্রহণ!     • ক্রিকেটার মোশারফ রুবেলের সফল অস্ত্রোপচার     • আসসালামু আলাইকুম বলে বক্তব্য শুরু করলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

শুক্রবার, ১৬ মার্চ, ২০১৮, ০২:২৯:৫৬

যে দোয়া একবার পাঠ করলে দূর হবে ৭০টি বিপদ!

যে দোয়া একবার পাঠ করলে দূর হবে ৭০টি বিপদ!

ইসলাম ডেস্ক :  হযরত আবু নাঈম ও ইবনে আবি শায়বা রহ. একটি আমলের কথা বর্ণনা করেছেন। তাঁরা বলেন, যে ব্যক্তি নিম্নের দুয়া একবার পাঠ করবে- একশ’ বার নয়, মাত্র একবার- আল্লাহ তায়ালা তার সত্তরটি বিপদ দূর করে দিবেন। আর সর্বনিম্ন বিপদ হল দারিদ্রতা। আর অন্যান্য বিপদগুলো এর চেয়ে অনেক বড় বড়।

যে দোয়া একবার পাঠ করলে দূর হবে ৭০টি বিপদ! দোয়াটি হলো:- لاحول ولاقوة الا بالله ولاملجا ولامنجا من الله الا اليه
বাংলা উচ্চারণ:- লা হাউলা ওয়া লা কুওয়াতা ইল্লা বিল্লাহি ওয়ালা মালজাআ ওয়ালা মানজাআ মিনাল্লাহি ইল্লাহ ইলাইহি।

দোয়াটি মুখস্থ থাকলে তো ভালো। না থাকলে মুখস্থ করে নিন। নিয়মিত পাঠ করুন। সব রকম সমস্যা থেকে নাজাত পাবেন, ইনশাআল্লাহ।

দুঃশ্চিন্তাগ্রস্তদের জন্য সান্তনা: কানযুল উম্মালে বর্ণিত আছে, যে ব্যক্তি ইয়াকিন ও দৃঢ় বিশ্বাসের সাথে এই আয়াতটি পাঠ করবে, আল্লাহ তায়ালা তার দুঃশ্চিন্তাগ্রস্ত হৃদয়কে প্রশান্তি দান করবেন। لا إِلَهَ إِلا أَنْتَ سُبْحَانَكَ إِنِّي كُنْتُ مِنَ الظَّالِمِينَ এখানে ইয়াকিন ও দৃঢ় বিশ্বাসের শর্তারোপ করা হয়েছে। কারো অন্তরে এ ব্যাপারে সন্দেহ থাকলে সে সুফল পাবে না।

আরো পড়ুন: ইসলামের দৃষ্টিতে স্বামী বিদেশে থাকলে স্ত্রীর করণীয় কি ? স্বামী বিদেশে থাকলে তার দ্বীন ও দুনিয়া বিষয়ক সকল কিছুর দায়িত্বশীলা হয় স্ত্রী।

স্বামী ঘরে থাকতে যে দায়িত্ব সে পালন করে, সে ঘরে না থাকলেও অনুরূপ দায়িত্ব পালনে তৎপর থাকে।আল্লাহর রসূল (সাঃ) বলেন, “তোমাদের প্রত্যেকেই দ্বায়িত্বশীল এবং প্রত্যেককেই তার দায়িত্ব-বিষয়ে (মিয়ামতে) কৈফিয়ত করা হবে। ইমাম (রাষ্ট্রনায়ক তার রাষ্ট্রের) একজন দায়িত্বশীল, সে তার দায়িত্ব-সম্পর্কে জিজ্ঞাসিত হবে। পুরুষ তার পরিবারে দায়িত্বশীল, সে সে তার দায়িত্ব- বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হবে। মহিলা তার স্বামী-গৃহের দায়িত্বশীল, সে তার দায়িত্ব- বিষয়ে জিজ্ঞাসিতা হবে। চাকর তার মুনিবের অর্থের দায়িত্বশীল, সে তার দায়িত্ব- বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হবে।

তোমাদের প্রত্যেকেই এক একজন দায়িত্বশীল এবং প্রত্যেকেই তার দায়িত্ব- বিষয়ে জিজ্ঞাসিত হবে।”(বুখারী ৮৯৩, ৫১৮৮ প্রভৃতি, মুসলিম ১৮২৯)

দায়িত্বশীলা আদর্শ স্ত্রীর দুই চেহারা হতে পারে না। তার মধ্যে মুনাফিকী, কপটতা ও প্রবঞ্চনা থাকতে পারে না। সামনে এক, পিছনে অন্য এক হাত হতে পারে না।

অদৃশ্যভাবে ঈমান বড় ঈমান। অদৃশ্যভাবে ভয় আসল ভয়। পিছনে শ্রদ্ধা প্রকৃত শ্রদ্ধা। পিছনের প্রশংসাই প্রকৃত প্রশংসা। স্বামী দূরে থাকলেও তাকে যে মেনে চলে, সেই হল খাটি স্ত্রী। মহান আল্লাহ এমন প্রশংসা করে বলেন,

الرِّجَالُ قَوَّامُونَ عَلَى النِّسَاء بِمَا فَضَّلَ اللّهُ بَعْضَهُمْ عَلَى بَعْضٍ وَبِمَا أَنفَقُواْ مِنْ أَمْوَالِهِمْ فَالصَّالِحَاتُ قَانِتَاتٌ حَافِظَاتٌ لِّلْغَيْبِ بِمَا حَفِظَ اللّهُ وَاللاَّتِي تَخَافُونَ نُشُوزَهُنَّ فَعِظُوهُنَّ وَاهْجُرُوهُنَّ فِي الْمَضَاجِعِ وَاضْرِبُوهُنَّ فَإِنْ أَطَعْنَكُمْ فَلاَ تَبْغُواْ عَلَيْهِنَّ سَبِيلاً إِنَّ اللّهَ كَانَ عَلِيًّا كَبِيرًا

পুরুষেরা নারীদের উপর কৃর্তত্বশীল এ জন্য যে, আল্লাহ একের উপর অন্যের বৈশিষ্ট্য দান করেছেন এবং এ জন্য যে, তারা তাদের অর্থ ব্যয় করে। সে মতে নেককার স্ত্রীলোকগণ হয় অনুগতা এবং আল্লাহ যা হেফাযতযোগ্য করে দিয়েছেন লোক চক্ষুর অন্তরালেও তার হেফাযত করে। আর যাদের মধ্যে অবাধ্যতার আশঙ্কা কর তাদের সদুপদেশ দাও, তাদের শয্যা ত্যাগ কর এবং প্রহার কর। যদি তাতে তারা বাধ্য হয়ে যায়, তবে আর তাদের জন্য অন্য কোন পথ অনুসন্ধান করো না। নিশ্চয় আল্লাহ সবার উপর শ্রেষ্ঠ।(সূরা-নিসা-আয়াত ৩৪)

নেককার সুন্দর একটি সন্তান পেতে কি করবেন? এবং স্ত্রী সহবাসের গুরুত্বপূর্ণ ১২টি সুন্নাত জেনে নিন!

নেককার সুন্দর একটি সন্তান দশটা বিপথগামী সন্তানের চেয়ে উত্তম। সকল দম্পতি তাদের দাম্পত্য জীবনে নেক সন্তান লাভের কামনা করে থাকেন। নেক সন্তান লাভে স্ত্রী সহবাস একটা গুরুত্বপুর্ণ বিষয়। নেক সন্তান লাভের উপায় কি? নেক সন্তান লাভ ও স্ত্রী সহবাসের গুরুত্বপূর্ণ ১২টি সুন্নাত এখানে তুলে ধরা হল –

১। স্বামী-স্ত্রী উভয়ই পাক পবিত্র থাকতে হবে।

২। কোন শিশু বা পশুর সামনে সংগমে রত হবেন না

৩। মুস্তাহাব হলো “বিসমিল্লাহ” বলে সহবাস শুরু করা। ভুলে গেলে যখন বীর্যপাতের পূর্বে মনে পড়বে তখনি মনে মনে পড়ে নেবে।

৪। সহবাসের পূর্বে সুগন্ধি ব্যবহার করাও আল্লাহর রাসূল [সাঃ] এর সুন্নত।

৫। দুর্গন্ধ জাতীয় জিনিস পরিহার করা উচিত। উল্লেখ্য যে , ধুমপান কিংবা অপরিচ্ছন্ন থাকার কারণে দুর্গন্ধ সৃষ্টি হয়। আর এতে কামভাব কমে যায়। আগ্রহের স্থান দখল করে নেয় বিতৃষ্ণা।

৬। পর্দা ঘেরা স্থানে সংগম করবে।

৭। সংগম শুরু করার পূর্বে শৃঙ্গার (চুম্বন, স্তন মর্দন ইত্যাদি) করবে।

৮। কোনোভাবেই কেবলামূখী না হওয়া।

৯। স্বামী-স্ত্রী উভয়ই একেবারে উলঙ্গ হবে না

১০। বীর্যপাতের পর ততক্ষণাত বিচ্ছিন্ন হবে না, বরং স্ত্রীর বীর্যপাত হওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করবে।

১১। বীর্যপাতের সময় মনে মনে নির্ধারিত দোয়া পড়বে। কেননা যদি সে সহবাসে সন্তান জন্ম নেয় তাহলে সে শয়তানের প্রভাব মুক্ত হবে।

১২। নিয়ত ঠিক করুন। হযরত আলী (রাঃ) তাঁর অসিয়ত নামায় লিখেছেন যে, সহবাসের ইচ্ছে হলে এই নিয়তে সহবাস করতে হবে যে, আমি ব্যভিচার থেকে দূরে থাকবো। আমার মন এদিক ওদিক ছুটে বেড়াবেনা আর জন্ম নেবে নেককার ও ভালো সন্তান।

এই নিয়তে সহবাস করলে তাতে সওয়াব তো হবেই সাথে সাথে উদ্যেশ্যও পূরণ হবে, ইনশাআল্লাহ। আল্লাহ তাআলা আমাদের সবাইকে বুঝার এবং আমল করার তৌফিক দান করুন। আমীন।
গ্রন্থনাঃ মাওলানা মিরাজ রহমান

এমটিনিউজ২৪/এম.জে/ এস



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


যে কারণে ৭০০ বছরেও খোলা হয়নি নবীজির রওজার মূল দরজা

যে-কারণে-৭০০-বছরেও-খোলা-হয়নি-নবীজির-রওজার-মূল-দরজা

প্রতিদিন অন্ধ মহিলার ঘরের সব কাজ করে দিতেন ইসলামের প্রথম খলিফা

প্রতিদিন-অন্ধ-মহিলার-ঘরের-সব-কাজ-করে-দিতেন-ইসলামের-প্রথম-খলিফা

হজ পালনের সময় সেলফি তোলা হারাম

হজ-পালনের-সময়-সেলফি-তোলা-হারাম ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


সাহসী এই আব্দুল আজিজ না থাকলে, ক্রাইস্টচার্চে মৃতের সংখ্যা আরও বাড়তো

সাহসী-এই-আব্দুল-আজিজ-না-থাকলে-ক্রাইস্টচার্চে-মৃতের-সংখ্যা-আরও-বাড়তো

বালিশের নীচে এক কোয়া রসুন রাখুন, ফল পান ম্যাজিকের মতো!

বালিশের-নীচে-এক-কোয়া-রসুন-রাখুন-ফল-পান-ম্যাজিকের-মতো-

আমের গুটি ঝরার কারণ ও প্রতিকার

আমের-গুটি-ঝরার-কারণ-ও-প্রতিকার এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


বীর কিশোরের জন্য ২ হাজার ডলার চেয়ে পাওয়া গেল ১৪ হাজার মার্কিন ডলার!

মসজিদে হামলাকারী ট্যারেন্টের ফাঁসি চান তার এক বোন

এবার সেই ‘ডিম বয়’এর পক্ষ নিয়ে যা বললেন অস্ট্রেলিয়ার প্রধানমন্ত্রী

মুসলমানদের বুকে জড়িয়ে নিয়ে কান্নায় ভেঙে পড়েন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

পাঠকই লেখক


অস্বাভাবিক ঘটনা; মুরগীর আক্রমণে শিয়ালের করুন মৃত্যু!

অস্বাভাবিক-ঘটনা--মুরগীর-আক্রমণে-শিয়ালের-করুন-মৃত্যু-

১৪ ইঞ্চি বাছুর ও চার পা-ওয়ালা মুরগি নিয়ে হইচই

১৪-ইঞ্চি-বাছুর-ও-চার-পা-ওয়ালা-মুরগি-নিয়ে-হইচই

৩ ভোটে হারিয়ে শহরের মেয়র নির্বাচিত হলো ছাগল

৩-ভোটে-হারিয়ে-শহরের-মেয়র-নির্বাচিত-হলো-ছাগল পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ