‘রোহিঙ্গাদের পার্বত্য চট্টগ্রামে রাখা হবে না’

০৪:০৪:২৭ শুক্রবার, ২২ নভেম্বর ২০১৯


রবিবার, ০৮ অক্টোবর, ২০১৭, ১০:৪৯:১২

‘রোহিঙ্গাদের পার্বত্য চট্টগ্রামে রাখা হবে না’

‘রোহিঙ্গাদের পার্বত্য চট্টগ্রামে রাখা হবে না’

বান্দরবান থেকে : একজন রোহিঙ্গাকেও পার্বত্য চট্টগ্রামে রাখা হবে না। এ বিষয়ে সরকারি সিদ্ধান্ত হয়েছে বলে জানিয়েছেন বান্দরবানের পুলিশ সুপার (এসপি) সঞ্জিত কুমার রায়। রোববার জেলা বান্দরবানের প্রশাসকের কার্যালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত জেলা আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় এ কথা বলেন তিনি।

গত ২৫ আগস্ট মিয়ানমারের রাখাইনে সংঘাতের কারণে বাংলাদেশে হাজার হাজার রোহিঙ্গা আসতে শুরু করে। এ ঢল মূলত কক্সবাজারের দিকেই ছিল বেশি। তবে বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির মিয়ানমার সীমান্তসংলগ্ন এলাকাতেও এসে পড়ে কয়েক হাজার রোহিঙ্গা।

তবে পার্বত্য এ জেলাতে রোহিঙ্গাদের না রাখার বিষয়ে কঠোর সরকারি সিদ্ধান্তের কথা জানানো হলো আজ। সভায় এসপি বলেন, বান্দরবানের তুমব্রু পশ্চিমকুলে আশ্রয় নেওয়া প্রায় সাত হাজার রোহিঙ্গাকে ইতিমধ্যে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

চাকঢালা, আশারতলি ও দোছড়ি সীমান্তের রোহিঙ্গাদের দ্রুত স্থানান্তর করা হবে। তবে তুমব্রু কোনাপাড়ার সীমান্তের শূন্যরেখায় অবস্থানরত প্রায় ১ হাজার ৪০০ রোহিঙ্গা পরিবারকে স্থানান্তরের ব্যাপারে এখনো কোনো নির্দেশনা পাওয়া যায়নি।

সভায় আলোচনায় বলা হয়, কিছু ধর্মীয় সংগঠন আশ্রয়শিবিরে ত্রাণ দিতে যায়। ওই সংগঠনের নেতা-কর্মীদের সঙ্গে জঙ্গি সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরাও যাওয়ার ব্যাপারে সন্দেহ রয়েছে। এ জন্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনী ও রোহিঙ্গা কাজে জড়িত ব্যক্তিদের আরও বেশি সতর্ক হতে হবে।

সভায় বলা হয়, জেলায় নাইক্ষ্যংছড়ি সীমান্তে রোহিঙ্গা অনুপ্রবেশ, সীমান্তের ওপারে মাইন বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটলেও জেলার সার্বিক পরিস্থিতি শান্তিপূর্ণ রয়েছে। সীমান্তে ও সীমান্তের শূন্যরেখায় আশ্রয় নেওয়া রোহিঙ্গারা অত্যন্ত ভালো অবস্থায় রয়েছে। তাই এ রকম ভালো পরিবেশ থেকে অনেক রোহিঙ্গা উখিয়ার কুতুপালং শরণার্থীশিবিরে যেতে আগ্রহী হচ্ছেন না।

জেলা প্রশাসক দিলীপ কুমার বণিকের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন পুলিশ সুপার সঞ্জিত কুমার রায়, সিভিল সার্জন অংসুইপ্রু মারমা, আঞ্চলিক পরিষদ সদস্য শফিকুর রহমান, সেনাবাহিনীর বান্দরবান ৬৯ পদাতিক ব্রিগেডের প্রতিনিধি মেজর মোহাম্মদ আহসান, জেলার কর্মকর্তা, উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তারা।

নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) এস এম সারোয়ার কামাল বলেছেন তুমব্রু কোনাপাড়া সীমান্তের শূন্যরেখায় থাকা রোহিঙ্গারা স্বেচ্ছায় উখিয়ায় সরে যেতে আগ্রহী হলে কোনো সমস্যা নেই। এ জন্য তাদের ব্যাপারে নির্দেশনা চাওয়া হয়েছে।

সভায় আরও জানানো হয় বান্দরবানের সীমান্তে আপাতত রোহিঙ্গা না এলেও রাখাইনে এখনো জুলুম-নির্যাতন অব্যাহত থাকায় আরও ব্যাপক হারে আসতে পারে। সেখানে তাদের ঘরবাড়ি জ্বালিয়ে দেওয়া হচ্ছে। রোহিঙ্গারা বনজঙ্গলে আশ্রয় নিয়ে আটকে পড়ে রয়েছেন। তারা মারাত্মক খাদ্যসংকটে পড়েছেন। এ জন্য জুলুম-নির্যাতন থেকে প্রাণে বাঁচতে এবং খাদ্যের জন্য আরও কয়েক লাখ রোহিঙ্গা আসতে পারে। প্রথম আলো
এমটিনিউজ/এসএস



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


চাকরি ছেড়ে ফ্ল্যাট বিক্রি করে সিঙ্গাড়া বিক্রি, ৪ বছরে কোটিপতি দম্পতি!

চাকরি-ছেড়ে-ফ্ল্যাট-বিক্রি-করে-সিঙ্গাড়া-বিক্রি-৪-বছরে-কোটিপতি-দম্পতি-

ভ্যানচালক ছেলেটি আজ বিসিএস ক্যাডার সরকারি চিকিৎসক

ভ্যানচালক-ছেলেটি-আজ-বিসিএস-ক্যাডার-সরকারি-চিকিৎসক

মাটির নিচে নয়, গাছের ডগায় হয় মিসরীয় পেঁয়াজ!

মাটির-নিচে-নয়-গাছের-ডগায়-হয়-মিসরীয়-পেঁয়াজ- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


আগামীকাল থেকে ৪৫ টাকায় পেঁয়াজ বিক্রি শুরু

ঘুম না আসলে যে দোয়া পড়তে বলেছেন বিশ্বনবি

জমি বন্ধকের টাকায় ক্রিকেটে এসে তৌহিদের বিশ্বরেকর্ড!

সাততলার জানলা দিয়ে উড়ে আসছে কোটি কোটি টাকা! নীচে টাকা কুড়াতে হুলস্থুল

পাঠকই লেখক


নিজের বিয়েতে কনে এলেন কফিনে শুয়ে!

নিজের-বিয়েতে-কনে-এলেন-কফিনে-শুয়ে-

শেষ পর্যন্ত দোকানে বিক্রি হচ্ছে গোবরের কেক!

শেষ-পর্যন্ত-দোকানে-বিক্রি-হচ্ছে-গোবরের-কেক-

গাছে ধরে মিসরের পেঁয়াজ!

গাছে-ধরে-মিসরের-পেঁয়াজ- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ