যুবরাজকে দেখতে বাড়িতে এখন শত শত মানুষের ভিড়

০৪:২৯:২৭ শনিবার, ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • মুসলমানদের পবিত্র স্থান আজমির শরিফে গিয়ে প্রার্থনা নরেন্দ্র মোদির     • শেষ পর্যন্ত পাকিস্তানের নাগরিক হওয়ার জন্য আবেদন করলেন ক্যারিবিয়ান অধিনায়ক ডারেন সামি     • নিজের বিয়ের দাওয়াত কার্ড দিতে গিয়ে প্রাণ হারালেন বাবা হারা এতিম স্কুল শিক্ষিকা     • ৩ উইকেট হারিয়ে জিম্বাবুয়ের সংগ্রহ ১৩৪ রান     • প্রেমে এই ৫ ধরনের মহিলার থেকে দূরে থাকুন!     • প্রথমবারের মতো বাবা হলেন জিম্বাবুয়ের অধিনায়ক শন উইলিয়ামস     • এবার টানা তিনদিন বজ্রসহ ঝড় বৃষ্টির পূর্বাভাস     • ২০ বছরের গবেষণায় বিচিবিহীন সুস্বাদু লিচুর জাত উদ্ভাবন করল এক কৃষক!     • দুই বাংলা একদিন এক হয়ে যাবে: পশ্চিমবঙ্গের খাদ্যমন্ত্রী     • জিম্বাবুয়ে শিবিরে প্রথম আ'ঘা'ত হানলেন টাইগার রাহি

শুক্রবার, ১৪ জুন, ২০১৯, ০৯:৫৩:১৪

যুবরাজকে দেখতে বাড়িতে এখন শত শত মানুষের ভিড়

যুবরাজকে দেখতে বাড়িতে এখন শত শত মানুষের ভিড়

ঝিনাইদহ : ঝিনাইদহের দুর্গাপুর গ্রামে যুবরাজের বাড়িতে আসছে শত শত মানুষ। তার সঙ্গে সেলফিও তুলছেন অনেকে। অনেকে আবার যুবরাজের সঙ্গে তোলা ছবিটি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছড়িয়ে দিচ্ছেন। এসব কারণে যুবরাজকে দেখতে ভিড় বেড়েই চলছে। দুর্গাপুরের এই যুবরাজ কোনো রাজপুত্র নয়, শাহ আলম মিয়ার একটি ফ্রিজিয়ান জাতের ষাঁড়। শখ করে যার নাম রাখা হয়েছে যুবরাজ। এরই মধ্যে ব্যাপারীরা যুবরাজের দাম বলেছেন ১৮ লাখ টাকা। আর মালিক শাহ আলম চাচ্ছেন ২৫ লাখ টাকা। তবে কিছু কম হলেও তিনি বিক্রি করবেন।

ঝিনাইদহ সদর উপজেলার দুর্গাপুর গ্রামের বাসিন্দা মো. শাহ আলম মিয়ার পৈত্রিক বাড়ি মাদারিপুরের শিবচর উপজেলায়। প্রায় সাত বছর আগে এক বন্ধুর হাত ধরে এই গ্রামে চলে আসেন। বর্তমানে এখানে স্থায়ীভাবে বসবাস করছেন তিনি। স্কুল ও কলেজ জীবন শিবচরে কেটেছে তার। পরে অর্থ উপার্জন করতে বিদেশে যান। পাঁচ বছর সিঙ্গাপুরে থাকার পর দেশে ফিরে আসেন। এরপর বিদেশে ব্যবসা শুরু করেন। ব্যবসার প্রয়োজনে ৩৫টি দেশে ঘুরেছেন তিনি। পরে ঝিনাইদহে এসে গড়ে তোলেন আব্দুল্লাহ এগ্রো অ্যান্ড ডেইরি ফার্ম। প্রায় ৩৮ লাখ টাকা ব্যয় করে বাড়ির সঙ্গে এই ফার্ম প্রতিষ্ঠা করেছেন তিনি। তিন বছর হলো এই খামারে গরু লালন-পালন করেন। বর্তমানে তিনি এই খামারেই সময় দেন। এগুলো লালন-পালন করে যা আয় করেন তা দিয়ে সংসার চালান তিনি।

শাহ আলম জানান, বর্তমানে তার খামারে সাতটি গরু আছে। সবগুলো গরুর আলাদা আলাদা নাম আছে। তিনি সবাইকে নাম ধরেই ডাকেন। আসন্ন ঈদুল আজহায় তিনি যে তিনটি গরু বিক্রি করবেন সেগুলোর নাম যুবরাজ, রবি ও সাহেব। বাকি চারটা গরু আগামী বছর বিক্রি করবেন।

তিনি আরও জানান, গরুগুলো তার খুব আদরের। তাদের সবকিছু নিজ হাতেই করেন তিনি। খাবার দেয়া, ময়লা পরিষ্কার, গোসল দেয়া সবই নিজে করেন। কিন্তু গরুগুলো অনেক বড় হওয়ায় সব কাজ করতে পারেন না। তাই তাকে সহযোগিতা করার জন্য তিনজন কর্মচারীও রেখেছেন। তাদের চিকিৎসা, তাপমাত্রা ঠিক রাখাসহ সার্বক্ষণিক সতর্ক থাকতে হয়। 

শাহ আলম জানান, তিন বছর হলো তিনি এই খামার করেছেন। যুবরাজকে তিনি খামার শুরুর সময় নিয়েছিলেন মাত্র ৬ মাস বয়স সময়ে। এখন তার বয়স ৩ বছর ৬ মাস। এই সময়ে পরিমিত খাবার আর যত্ন করে তিনি যুবরাজকে এই পর্যায়ে নিয়ে এসেছেন।

তিনি বলেন, যুবরাজকে কিনতে ইতিমধ্যে ব্যাপারীরা আসছেন। তারা ১৮ লাখ টাকা পর্যন্ত মূল্য বলেছেন। আমি আরেকটু অপেক্ষা করছি। প্রয়োজনে হাটে তুলবো, ২৫ লাখ টাকা দাম চাইবো। এ ক্ষেত্রে কিছু কম হলেও বিক্রি করে দিবো। শাহ আলম জানান, যুবরাজের পেছনে এখন পর্যন্ত তার ৯ থেকে ১০ লাখ টাকা ব্যয় হয়েছে। এখন প্রতিদিন শত শত মানুষ তার এই গরু দেখতে আসে। এতে তার অনেক ঝামেলাও হচ্ছে, কিন্তু তারপরও তিনি খুশি।

ওই গ্রামের বাসিন্দা গোলাম মোস্তফা বলেন, শাহ আলম মিয়া গরুর সঙ্গে কথা বলেন। তিনি নাম ধরে ডাক দিলেই গরু বুঝতে পারে। মালিক যে নির্দেশ দেন সেটাই পালন করে। তিনি আরও বলেন, এই যুবরাজ আমাদের গ্রামটি অনেক এলাকার মানুষের কাছে পরিচয় করিয়ে দিচ্ছে। দূরদূরান্ত থেকে লোকজন আসছেন যুবরাজকে দেখতে।

ঝিনাইদহ শহর থেকে এসেছিলেন সাগর হোসেন। তিনি জানান, তাদের এলাকার অনেকে দেখে গিয়ে গল্প করছিলেন। এই গল্প শুনে তিনিও এসেছেন। গরুটি দেখে গরু মনে হয়নি, মনে হয়েছে এটি একটি হাতি।

এ বিষয়ে জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা. হাফিজুর রহমান বলেন, গরুটির ওজন ৩৫ মণ বলে ধারণা করা হচ্ছে। ঈদ আসতে এখনও কিছুদিন বাকি আছে। ঈদ আসতে আসতে গরুর ওজন আরও বেশি হবে।-জাগো নিউজ



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


দৈনন্দিন জীবনে ‘ইনশা আল্লাহ’ বলার গুরুত্ব ও তাৎপর্য এবং না বলার পরিণাম

দৈনন্দিন-জীবনে-‘ইনশা-আল্লাহ’-বলার-গুরুত্ব-ও-তাৎপর্য-এবং-না-বলার-পরিণাম

জীবনের শেষ সময়ে এসে পবিত্র ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করলেন ৯২ বছরের বৃদ্ধা

জীবনের-শেষ-সময়ে-এসে-পবিত্র-ধর্ম-ইসলাম-গ্রহণ-করলেন-৯২-বছরের-বৃদ্ধা

মানুষের চোখে ফেরেশতাদের দেখা কি সম্ভব?

মানুষের-চোখে-ফেরেশতাদের-দেখা-কি-সম্ভব- ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


২০ বছরের গবেষণায় বিচিবিহীন সুস্বাদু লিচুর জাত উদ্ভাবন করল এক কৃষক!

২০-বছরের-গবেষণায়-বিচিবিহীন-সুস্বাদু-লিচুর-জাত-উদ্ভাবন-করল-এক-কৃষক-

রিক্সায় যাত্রী নিয়ে যাচ্ছে রোবট কুকুর!

রিক্সায়-যাত্রী-নিয়ে-যাচ্ছে-রোবট-কুকুর-

পাইলস সমস্যার চিরস্থায়ী সমাধান লাউ শাক!

পাইলস-সমস্যার-চিরস্থায়ী-সমাধান-লাউ-শাক- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


অবশেষে বড় দায়িত্ব নিয়ে দলে আশরাফুল!

ভারতের ১৫ কোটি মুসলমান ১০০ কোটি হিন্দুকে শাসন করার শক্তি রাখে: ওয়ারিস পাঠান

মুসলমান নারী পতিতা হলেও তার জানাজা পড়তে হবে

আমার দেশে ইসলামের কোনো ঠাঁই নেই: স্লোভাকিয়ার প্রধানমন্ত্রী

বিচিত্র জগৎ


যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হলে অবশ্যই ম্যাট্রিকে ফেল করতে হবে!

যে-বিশ্ববিদ্যালয়ে-ভর্তি-হতে-হলে-অবশ্যই-ম্যাট্রিকে-ফেল-করতে-হবে-

আবারো বিয়ের পিঁড়িতে ৬ ভাইবোন, বাসর সাজালেন নাতি-নাতনিরা

আবারো-বিয়ের-পিঁড়িতে-৬-ভাইবোন-বাসর-সাজালেন-নাতি-নাতনিরা

চারবার আবেদন করেও ব্যাংক ঋণ না পেয়ে কিনলেন লটারি, ১৪ কোটি টাকা জিতলেন দিনমজুর

চারবার-আবেদন-করেও-ব্যাংক-ঋণ-না-পেয়ে-কিনলেন-লটারি-১৪-কোটি-টাকা-জিতলেন-দিনমজুর বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ