কৃষকরা ন্যায্য মূল্য পেতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান কিনছেন জেলা প্রশাসক ও খাদ্য কর্মকর্তারা

০৭:৪৭:০১ শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • দ্বিতীয় করোনা টেস্ট নিয়ে যা জানালেন মাশরাফী     • লকডাউন না মেনে বন্ধুদের সঙ্গে পার্টি, অতঃপর করোনায় মৃত্যু     • দিল্লি দা'ঙ্গায় 'জয় শ্রীরাম' না বলায় ৯ মুসলিমকে হ'ত্যা     • বহু করোনা রোগীর জীবন বাঁ'চানো সেই ডাক্তারের মৃ'ত্যু করোনাতেই!     • করোনায় আক্রা'ন্ত পাকিস্তানের পররাষ্ট্র মন্ত্রী     • ডা. জাফরুল্লাহ'র প্রস্তাবে সম্মতি জানালেন শেখ হাসিনার ব্যক্তিগত চিকিৎসক ডা. আব্দুল্লাহ     • অবশেষে শামীম ওসমানের হস্তক্ষেপে বৃদ্ধ দম্পতিকে ভর্তি নিল হাসপাতাল     • ডা. আসিফ মাহমুদ গাজীপুরের গর্ব, মেট্রিকে আইডিয়াল স্কুল (7th stand), নটরডেমিয়ান, ঢাবি থেকে মাস্টার্স ফার্স্ট ক্লাস ফার্স্ট     • ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরীকে আবারো দেখে এলেন প্রধানমন্ত্রীর ব্যক্তিগত চিকিৎসক     • 'পাটকল শ্রমিকদের জন্য প্রধানমন্ত্রী চোখের পানি ফেলেছেন'

শুক্রবার, ১৭ মে, ২০১৯, ০২:৩০:০৪

কৃষকরা ন্যায্য মূল্য পেতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান কিনছেন জেলা প্রশাসক ও খাদ্য কর্মকর্তারা

কৃষকরা ন্যায্য মূল্য পেতে বাড়ি বাড়ি গিয়ে ধান কিনছেন জেলা প্রশাসক ও খাদ্য কর্মকর্তারা

নিউজ ডেস্ক : সারা দেশে কৃষকরা ঠিক মতো ধানের দাম পাচ্ছেন না। এর জন্য কুষ্টিয়ায় বাড়ি বাড়ি গিয়ে প্রকৃত কৃষকদের কাছ থেকে ধান কিনছেন জেলা প্রশাসক ও খাদ্য অফিসের কর্মকর্তারা।

গত ১৫ মে বুবধার দুপুরে সদর উপজেলার আলামপুর ইউনিয়নের ভাদালিয়া গ্রাম থেকে শুরু হয় আনুষ্ঠানিক এই ধান ক্রয় কার্যক্রম। ওই দিন ১৩ জন কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনা হয়। প্রতি কেজি ধান কেনা হয় ২৬ টাকা দরে।

এ সময় জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন, অতিরিক্তি জেলা প্রশাসক মো. আজাদ জাহান, সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার জুবায়ের হোসেন চৌধুরী, জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন, উপজেলা খাদ্য কর্মকর্তা শাহ নেওয়াজ, জেলা চালকল মালিক সমিতির সভাপতি ওমর ফারুক ও আলামপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান সিরাজ উদ্দিন শেখসহ অনেকেই উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে জেলা খাদ্য অফিস সূত্রে জানা গেছে, কৃষকরা যাতে ধানের দাম পায় ও প্রকৃত কৃষক যাতে সরকারের কাছে ধান বিক্রি করতে পারে সেজন্য সদর জেলা ও উপজেলা প্রশাসন থেকে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। সদর উপজেলা নির্বাহী অফিসার যাছাই-বাছাই করে কৃষকদের তালিকা প্রস্তুত করে দিয়েছেন।
এবার কুষ্টিয়া জেলা থেকে ১ হাজার মেট্রিক টনের বেশি ধান কেনা হচ্ছে। আর সদর উপজেলা থেকে কেনা হচ্ছে প্রায় ৩০০ মেট্রিক টন।

এ ব্যাপারে সদর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জুবায়ের হোসেন চৌধুরী বলেন, ‘সারা দেশে কৃষকরা ঠিক মতো ধানের দর পাচ্ছেন না। তাই কুষ্টিয়ায় গ্রামে গিয়ে প্রকৃত কৃষকের কাছ থেকে ধান কেনা হচ্ছে। যাতে করে কৃষকরা প্রকৃত দাম পান। সরাসারি কৃষকদের তালিকা করে দেয়া হয়েছে। একজন কৃষক কমপক্ষে আধা টন ধান সরকারকে দিতে পারবেন।’

এ সময় ধান বিক্রি করতে আসা দহকুলা গ্রামের কৃষক মোশাররফ ও শের আলী জানান, সিন্ডিকেটের কারণে তারা সরকারি গোডাউনে ধান দিতে পারেন না। তবে এবার গ্রামে এসে ধান কেনায় তারা সহজেই ধান বিক্রি করতে পারবেন। এতে কৃষকরা হয়রানি হবে না। ২৬ টাকা কেজি ধান বিক্রি করে তাদের লাভ থাকছে। তবে ধান কেনার পরিমাণ আরও বাড়ানোর দাবি করেন তারা।

এ সময় কৃষক আছের আলী ও মহররম জানান, কমপক্ষে প্রতিটি উপজেলা থেকে ২ থেকে ৩ হাজার মেট্রিক টন ধান কেনা উচিত। তাতে কৃষকরা কিছুটা লাভবান হতো। এত অল্প ধান কেনায় সব কৃষক এ সুবিধা পাবে না। তারপরও জেলা প্রশাসন থেকে যে উদ্যোগ নেয়া হয়েছে তা কৃষকদের জন্য ভালো হবে।

এ ব্যাপারে জেলা খাদ্য কর্মকর্তা মনোয়ার হোসেন বলেন, ‘প্রকৃত কৃষকদের তালিকা প্রস্তুত করা হয়েছে। এসব কৃষকদের কাছ থেকে ধান কেনা হবে। কোনো ফড়িয়া বা দালালের কাছ থেকে ধান কেনার কোনো সুযোগ নেয়।’

এদিকে জেলা প্রশাসক মো. আসলাম হোসেন বলেন, ‘কৃষক বাঁচলে দেশ বাঁচবে। সরকার কৃষকদের কাছ থেকে সরাসরি ধান কেনার সিদ্ধান্ত নিয়েছে। তাই প্রকৃত কৃষকদের বাছাই করে তাদের কাছ থেকে প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে ধান কেনা হবে।’

তিনি আরও বলেন, ‘কোনো ভাবেই কোনো সিন্ডিকেট ধান দিতে পারবে না। বেশি সংখ্যক কৃষক যাতে ধান বিক্রি করতে পারে সে জন্য প্রয়োজনীয় উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। প্রতিটি ইউনিয়ন থেকে কমপক্ষে ৪০ জন কৃষকের কাছ থেকে সরাসরি ধান ক্রয় করা হবে।’



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


কোরআন ছাড়া এক পা এগোনো মানুষের জন্য মঙ্গলজনক নয়

কোরআন-ছাড়া-এক-পা-এগোনো-মানুষের-জন্য-মঙ্গলজনক-নয়

কাবা শরিফ চত্বরে সালাতুল কুসুফ আদায়

কাবা-শরিফ-চত্বরে-সালাতুল-কুসুফ-আদায়

সোনার প্রলেপের ডিজাইনে লিখিত ৫০০ বছরের পুরনো ‘তিমুরিদ কোরআন’, রং ও উজ্জ্বলতা এখনো অক্ষুণ্ণ

সোনার-প্রলেপের-ডিজাইনে-লিখিত-৫০০-বছরের-পুরনো-‘তিমুরিদ-কোরআন’-রং-ও-উজ্জ্বলতা-এখনো-অক্ষুণ্ণ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


ইরানের যেসব দর্শনীয় স্থান দেখে বিশ্বের পর্যটকেরা মুগ্ধ হন

ইরানের-যেসব-দর্শনীয়-স্থান-দেখে-বিশ্বের-পর্যটকেরা-মুগ্ধ-হন

জানেন কি, বাড়িতে করোনা নিয়ে আসতে পারে জুতাও! জেনে নিন বাঁচার উপায়

জানেন-কি-বাড়িতে-করোনা-নিয়ে-আসতে-পারে-জুতাও--জেনে-নিন-বাঁচার-উপায়

দুটি পাথরে ভাগ্য বদল, শ্রমিক থেকে এক দিনেই ৩০ কোটি টাকার মালিক!

দুটি-পাথরে-ভাগ্য-বদল-শ্রমিক-থেকে-এক-দিনেই-৩০-কোটি-টাকার-মালিক- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


যার ভয়ে আইসিসি চেয়ারম্যানের পদ ছেড়ে পালিয়েছেন শশাঙ্ক মনোহর!

সেনা সরাতে এক চুলও রাজি নয় চীন!

করোনা রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স দান করলেন সালাহ

আ'ত্মহ'ত্যার আগে শেষবারের মতো গুগলে সা'র্চ করে যা দেখেছিলেন সুশান্ত!

বিচিত্র জগৎ


নিজেকে নারী বলেই জানতেন অথচ তিরিশ বছর পর জানা গেল তারা দু’বোন আসলে পুরুষ!

নিজেকে-নারী-বলেই-জানতেন-অথচ-তিরিশ-বছর-পর-জানা-গেল-তারা-দু’বোন-আসলে-পুরুষ-

সন্তানদের মৃত্যু দেখে বেঁচে থাকার ইচ্ছেটুকুই হারিয়ে ফেলল এক মা হাঁস!

সন্তানদের-মৃত্যু-দেখে-বেঁচে-থাকার-ইচ্ছেটুকুই-হারিয়ে-ফেলল-এক-মা-হাঁস-

গুলশানের ফ্ল্যাটে ঢুকে খাবার দেখেই ৩ দিন কাটিয়ে দিল চোর, ফ্ল্যাটের মালিক দেখলেন যুক্তরাষ্ট্রে বসে - অতঃপর…

গুলশানের-ফ্ল্যাটে-ঢুকে-খাবার-দেখেই-৩-দিন-কাটিয়ে-দিল-চোর-ফ্ল্যাটের-মালিক-দেখলেন-যুক্তরাষ্ট্রে-বসে-অতঃপর… বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ