দাঁড়িয়ে থেকে তিন দশক পর প্রথম প্রেমিকের সঙ্গে মায়ের বিয়ে দিলেন দুই মেয়ে!

০৭:০৫:০৪ বুধবার, ০৩ জুন ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • চীনা মোবাইল ও অ্যাপ বয়কটের হিড়িক     • ট্রাম্প বিরো'ধী বিক্ষো'ভকারীদের যে পরামর্শ দিলেন বারাক ওবামা     • দুই মাস পর গ্রাম থেকে ঢাকায় ফিরলেন নুসরাত ফারিয়া     • বাংলাদেশের নাম দেওয়া ‘নিসর্গ’ ভারতে আঘা'ত হেনে ব্যাপক ধ্বং'সলীলা চালাবে!     • এখন পর্যন্ত করোনায় বিদেশে মা'রা গেছে ৮০৬ জন বাংলাদেশি     • পরিসংখ্যান অধিদপ্তর বলছে, যুক্তরাজ্যে করোনায় মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় ৫০০০০ জন     • এক ডিভোর্সেই বিশ্বের সবচেয়ে ধনীর তালিকায় এই যুবতী     • পৃথিবীর দিকে ধে'য়ে আসছে বিশাল উল্কা পিণ্ড, নতুন বি'পদের মুখে নাসার অ্যালার্ট জারি     • জোর করে গর্ভপাতের পর বিয়ে করতে রাজি না হওয়ায় অভিনেত্রীর আত্মহ'ত্যা     • 'আমার বাবার স্বপ্ন পূরণের জন্যে আমি ক্রিকেট খেলি '

শনিবার, ১৬ মে, ২০২০, ০৮:০৩:৩৪

দাঁড়িয়ে থেকে তিন দশক পর প্রথম প্রেমিকের সঙ্গে মায়ের বিয়ে দিলেন দুই মেয়ে!

দাঁড়িয়ে থেকে তিন দশক পর প্রথম প্রেমিকের সঙ্গে মায়ের বিয়ে দিলেন দুই মেয়ে!

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : সময়টা ১৯৮৪। অনিতা তখন দশম শ্রেণির ছাত্রী। ভারতের কেরালার কোল্লামের ওয়াচিরা গ্রামে থাকত কিশোরী অনিতা। সেই গ্রামেই কোচিং সেন্টারে পড়াতেন বিক্রমণ। রাজনৈতিক কার্যকলাপেও যুক্ত ছিলেন তিনি। তার কোচিং সেন্টারে টিউশন পড়তে যেত অনিতা। পার্টির অনুষ্ঠানেও দেখা হত তাদের।

এই ভাবেই এক দিন তাদের মধ্যে প্রেমের সম্পর্ক গড়ে ওঠে। দিনে দিনে সেই সম্পর্ক আরও গভীর হয়। কয়েক বছর পরে বাড়িতে বিক্রমণের সঙ্গে প্রেমের সম্পর্কের কথা জানান অনিতা। কিন্তু সেনাবাহিনীর অ্যাসিট্যান্ট ইঞ্জিনিয়ার অনিতার বাবা সেই সম্পর্ক মেনে নেননি। পরে সেই গ্রামেরই অন্য এক যুবকের সঙ্গে তার বিয়ে দেন তিনি।

অন্য পাত্রের সঙ্গে অনিতার বিয়ের খবর পেতেই মন ভেঙে যায় বিক্রমণের। ওয়াচিরা গ্রাম পুরোপুরিভাবে ত্যা'গ করেন তিনি। চলে যান কোট্টয়ামের চিভারাতে। সেখানে গিয়ে তিনি আবার শিক্ষকতা শুরু করেন। প্রেমিককে হা'রিয়ে বাবার দেখা পাত্রের সঙ্গেই বিয়ের পর সংসার করছিলেন অনিতা। তাদের দুই কন্যা সন্তানও হয়। বড় মেয়ে অথিরা ও ছোট মেয়ে অ্যাশলিকে নিয়ে ছিল অনিতার জীবন।

তার স্বামী ছিল সু'রাস'ক্ত। অথিরার বয়স যখন আট, তখন আত্মহ'ত্যা করেন অনিতার স্বামী। ছোট দুই মেয়েকে একাই মানুষ করতে থাকেন অনিতা। জমি জায়গা বিক্রি করে, নিজে বিভিন্ন রকম কাজ করে রোজগার করেন। তা দিয়ে লেখাপড়া শেখান দুই মেয়েকে। এভাবেই কেটে যাচ্ছিল অনিতার জীবন। মেয়েরাও বড় হতে থাকে। তারও বয়স বাড়তে থাকে।

সময়টা ২০১৬। অনিতার দুই মেয়ে তখন বেশ বড় হয়ে গেছে। তারা তখন সাবালিকা। শিক্ষকতার জীবন থেকে অবসর নিয়ে বিক্রমণও ফিরে এসেছেন ওয়াচিরাতে। সে বছরই এক দিন বিক্রমণের সঙ্গে দেখা হয় অনিতার। জীবনের প্রথম প্রেমিকের সঙ্গে দেখা হতেই পরিণতি না পাওয়া প্রেমের বেদনায় মন যেন আরও ভা'রাক্রা'ন্ত হয় অনিতার। কিন্তু মুখ ফুটে সে কথা তিনি মেয়েদের বলতেও পারছিলেন না। এক দিন সেই জড়তা কাটিয়ে নিজের প্রেম হা'রানোর গল্প মেয়েদের বলেন তিনি। 

অথিরা এক সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, ''নিজের জীবনের গল্প বলার সময় মায়ের গলা বুজে আসছিল। প্রেমভঙ্গের ব্যথা মায়ের চোখে মুখে ফুটে উঠছিল।'' তারপর থেকেই মাকে তার পুরনো প্রেমিকের সঙ্গে মিলিয়ে দেওয়ার কথা ভাবতে থাকেন অথিরা ও অ্যাশলি। দুই বোন মিলে ঠিক করে ফেলেন বিক্রমণের সঙ্গে বিয়ে দেবেন মায়ের। কিন্তু কীভাবে?

সাহস সঞ্চয় করে একদিন তারা দেখা করেন বিক্রমণের সঙ্গে। জানান তাদের ইচ্ছার কথা। কিন্তু তাতে কাজ হয়নি। অথিরা সংবাদমাধ্যমকে জানিয়েছেন, বিক্রমণ তাদের ফিরিয়ে দিয়ে বলেন, ''তোমরা বড় হয়েছ। মায়ের ভবিষ্যত নিয়ে ভাবার আগে নিজেদের ভবিষ্যত নিয়ে ভাবো। সেটা অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ।''

কিন্তু অনিতার দুই মেয়ে হাল ছাড়েননি। বার বার দেখা করেন বিক্রমণের সঙ্গে। বিক্রমণকে বোঝাতে থাকেন। তারপর বিয়ের জন্য রাজি করান তাকে। পাশাপাশি মাকেও বিয়ে করার জন্য মানসিকভাবে প্রস্তুত করেন দুই বোন। ২০১৬ সালের ২১ জুলাই বিক্রমণের সঙ্গে বিয়ে হয় অনিতার। ৫২ বছর বয়সে নিজের হারানো প্রেম ফিরে পান অনিতা। 

নিজেদের বন্ধুবান্ধব ও পরিচিতদের উপস্থিতিতে ঘরোয়া অনুষ্ঠানের মাধ্যমে প্রথম প্রেমিককে মায়ের কাছে ফিরিয়ে দেন দুই মেয়ে। দুই যুবতীর উদ্যোগে ফের জোড়া লাগে ভে'ঙে যাওয়া প্রেম। তবে এই বিয়ে দিতে গিয়ে অনেক বা'ধার সম্মুখীন হতে হয়েছিল অথিরা ও অ্যাশলিকে। তাদের অনেক নিকট আত্মীয়ই প্রথমে আ'পত্তি জানিয়েছিল এই বিয়েতে। কিন্তু সারা জীবন ক'ষ্ট পাওয়া মায়ের মুখে হাসি ফোটাতে ব'দ্ধপরিকর মেয়েদের ইচ্ছার কাছে টিকতে পারেনি সেই বা'ধা।

এ ব্যাপারে অথিরা জানিয়ছেন, ''আমার বয়স যখন আট, তখন বাবা আ'ত্মঘা'তী হন। মায়ের স্নেহের ছায়া সেই দুঃসময়ে আমাদের আগলে রেখেছিল। আমাদের পড়াশোনা করাতে সারা জীবন প্রচুর পরিশ্রম করেছে মা। আমাদের স্বপ্নপূরণের জন্য নিজের সুখ বিসর্জন দিয়েছে। তাই মায়ের জীবনে একটু আনন্দ দিতে না পারলে আমাদের প্রতি তার ভালবাসা মর্যাদা পাবে না।''

বিক্রমণকে বিয়ের পর দুই মেয়ের সঙ্গে আনন্দেই কে'টেছে অনিতার জীবন। চার বছর আনন্দে কাটার পর গত মাসে হার্ট অ্যা'টাকে মা'রা যান বিক্রমণ। সে সময় তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর। বিক্রমণের স্মৃতি রো'মন্থন করতে গিয়ে সম্প্রতি অথিরা বলেছেন, ''আমরা ওঁকে খুব মিস করি। কিন্তু ভে'ঙে যাওয়া প্রেমকে পরিণতি দিতে পেরে আমরা খুব খুশি। উনি ফিরে এসে হাসি ফুটিয়েছিলেন মায়ের মুখে।'' সূত্র: আনন্দবাজার



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


নামাজ শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যেভাবে

নামাজ-শরীরে-রোগ-প্রতিরোধ-ক্ষমতা-বাড়ায়-যেভাবে

ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস ও ঝড় থেকে মুক্ত থাকার দোয়া

ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাস-ও-ঝড়-থেকে-মুক্ত-থাকার-দোয়া

রোজাদারের জন্য পবিত্র রমজানে জান্নাতে নির্মান করা হয় উজ্জল প্রাসাদ

রোজাদারের-জন্য-পবিত্র-রমজানে-জান্নাতে-নির্মান-করা-হয়-উজ্জল-প্রাসাদ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


এক ডিভোর্সেই বিশ্বের সবচেয়ে ধনীর তালিকায় এই যুবতী

এক-ডিভোর্সেই-বিশ্বের-সবচেয়ে-ধনীর-তালিকায়-এই-যুবতী

যে কারণে বাথরুমেই স্ট্রোক বেশি হয়!

যে-কারণে-বাথরুমেই-স্ট্রোক-বেশি-হয়-

বেশি পানি পান করলে বাড়ে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা

বেশি-পানি-পান-করলে-বাড়ে-রোগ-প্রতিরোধ-ক্ষমতা এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


‘বাস্তবতা হল ইতালিতে ভাইরাসটি ক্লিনিক্যালি আর নেই: আলবার্তো জাংরিলো

জুনেও এনজিও কিস্তি আদায় বন্ধ, জোর করলে লাইসেন্স বাতিল

হার্দিকের স্ত্রী নাতাশার মা হওয়ার খবরে যা বললেন সাবেক প্রেমিক আলি

খুলে দেয়ার সিদ্ধান্ত বাতিল করে আরও ৩০ দিনের ক'ঠোর লকডাউনের আহ্বান

বিচিত্র জগৎ


এই সেই আম, এক কেজি কিনতে গিয়ে অনেক ধনী ব্যক্তিও ঢোঁক গিলেন কারণ এটাই বিশ্বের সবচেয়ে দামি

এই-সেই-আম-এক-কেজি-কিনতে-গিয়ে-অনেক-ধনী-ব্যক্তিও-ঢোঁক-গিলেন-কারণ-এটাই-বিশ্বের-সবচেয়ে-দামি

করোনায় মালিকের মৃত্যুর পরেও ৩ মাস হাসপাতালে তার ফেরার অপেক্ষা করতে থাকে প্রভু ভক্ত কুকুর

করোনায়-মালিকের-মৃত্যুর-পরেও-৩-মাস-হাসপাতালে-তার-ফেরার-অপেক্ষা-করতে-থাকে-প্রভু-ভক্ত-কুকুর

সাতদিনে ১২০০ কিমি রাস্তা সাইকেল চালিয়ে অসুস্থ বাবাকে নিয়ে বাড়ি ফিরলেন অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী!

সাতদিনে-১২০০-কিমি-রাস্তা-সাইকেল-চালিয়ে-অসুস্থ-বাবাকে-নিয়ে-বাড়ি-ফিরলেন-অষ্টম-শ্রেণির-ছাত্রী- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ