১১:৩৪:০৭ রবিবার, ১৬ জুন ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • সেনাবাহিনীকে সব সময় জনগণের পাশে দাঁড়াতে হবে : প্রধানমন্ত্রী     • মাঠে নামার আগে দারুণ সুখবর পেল বাংলাদেশ     • সোমবারের ম্যাচে বাংলাদেশকে হালকাভাবে নেয়া যাবেনা : লয়েড     • যে কারণে টয়লেটের ফ্ল্যাশে রয়েছে '২ বাটন'     • বিশ্বকাপে ঘোড়ায় চড়ে খেলা দেখতে গেলেন পাকিস্তানি সমর্থক     • পাকিস্তানকে ৩৩৭ রানের বিশাল টার্গেট দিল ভারত     • ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে বিরল রেকর্ড গড়লেন মহেন্দ্র সিং ধোনি     • ভারতের বিরুদ্ধে প্রধানমন্ত্রী ইমরান খানের উপদেশ মানলেন না অধিনায়ক সরফরাজ!     • ভারত ব্যাটিং করতে না পারলে পাকিস্তানের সামনে যে টার্গেট দাঁড়াবে     • ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে খেলবেন না মুশফিক!

মঙ্গলবার, ২১ মে, ২০১৯, ১০:৫৫:১১

মুশফিকুর রহিমকে এমন অপমান!

মুশফিকুর রহিমকে এমন অপমান!

স্পোর্টস ডেস্ক : চলে এসেছে বিশ্বকাপ, আর তার আগে চলছে বিভিন্ন একাদশ তৈরি। সাবেক ক্রিকেটারদের পাশাপাশি কিছু ক্রিকেটবিষয়ক ওয়েবসাইটও চটকদার শিরোনাম দিয়ে বিভিন্ন একাদশ তৈরি করছে। 

এর মধ্যে অন্যতম হলো 'মোস্ট হেটেড ইলেভেন অব ইন্টারন্যাশনাল ক্রিকেট' বা 'বিশ্ব ক্রিকেটের ঘৃণিত একাদশ'। মুশফিকুর রহিমকে এমন অপমান! আশ্চর্যের বিষয় হলো, মাঠের আচরণে সবার মন জয় করে চলা মুশফিকুর রহিমের নাম আছে এই বিতর্কিত একাদশে! শুধু তাই নয়; এই একাদশে আছেন রিকি পন্টিং, মাইকেল ক্লার্কের মতো বড় তারকারা। 

১. সালমান বাট : এক নম্বর স্থানটি দখল করেছেন পাকিস্তানের সাবেক ওপেনার সালমান বাট। প্রতিভাবান হওয়া সত্ত্বেও ২০১০ সালে স্পট ফিক্সিং করে ক্যারিয়ারের বারোটা বাজান তিনি। ওই ঘটনার পর শুধু পাকিস্তানি সমর্থকদের কাছেই নয়, বিশ্বজুড়েই ঘৃণার পাত্রে পরিণত হয়েছেন সালমান বাট।

২. জেসি রাইডার : নিউজিল্যান্ডের হার্ডহিটার ব্যাটসম্যন জেসি রাইডার মাথা গরম করার জন্যও খ্যাত ছিলেন। এজন্যই তার ক্যারিয়ার ধ্বংস হয়ে গেছে। মোটাসোটা গড়নের এই ক্রিকেটার রাতে মাতাল হয়ে দলীয় শৃঙ্খলা ভঙ্গ কিংবা বারে মারামারির মতো কাণ্ড ঘটিয়েছেন। 

২০১৪ সালের জানুয়ারিতে কোরি অ্যান্ডারসন যখন শহীদ আফ্রিদির ৩৭ বলে সেঞ্চুরির রেকর্ডটি ভাঙেন, ওই ম্যাচেই ৪৬ বলে সেঞ্চুরি করেছিলেন রাইডার। কিন্তু সে বছরই তার ক্যারিয়ার থেমে যায়।

৩. রিকি পন্টিং : ক্রিকেটের সর্বকালের সেরা অধিনায়কদের অন্যতম অস্ট্রেলিয়ার রিকি পন্টিং। খেলোয়াড়ি জীবনে ম্যাচ জেতার জন্য যে কোনো কিছু করতে রাজি ছিলেন তিনি। যে কারণে তার হেটার্সদের সংখ্যাও কম নয়।  

২০০৮ সালে সিডনি টেস্টে খেলোয়াড় এবং আম্পায়ারদের সঙ্গে তার লেগে গিয়েছিল তার। ভারতীয় সমর্থকদের কাছে অবশ্য এই পন্টিংয়ের ঘৃণিত হওয়ার আর একটি বড় কারণ, প্রায় ম্যাচে তিনি একাই ভারতীয় ক্রিকেটার বিদ্রুপ করতেন।

৪. গ্রেগ চ্যাপেল : অস্ট্রেলিয়ার আরেক সাবেক অধিনায়ক গ্রেগ চ্যাপেল খেলোয়াড়ি জীবন কিংবা কোচ হিসেবে কোনো সময়ই পছন্দের পাত্র ছিলেন না। বিশেষ করে ভারতীয় সমর্থকদের কাছে। 

১৯৮১ সালে নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে ছোট ভাই ট্রেভর চ্যাপেলকে দিয়ে আন্ডারআর্ম বল করিয়ে দুর্নাম কামান চ্যাপেল। আর ২০০৭ সালে ভারতের কোচ হয়ে পুরো দলটার বারোটা বাজিয়ে দিয়েছিলেন তিনি!

৫. মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন : ভারতের সাবেক কিংবদন্তি অধিনায়ক। খেলোয়াড় হিসেবে ভক্তদের অনেক প্রিয় হলেও ব্যক্তিজীবনের কারণে সমালোচনার শিখরে ছিলেন আজহারউদ্দিন। 

অভিনেত্রী সঙ্গীতা বিজলানিকে বিয়ে করার পরও একাধিক সম্পর্কে জড়িয়েছিলেন তিনি। আর সবচেয়ে বেশি নিন্দা কুড়ান ২০০০ সালে স্পট ফিক্সিংয়ে জড়িয়ে। এতেই এই বিখ্যাত ক্রিকেটারের ক্যারিয়ার পুরোপুরি শেষ হয়ে যায়।

৬. মাইকেল ক্লার্ক : অস্ট্রেলিয়ার আরও এক বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ক্লার্ক ২০০৭-০৮ মৌসুমে ভারত সফরে শচীন টেন্ডুলকার, বীরেন্দর শেবাগ আর অন্যান্য ভারতীয় খেলোয়াড়দের সঙ্গে বাকবিতণ্ডায় জড়িয়ে সমালোচিত হয়েছিলেন। 

তার বিরুদ্ধে স্বেচ্ছাচারিতার অভিযোগ তুলেছিলেন জাতীয় দলের সতীর্থ মিচেল জনসন। ক্লার্কেরও অন্য অস্ট্রেলিয়ান অধিনায়কদের মতো যে কোনো মূল্যে ম্যাচ জয়ের একটা প্রবণতা ছিল, যেটা তাকে ঘৃণার পাত্র বানিয়েছে।

৭. মুশফিকুর রহিম : ভারতীয় সমর্থকদের কাছে সবচেয়ে অপছন্দের ক্রিকেটারদের তালিকায় রয়েছে বাংলাদেশের উইকেটকিপার ব্যাটসম্যান মুশফিকুর রহিমের নাম।

'মি. ডিপেন্ডেবল' খ্যাত বাংলাদেশের এই মহাতারকা নাকি অপরিণত এবং দৃষ্টিকটু উদযাপন, সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে অপ্রয়োজনীয় মন্তব্য এবং পোস্টের কারণে ঘৃণিত! তবে সেটা ভারতীয় সমর্থকদের মাঝে। 

২০১৬ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ চলার সময় ওয়েস্ট ইন্ডিজের কাছে ভারতের হারের পর একটি ছবি পোস্ট করে আনন্দ প্রকাশ করেছিলেন মুশফিক। সেজন্যই নাকি মুশিকে পছন্দ করে না ভারতীয় সমর্থকরা। এছাড়া পশু হত্যার পর রক্তাক্ত ছবি পোস্ট করে বিশ্বজুড়ে সমালোচিত হন মুশফিক।

৮. শান্তাকুমারন শ্রীশান্ত : ভারতের সাবেক পেসার শ্রীশান্তের ক্যারিয়ার শেষ হয়েছে আইপিএলে ম্যাচ ফিক্সিং করে। এই প্রতিভাবান পেসার ২০০৭ সালে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ এবং ২০১১ সালে দেশের ওয়ানডে বিশ্বকাপের দলে ছিলেন। 

তারপরও ভক্ত-সমর্থকদের কাছে নিন্দার পাত্র এই শ্রীশান্ত, কারণ স্পট ফিক্সিংয়ের মতো প্রতারণা। ২০১৩ সালে এই কাণ্ডের পর আজীবন নিষিদ্ধ হন এই পেসার। অনেক আইন-আদালত করেও এই নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্ত হতে পারেননি তিনি।

৯. রবিচন্দ্রন অশ্বিন : ভারতের সর্বকালের সেরা স্পিনারদের অন্যতম অশ্বিন মূলত নিন্দা কুড়িয়েছেন দ্বাদশ আইপিএলে 'মানকর' আউটের কারণে। ২০১২ সালে অস্ট্রেলিয়ায় এই কাণ্ড ঘটালেও তেমন আলোচনা হয়নি। 

সবচেয়ে বেশি সমালোচিত হয়েছেন এবারের আইপিএলে কিংস ইলেভেন পাঞ্জাবের হয়ে রাজস্থান রয়্যালসের জস বাটলারকে 'মানকাড' আউটের ফাঁদে ফেলে। যেটা নিয়ে ক্রিকেটবিশ্বে রীতিমত ঝড় উঠে।

১০. মোহাম্মদ আসিফ : পাকিস্তানের আরেক ফিক্সিং পাপী। ২০১০ সালে ইংল্যান্ডে সালমান বাট এবং মোহাম্মদ আমিরের সঙ্গে স্পট ফিক্সিংয়ে নাম ছিল মোহাম্মদ আসিফেরও। আমিরের বয়স তখন অনেক কম হওয়ায় তাকে দোষীর কাঠগড়ায় দাঁড় করাননি ক্রিকেটভক্তরা। 

তবে সালমান বাটের সঙ্গে আসিফের নামটিই বেশি এসেছে। এর মধ্যে ২০০৬ সালে স্টেরয়েড জাতীয় ওষুধ নিয়ে ডোপ টেস্টে ধরা খান। একইরকম কাণ্ড ঘটান ২০০৮ সালে আইপিএলে দিল্লি ডেয়ারডেভিলসের হয়ে খেলতে গিয়েও। এভাবেই শেষ হয় তার ক্যারিয়ার।

১১. শেন ওয়ার্ন : ক্রিকেট ইতিহাসের কিংবদন্তি লেগস্পিনার শেন ওয়ার্ন খেলোয়াড়ি জীবনেই 'ব্যাড বয়' খ্যাতি পেয়েছিলেন। মাঠে এবং মাঠের বাইরে এমন কোনো কাণ্ড নেই যে তিনি ঘটাননি। অধিনায়ক স্টিভ ওয়াহর সঙ্গে তার সম্পর্ক ভালো ছিল না। 

২০০৩ সালে মাদক গ্রহণের কারণে বিশ্বকাপও খেলতে পারেননি। তার বিরুদ্ধে যৌন হয়রানির অভিযোগও ছিল। ১৯৯৪ সালে ওঠে ফিক্সিংয়ের অভিযোগ। ২০০৮ সালে তার ধুমপানের ছবি তোলায় দর্শক পেটান। এছাড়া নগ্ন তরুণীদের সঙ্গে ছবি প্রকাশ করে এখনও আলোচনায় থাকেন তিনি।



ইসলাম


দীর্ঘ ১৮০ বছর অপেক্ষার পর মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি পেল গ্রিসের মুসল্লিরা

দীর্ঘ-১৮০-বছর-অপেক্ষার-পর-মসজিদে-নামাজ-পড়ার-অনুমতি-পেল-গ্রিসের-মুসল্লিরা

যে দোয়াটি পড়লে ৭০ টি বিপদ থেকে মুক্তি পাবেন, সর্বনিম্নটি হলো দারিদ্রতা

যে-দোয়াটি-পড়লে-৭০-টি-বিপদ-থেকে-মুক্তি-পাবেন-সর্বনিম্নটি-হলো-দারিদ্রতা

ঘোর বিপদে সবাই মুখ ফিরিয়ে নিলেও, মহান আল্লাহপাক ফিরিয়ে নেননা

ঘোর-বিপদে-সবাই-মুখ-ফিরিয়ে-নিলেও-মহান-আল্লাহপাক-ফিরিয়ে-নেননা ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


যে কারণে টয়লেটের ফ্ল্যাশে রয়েছে '২ বাটন'

যে-কারণে-টয়লেটের-ফ্ল্যাশে-রয়েছে--২-বাটন-

ক্যান্সারের মতো রোগকেও প্রতিরোধ করে সফেদা

ক্যান্সারের-মতো-রোগকেও-প্রতিরোধ-করে-সফেদা

জেনে নিন, কালো জামের কিছু স্বাস্থ্য উপকারিতা

জেনে-নিন-কালো-জামের-কিছু-স্বাস্থ্য-উপকারিতা এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


দুঃসময়ে বন্ধু মাশরাফির পাশে দাঁড়ালেন আশরাফুল

আইসিসি থেকে বড় দুঃসংবাদ পেল বাংলাদেশ

যেভাবে বুঝবেন আপনার শরীরে ক্যালসিয়ামের অভাব, যা খেতে হবে

পাকিস্তানের এই বশির চাচাকে আট বছর যাবত ফ্রি ম্যাচ টিকেট দেন ধোনি!

পাঠকই লেখক


নাড়ীর নীড়ে

নাড়ীর-নীড়ে

বিলাসবহুল বিএমডব্লিউ গাড়ির তেল কিনতে রাতের আধাঁরে হাঁস-মুরগি চুরি!

বিলাসবহুল-বিএমডব্লিউ-গাড়ির-তেল-কিনতে-রাতের-আধাঁরে-হাঁস-মুরগি-চুরি-

ভারত ক্রিকেটের ‘আসল প্রতিপক্ষ’ বাংলাদেশ!

ভারত-ক্রিকেটের-‘আসল-প্রতিপক্ষ’-বাংলাদেশ- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ