০৯:১৭:০৮ সোমবার, ১৯ নভেম্বর ২০১৮

সর্বশেষ সংবাদ :

     • বিএনপি নির্বাচনে আসায় জাতীয় পার্টি ও আওয়ামী লীগ বেকায়দায়: দিলারা চৌধুরী     • ভিডিও কনফারেন্সে মনোনয়নপ্রত্যাশীদের কাছে যা জানতে চেয়েছেন তারেক রহমান     • আ’লীগের মনোনয়ন পাননি যে ১৩ এমপি     • ২৩২ আসনে প্রার্থী তালিকা চূড়ান্ত করল আওয়ামী লীগ     • ফেসবুক একাউন্ট খুলতে জাতীয় পরিচয়পত্র কেন বাধ্যতামূলক নয়: হাইকোর্ট     • বিএনপির নির্বাচনী প্রতীক ‘ধানের শীষ’ নাম সংশোধন চেয়ে হাইকোর্টে রিট     • ভিডিও কনফারেন্সে তারেক রহমানের সাক্ষাৎকার নেয়া আচরণবিধি লঙ্ঘন নয়: ইসি     • ব্রেকিং নিউজ: জাতীয় ঐক্যফ্রন্টে যোগদান করলেন সাবেক দশ সামরিক কর্মকর্তা     • দেশটাও হিরো আলমের উপযুক্ত হয়ে উঠেছে এতদিনে: তসলিমা নাসরিন     • বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে যা বললেন ভারতীয় হাই কমিশনার

মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০১৮, ১১:৩৮:৫৮

আপিল বিভাগে এসে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন বিচারক

আপিল বিভাগে এসে নিঃশর্ত ক্ষমা চাইলেন বিচারক

ঢাকা: ১০ বছর আগে একটি মামলা নিষ্পত্তির নির্দেশ থাকার পরেও সে মামলা নিষ্পত্তি না হওয়ায় কড়া সমালোচনা করে নারায়ণগঞ্জের যুগ্ম জেলা জজ মো: সফিকুল ইসলামকে ১৫ এপ্রিলের মধ্যে মামলাটি নিষ্পত্তির নির্দেশ দিয়েছেন সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগ।

আপিল বিভাগের আদেশে আজ মঙ্গলবার সকালে প্রধান বিচারপতি সৈয়দ মাহমুদ হোসেনের নেতৃত্বাধীন চার বিচারপতির আপিল বেঞ্চে ওই বিচারক হাজির হন। এরপর বিষয়টি শুনানির জন্য উঠলে প্রধান বিচারপতি ওই যুগ্ম জেলা জজকে উদ্দেশ্য করে বলেন, ‘আর কতদিন? আরও কি দশ বছর লাগবে এই মামলাটি নিষ্পত্তি করতে?’

এসময় ওই যুগ্ম জেলা জজ বলেন, মাই লর্ড। এই মামলাটি এর আগে আমার কাছে ছিল না। এরপর প্রধান বিচারপতি বলেন, আপনার কাছে এটা কতদিন? ওই বিচারক উত্তরে বলেন, একবছর  মাই লর্ড। এ সময় প্রধান বিচারপতি বলেন, ‘১ বছরেও আপনি পারেননি? কাজ কর্ম করেন, না শুধু গল্প গুজব করেন কোর্টে?’

এসময় যুগ্ম জেলা জজ মো: সফিকুল ইসলাম বলেন, মাই লর্ড। আমার আদালতে ৭ হাজারের অধিক মামলা রয়েছে। এরপর তিনি আপিল বিভাগের কাছে ( আনকন্ডিসনাল অ্যাপোলজি) নিঃশর্ত ক্ষমা প্রার্থনা করেন। এরপর আপিল বিভাগ আগামী ১৫ এপ্রিলের মধ্যে তাকে মামলাটি নিষ্পত্তির নির্দেশ দেন।

মামলা সূত্রে জানা যায়, তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষের দাবি করা ১২ মাসের বিল অবৈধ ঘোষণা চেয়ে একটি প্রতিষ্ঠান নিম্ন আদালতে মামলা করে। পাশাপাশি তিন লাখ টাকা করে বিল দিতে অনুমতি দেওয়ার আর্জি জানানো হয়। কিন্তু নিম্ন আদালত ২০০৭ সালের ১৫ মার্চ ওই আর্জি খারিজ করে দেন। পরে এই খারিজ আদেশের বিরুদ্ধে হাইকোর্টে আবেদন করে প্রতিষ্ঠানটি। সে আবেদনের চূড়ান্ত শুনানি শেষে ২০০৮ সালের ৪ জুলাই হাইকোর্ট রায় দেন। রায়ে প্রতি মাসে ১৭ লাখ টাকা করে বকেয়া ও সাড়ে সাত লাখ টাকা করে নিয়মিত মাসিক বিল পরিশোধ করতে বলা হয়। পাশাপাশি কোনো ধরনের বিলম্ব ছাড়া ২০০৮ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে যুগ্ম জেলা জজকে (অতিরিক্ত আদালত, নারায়ণগঞ্জ) এই মামলা নিষ্পত্তি করতে বলা হয়।

তবে হাইকোর্টের ওই রায়ের বিরুদ্ধে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আপিল করলে তা শুনানির জন্য সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে আসে। গত ৭ ফেব্রুয়ারি শুনানিকালে এই মামলাটি ২০০৮ সালের ৩০ নভেম্বরের মধ্যে নিষ্পত্তি করার বিষয়টি আদালতের নজরে আসে।

এরপরই আপিল বিভাগ এই মামলার নথিসহ নারায়ণগঞ্জ আদালতের যুগ্ম জেলা জজ মো: সফিকুল ইসলামকে ১৩ ফেব্রুয়ারি সুপ্রিম কোর্টের আপিল বিভাগে উপস্থিত হতে আদেশ দেন।-চ্যানেল আই
এমটি নিউজ/এপি/ডিসি



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


মসজিদটি মুসলমানদের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ আল কুরআনে বর্ণিত জান্নাতের আদলে নির্মিত

মসজিদটি-মুসলমানদের-পবিত্র-ধর্মগ্রন্থ-আল-কুরআনে-বর্ণিত-জান্নাতের-আদলে-নির্মিত

যে ব্যক্তি পরপর তিনবার জুমআ’র নামাজ ত্যাগ করল, তার পরিণতি…

যে-ব্যক্তি-পরপর-তিনবার-জুমআ’র-নামাজ-ত্যাগ-করল-তার-পরিণতি…

ভোট একটি আমানত, অযোগ্য ব্যক্তিকে ভোট দেয়া কবিরা গুনাহ

ভোট-একটি-আমানত-অযোগ্য-ব্যক্তিকে-ভোট-দেয়া-কবিরা-গুনাহ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


এই গাছটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের মহৌষধ! নিজে জানুন, অপরকে জানিয়ে দিন

এই-গাছটি-ডায়াবেটিস-নিয়ন্ত্রণের-মহৌষধ--নিজে-জানুন-অপরকে-জানিয়ে-দিন

মেয়েটি স্কুল থেকে ভ্রমণের জন্য একটা বৃদ্ধাশ্রমে গিয়ে খুঁজে পায় তার হারানো দাদীকে!

মেয়েটি-স্কুল-থেকে-ভ্রমণের-জন্য-একটা-বৃদ্ধাশ্রমে-গিয়ে-খুঁজে-পায়-তার-হারানো-দাদীকে-

ঠিক মতো ঘুমাতে পারছেন না? এক মিনিটের মধ্যে ঘুমিয়ে পড়ার কার্যকর টিপস!

ঠিক-মতো-ঘুমাতে-পারছেন-না--এক-মিনিটের-মধ্যে-ঘুমিয়ে-পড়ার-কার্যকর-টিপস- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


রাজশাহী খুলনা বরিশাল ও রংপুরের ৮১ আসনে আ’লীগের প্রার্থী চূড়ান্ত

আইপিএলে লিটন দাসকে নিয়ে টানাটানি!

এই গাছটি ডায়াবেটিস নিয়ন্ত্রণের মহৌষধ! নিজে জানুন, অপরকে জানিয়ে দিন

আ.লীগের প্রার্থী তালিকা প্রায় চূড়ান্ত, বাদ পড়ছেন বেশ কিছু সংসদ সদস্য

পাঠকই লেখক


নারী দৌড় দিলো পিছে পিছে কৃষক, পুরোহিত ও বাদশাহ দৌড় দিলো, দৌড়াতে দৌড়াতে...

নারী-দৌড়-দিলো-পিছে-পিছে-কৃষক-পুরোহিত-ও-বাদশাহ-দৌড়-দিলো-দৌড়াতে-দৌড়াতে

দুলাভাই ভয়ংকর

দুলাভাই-ভয়ংকর

বাসর রাত ও মায়াবতী

বাসর-রাত-ও-মায়াবতী পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ