মঙ্গলবার, ১২ অক্টোবর, ২০২১, ০৮:৩৮:৪৩

গৃহবধূর সঙ্গে ভণ্ড কবিরাজের কাণ্ড!

গৃহবধূর সঙ্গে ভণ্ড কবিরাজের কাণ্ড!

চিকিৎসার নামে গৃহবধূর সঙ্গে ভণ্ড কবিরাজ এমন কী কাণ্ড করলেন যাতে  গৃহবধূর মুখমণ্ডল ঝলসে গেছে! ঘটনাটি কুড়িগ্রামের ভূরুঙ্গামারীতে যা নিয়ে চলেছে তোলপাড়।

গতকাল সোমবার (১১ অক্টোবর) দুপুরে উপজেলার দেওয়ানের খামার (লাকী হল পাড়া) গ্রামে এ ঘটনা ঘটে।

এই কারণে এলাকাবাসী নারী কবিরাজ সকিনা বেগম ও তার সহযোগী জাহানারা বেগমকে আটক করে পুলিশে দিয়েছে। মুখমণ্ডল ঝলসে যাওয়া গৃহবধূ বর্তমানে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন।

প্রাপ্ত তথ্যে জানা যায়, হাসিনা বেগমের স্বামী রাসেদুন্নবী বুলু বলেন, 'হাসিনা বেগম বেশ কিছুদিন ধরে অসুখে ভুগছিলেন। নাগেশ্বরী উপজেলার উত্তর ব্যাপারী হাট নামক এলাকা থেকে সকিনা বেগম নামের এক নারী কবিরাজ প্রতিবেশী আমিনুরের বাড়িতে চিকিৎসা  দিতে আসতেন। সোমবার হাসিনা বেগমকে চিকিৎসার জন্য ওই কবিরাজের কাছে নেওয়া হয়। চিকিৎসার নামে কবিরাজ কী করেছে জানি না। এতে হাসিনা বেগমের সারা মুখে ফোসকা উঠেছে। শরীরে আঘাতের চিহ্ন। আমার স্ত্রী সুস্থ না হলে ওই কবিরাজের বিরুদ্ধে আইনি ব্যবস্থা নেব।'

এই ব্যাপারে ভূরুঙ্গামারী উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক চিকিৎসা কর্মকর্তা ডা. সাদ্দাম হোসেন বলেন, 'হাসিনা বেগমের মুখমণ্ডলের প্রায় পুরো অংশই ঝলসে গেছে। প্রাথমিকভাবে ধারণা করা হচ্ছে কেমিক্যাল জাতীয় কোনো পদার্থ ছোড়া হয়েছে তাঁর মুখে। তাঁর শরীরে আঘাতের চিহ্ন দেখা গেছে। তাঁকে উন্নত চিকিৎসার জন্য কুড়িগ্রাম জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এলাকাবাসী এক নারী কবিরাজ ও তার সহযোগীকে আটক করে পুলিশের কাছে হস্তান্তর করেছে। লিখিত অভিযোগ পেলে আইনি পদক্ষেপ গ্রহণ করা হবে।' বলেছেন ভূরুঙ্গামারী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তদন্ত আজাহার আলী।

এমটিনিউজ২৪.কম এর খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) এ ডান দিকের স্টার বাটনে ক্লিক করে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি ফলো করুন! Follow করুন এমটিনিউজ২৪ গুগল নিউজ