বরই চাষে ভাগ্য বদলালো এই যুবকের!

০৮:১৪:৫৬ রবিবার, ২২ সেপ্টেম্বর ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • ক্যাসিনো বিরোধী অভিযানে ধরা পড়া সবাই এক সময় যুবদল-বিএনপি অথবা জামায়াত-শিবির করত: এইচ টি ইমাম     • তারেক রহমান আয়ের উৎস দেখিয়েছেন ক্যাসিনো: ড. হাছান মাহমুদ     • বড় চমক দিয়ে আফগানদের বিপক্ষে ফাইনাল ম্যাচের স্কোয়াড ঘোষণা করল বাংলাদেশ     • ভারতীয় অধিনায়ক কোহলিকে টপকে যাওয়ার সুযোগ মাহমুদউল্লাহর     • এমনকি কাউকে ভিডিও করতে আর ছবি তুলতেও নিষেধ করে দেন তামিম ইকবাল     • অনুশীলনে ফিরলেন তামিম ইকবাল     • সংগীতশিল্পী এন্ড্রু কিশোরের শরীরে ক্যানসার ধরা পড়েছে, কেমোথেরাপি শুরু     • পাতি নেতাদের দাপটে দেশে থাকা যাচ্ছে না: মির্জা ফখরুল     • বাংলাদেশের বিপক্ষে খেলবেন না ধোনি!     • এবার মাদ'ক ব্যবসায়ী, পাচারকারীদের বাড়ি চিহ্নিতকরণ শুরু

শনিবার, ০২ ফেব্রুয়ারী, ২০১৯, ০৩:৫৬:২৯

বরই চাষে ভাগ্য বদলালো এই যুবকের!

বরই চাষে ভাগ্য বদলালো এই যুবকের!

চুয়াডাঙ্গা: চুয়াডাঙ্গার দামুড়হুদা উপজেলার লোকনাথপুর গ্রামের যুবক ফরহাদ হোসেন সোহাগ। লেখাপড়া শেষ করে অন্যান্য বেকার যুবকদের মতো চাকরির পেছনে না ছুটে কৃষি কাজে নেমে পড়েন। জমি লিজ নিয়ে ফলসহ বিভিন্ন ধরণের সবজির আবাদ শুরু করেন। কিন্ত ভাগ্য যেন কোনভাবেই সহায় হচ্ছিল না। বার বারই লোকসানের মুখে পড়েন। অবশ্য, দমে যাননি তিনি। শেষে চলতি মৌসুমে বৈরী আবহাওয়াকে মোকাবেলা করে নিজ গ্রামে সাড়ে ৬ বিঘা জমিতে কাশ্মীরি আপেল কুলের বাগান করে সফল হলেন এই যুবক। খবর ইউএনবি’র।

এখন মোটা অঙ্কের লাভের আশা করছেন। বিদেশি ফল দেশের মাটিতে ফলিয়ে বেশ খুশি তিনি।

ফরহাদ হোসেন সোহাগ বলেন, ‘৬ মাস আগে প্রতিবেশি দেশ ভারত থেকে চারা আনা হয়। এতে প্রতি পিচ চারায় ৮৫-৯০ টাকা খরচ পড়ে। সাড়ে ৬ বিঘা জমিতে মোট সাড়ে ৭০০ চারা লাগানো হয়। শুরু থেকে এ পর্যন্ত ১ লাখ ২৫ হাজার টাকা ব্যয় হয়েছে।

তিনি জানান, তার বাগানে লাগানো প্রতিটি গাছেই প্রচুর পরিমাণে ফল এসেছে। এ বছর প্রতি গাছ থেকে ৩০-৪০ কেজি করে বরই পাওয়া যাবে। সামনে বছরে বরইয়ের পরিমাণ দ্বিগুণ হতে পারে বলে ধারণা করছি।

সোহাগ আরও বলেন, এভাবে একটানা ৫-৭ বছর পর্যন্ত ফল বিক্রি করা যাবে। ঢাকাতে ১০০-১২০ টাকা কেজি দরে বিক্রি হচ্ছে। আমি এখনও বিক্রি শুরু করিনি। দিন দশেক পর থেকে শুরু করবো। সব মিলিয়ে এ বছর ৮ থেকে ৯ লাখ টাকার বরই বিক্রি করতে পারবো বলে আশাবাদি তিনি।

শিক্ষা জীবন শেষে চাকরি না করে কৃষি কাজে কেন এলেন এমন প্রশ্নের উত্তরে ফরহাদ বলেন, ‘ছোট বেলা থেকেই কৃষির প্রতি আলাদা ভালো লাগা ছিল। তাই লেখাপড়া শেষ করে অন্যান্য বেকার যুবকদের মতো চাকরি নামক সোনার হরিণের পেছনে না ছুটে কৃষি কাজে নেমে পড়ি। জমি লিজ নিয়ে বিভিন্ন ধরনের সবজির আবাদ শুরু করি। কিন্ত ভাগ্য যেন কোনভাবেই সহায় হচ্ছিলো না।

তিনি বলেন, বছর চারেক আগে লোকনাথপুর ফায়ার সার্ভিস অফিসের পাশেই সড়কের দু’ধারে প্রায় ৭ বিঘা জমিতে পেয়ারার বাগান গড়ে তুলি। পেয়ারা চাষেও আমি লাভের মুখ দেখতে পাইনি। এরপর ৩ বিঘা জমিতে লাউয়ের আবাদ করি। তাতেও মোটা অঙ্কের লোকসান হয়। এক কথায় যাই আবাদ করছি সেটাতেই লোকসান হচ্ছিল। কিন্তু আমি হাল ছাড়িনি। বর্তমানে কৃষি কর্মকর্তার পরামর্শে আপেল কুলের চারা লাগানোর পর ওই জমিতেই ফুলকপির আবাদ করেছিলাম। আড়াই লাখ টাকার মত লাভও হয়েছে। এখন দেশের দূর-দুরান্ত থেকে লোকজন ছুটে আসছে বরইর বাগান দেখতে। যা আমাকে আরও অনেক বেশি অনুপ্রাণিত করে তুলেছে।

ফরহাদ বেকার যুবকদের উদ্দেশ্যে বলেন, ১ বিঘা জমিতে ১৩০-১৪০টি চারা রোপণ করা যায়। ২০ হাজার টাকা বিনিয়োগ করে ১ বিঘা জমিতে বরইয়ের বাগান করে বছরে দুই থেকে আড়াই লাখ টাকা আয় করা সম্ভব। আর কুল চাষেই ঘুরে যেতে পারে বেকার যুবকদের ভাগ্যের চাকা।

দামুড়হুদা উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা শামিউর রহমান জানান, রৌদ্রজ্জ্বল, উচুঁ এবং সুনিষ্কাশিত জমিতে কুল বাগান ভালো হয়। যে বাগানে যত বেশি রোদের কিরণ লাগবে সেই জমির কুল বেশি মিষ্টি হবে। ৫-৬ হাত দূরত্বে গাছের চারা রোপন করতে হয়। তুলানামূলক রোগ-বালাইও কম। কৃষি বিভাগের পক্ষ থেকে প্রথম থেকেই তাকে প্রয়োজনীয় পরামর্শ দিয়ে আসা হচ্ছে। নতুনভাবে কেউ যদি কাশ্মীরি আপেল বরই বাগান করেন এবং আমাদের পরামর্শ চান তাহলে তাকে অবশ্যই সার্বিক সহযোগিতার পাশাপাশি প্রয়োজনীয় পরামর্শ দেয়া হবে বলেও জানান এ কর্মকর্তা।

দামুড়হুদা উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. আবু হেনা মোহাম্মদ জামাল শুভ জানান, কুল সুস্বাধু রসালো একটি ফল। এতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে। যা মানবদেহের জন্য খুবই উপকারী একটি উপাদান।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


অবাক ঘটনা মেহেরপুরে, বিয়ে করতে কনে গেলেন বরের বাড়ি!

অবাক-ঘটনা-মেহেরপুরে-বিয়ে-করতে-কনে-গেলেন-বরের-বাড়ি-

চিনে নিন এই ব্যক্তিকে, যিনি ১০০ স্ত্রীর স্বামী ও ৫০০ সন্তানের বাবা!

চিনে-নিন-এই-ব্যক্তিকে-যিনি-১০০-স্ত্রীর-স্বামী-ও-৫০০-সন্তানের-বাবা-

আপন মা নারাজ, পুত্রবধূকে বাঁচাতে নিজের কিডনি দিয়ে দৃষ্টান্ত স্থাপন করলেন শাশুড়ি

আপন-মা-নারাজ-পুত্রবধূকে-বাঁচাতে-নিজের-কিডনি-দিয়ে-দৃষ্টান্ত-স্থাপন-করলেন-শাশুড়ি এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


ম্যাচ জিতে এবার যাকে প্রশংসায় ভাসালেন সাকিব

ফাইনাল ম্যাচে ও থাকলে দলের জন্য ভালো হতো : মোসাদ্দেক

আমাদের মদিনার আদলে দেশ চালানোর সময় এসেছে: শহীদ আফ্রিদি

আফগান বাহিনীর বিপক্ষে বাংলাদেশের একাদশে পরিবর্তন

পাঠকই লেখক


শুনতে অবাক লাগলেও এটাই সত্যি যে, এই গ্রামের সবাই দৃষ্টিহীন! কারণ...

শুনতে-অবাক-লাগলেও-এটাই-সত্যি-যে-এই-গ্রামের-সবাই-দৃষ্টিহীন--কারণ

ছাগল চুরির ৪১ বছর পর ধরা পড়লো চোর!

ছাগল-চুরির-৪১-বছর-পর-ধরা-পড়লো-চোর-

মহাকাশে সিমেন্ট গুলছে নাসার বিজ্ঞানিরা, চাঁদে বানানো হবে বাড়ি

মহাকাশে-সিমেন্ট-গুলছে-নাসার-বিজ্ঞানিরা-চাঁদে-বানানো-হবে-বাড়ি পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ