মঙ্গলবার, ১৩ ফেব্রুয়ারী, ২০২৪, ০৩:৫৭:৩৪

দুধ-দই খাওয়ার পর ভুলেও খাবেন না পেঁপে!

দুধ-দই খাওয়ার পর ভুলেও খাবেন না পেঁপে!

এক্সক্লুসিভ ডেস্ক : অসুস্থ রোগী থেকে ফিটনেস ফ্রিক তরুণী, শিশু থেকে বৃদ্ধ সকলের পছন্দের ফলের তালিকায় পেঁপে। ক্যালশিয়াম, পটাশিয়াম সহ ভিটামিন এ, ভিটামিন ই, ভিটামিন কে, ভিটামিন সি, ভিটামিন বি৯, ভিটামিন বি১, ভিটামিন বি৩, ভিটামিন বি৫-এর পুষ্টিগুণে ঠাসা এই ফল। তাই পুষ্টির ঘাটতি পূরণে প্রথম সারিতেই থাকে পেঁপের নাম।

বিভিন্ন ক্রনিক রোগভোগকে দূরে রাখে পাকা পেঁপের এই পুষ্টিগুণ। কিন্তু এমন উপকারী ফলও শরীরের পক্ষে টক্সিক হয়ে উঠতে পারে যদি কয়েকটি বিষয়ে নজর না রাখা হয়। যেমন- পেঁপে খাওয়ার আগে পরে কী খাওয়া হচ্ছে তা গুরুত্বপূর্ণ। এমন কিছু খাবার আগে যা পেঁপের সঙ্গে খেলে আদতে হিতে বিপরীত হতে পারে বলে সতর্ক করছেন পুষ্টিবিদরা। 

দই পেঁপের কম্বো মারাত্মক
পেঁপের সঙ্গে দইয়ের যুগলবন্দি একেবারে বেমানান। পুষ্টিবিদদের মতে, পেঁপে শরীরকে গরম রাখে আর দই ঠান্ডা করে। দুই বিপরীতধর্মী খাবারের কারণে বিগড়োতে পারে স্বাস্থ্য। একইসঙ্গে সর্দি কাশির সম্ভাবনা তৈরি হয়। তাই বিপত্তি এড়াতে দুটো খাবারের মধ্যে অন্তত এক ঘণ্টা ব্যবধান রাখা উচিত।

ফ্রুট স্যালাড বানানোর সময় সাবধান
পুষ্টিবিদরা জানাচ্ছেন, শীতের মরশুমে ফ্রুট স্যালাড বানিয়ে খাওয়ার সময় পেঁপে ব্যবহার করলে বাকি ফল নিয়ে হতে হবে সাবধান। যেমন শীতের মরশুমি ফল কমলালেবুকে কোনওভাবেই পেঁপের সঙ্গে রাখা যাবে না। কমলা লেবু টক প্রকৃতির, পেঁপে আবার মিষ্টি। তাই একসঙ্গে খেলে পেটের গোলমাল হওয়ার সম্ভাবনা।

সরিয়ে রাখুন পাতিলেবুও
ফ্রুট স্যালাডের টেস্ট বাড়াতে অনেকেই পাতিলেবুও চিপে দেন। কিন্তু পেঁপে থাকলে কোনওভাবেই লেবুর রস দেবেন না। তাতে একই কারণে বারোটা বাজবে পেঁপের

করলা রাখুন দূরে
পাকা পেঁপের সঙ্গে করলার জুস বা করলা দেওয়া কোনও খাবার খেলেই চিত্তির। আসলে পাকা পেঁপে একদিকে শরীরকে আর্দ্র করে আর করলা হজম হতে দেহের জল শুষে নেয়। এছাড়া দুজনের স্বাদও একদম বিপরীত। তাই খেলে জিভেও লাগবে ঝটকা।

দুধের সঙ্গে পেঁপে খাবেন না
ব্রেকফাস্টে দুধ খেলে কোনওভাবেই পাতে রাখবেন না পেঁপে। দুধের পরপর পেঁপে মুখে পড়লে পেটের গোলমাল নিশ্চিত। অন্তত পক্ষে দুই খাবারের মধ্যে আধঘণ্টা থেকে একঘণ্টার ব্যবধান রাখুন।

Follow করুন এমটিনিউজ২৪ গুগল নিউজ, টুইটার , ফেসবুক এবং সাবস্ক্রাইব করুন এমটিনিউজ২৪ ইউটিউব চ্যানেলে