মাত্র দুইটি কারণে শিয়া-সুন্নির মধ্যে এতো যুদ্ধ

০২:২৩:১৯ বৃহস্পতিবার, ১৮ জুলাই ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • যে কারণে ক্যাটরিনার ওপর ক্ষুব্ধ সালমান খান     • একটি মেয়ের কারণে আজ দুই বন্ধু অকালে প্রাণ হারিয়ে এখন কবরবাসী: নয়ন বন্ডের মা     • সালাউদ্দিনকে বাংলাদেশ দলের প্রধান কোচ করার দাবি!     • ১৮ বছর বয়সেই আইপিএলে কেকেআরের মালিক এই কন্যা!     • পবিত্র হজ পালন করতে গিয়ে আরো তিন বাংলাদেশী হজযাত্রী মারা গেছেন     • হত্যাকারীর কল লিস্টে মিন্নির ফোন নম্বর!     • নৃত্য করা থেকে কাপড় কাচানো সবকিছু সৈনিকদের দিয়ে করাচ্ছে সেনা অফিসারদের স্ত্রীরা!     • অবশেষে ৫৩ লাখ টাকা চুরি করা চোরকে খুঁজে পেলেন অনন্ত জলিল     • মিন্নির পক্ষে লড়ার জন্য কোনো আইনজীবী্ রাজি হচ্ছেন না     • আদিল রশিদ বলেছিল আমাদের সঙ্গে আল্লাহ ছিলো: মরগান

মঙ্গলবার, ১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫, ০৭:০৩:৪১

মাত্র দুইটি কারণে শিয়া-সুন্নির মধ্যে এতো যুদ্ধ

মাত্র দুইটি কারণে শিয়া-সুন্নির মধ্যে এতো যুদ্ধ

ইসলাম ডেস্ক: পবিত্র কুরআন ও হাদিসের বর্ণনাগুলোর ব্যখ্যা নিয়ে মতভেদের কারণেই মুসলমানদের মধ্যে নানা মাজহাব বা মতবাদ সৃষ্টি হয়েছে। এটি সব ধর্মের মধ্যেই দেখা যায়। এ জাতীয় মতভেদ কেবল তর্ক বা মত-বিনিময়ের পর্যায়ে সীমিত থাকলেই তা স্বাভাবিক বলে বিবেচিত হয়। কিন্তু এ নিয়ে সহিংসতা ও দাঙ্গা-হাঙ্গামা সব পক্ষের জন্যই ক্ষতিকর বলে এ ব্যাপারে মুসলমানদের সতর্ক থাকা উচিত। কারণ, পবিত্র কুরআনে বলা হয়েছে, তোমরা সবাই মিলে আল্লাহর রশিকে আঁকড়ে ধর এবং পরস্পর বিচ্ছিন্ন হয়ো না।

আসলে শিয়া ও সুন্নি মুসলমানদের মধ্যে কিছু কিছু বিষয়ে মতভেদ থাকলেও অনেক মৌলিক বিষয়েই রয়েছে মতের মিল। যেমন, উভয় মাজহাবই এক আল্লাহ, অভিন্ন ধর্মগ্রন্থ তথা পবিত্র কুরআন এবং বিশ্বনবী হযরত মুহাম্মাদ (সা.)-কে সর্বশেষ নবী হিসেবে মানেন। উভয় মাজহাবই পরকালের প্রতি তথা পুনরুত্থান ও বিচার দিবসের প্রতি বিশ্বাস, নামাজ, রোজা, হজ, যাকাত ও নারীদের পর্দা করা ফরজ হওয়ার বিষয়সহ আরো অনেক বিষয়েই একমত।

তবে শিয়া ও সুন্নি মাজহাবের মধ্যে মতবিরোধের একটা দিক হলো-
১। বিশ্বনবী (সা.)'র পর তাঁর স্থলাভিষিক্ত তথা খলিফা বা প্রতিনিধি নিয়োগ নিয়ে। সুন্নি ভাইয়েরা মনে করেন এ বিষয়টি আল্লাহর সর্বশেষ রাসূল মুসলমানদের ওপরই ছেড়ে দিয়েছেন এবং সাহাবাগণ নির্বাচন পদ্ধতিতে খলিফা নির্বাচন করেছেন।
অন্যদিকে, শিয়া মুসলমানরা মনে করেন, বিশ্বনবী (সা.)'র স্থলাভিষিক্ত তথা খলিফা বা প্রতিনিধি নিয়োগের বিষয়টি মহান আল্লাহই নির্ধারণ করেন ও তা রাসূল (সা.)-কে জানিয়ে দেন। আর এরই ভিত্তিতে হযরত আলী (আ.) এবং এরপর তাঁর বংশধরগণ ছিলেন মুসলমানদের প্রকৃত খলিফা।

২। শিয়া ও সুন্নি মুসলমানদের মধ্যে কোনো কোনো বিষয়ে মতভেদ থাকলেও তারা যুগ যুগ ধরে পরস্পরের সঙ্গে শান্তিতে বসবাস করে এসেছে। তাদের মধ্যে বড়জোর জ্ঞানগত তর্ক-বিতর্ক বা যুক্তি বিনিময় হতো। আসলে ইসলামের শত্রুরাই মুসলমানদের মধ্যে অনৈক্য সৃষ্টির জন্য শিয়া ও সুন্নিদের মধ্যে সহিংস দাঙ্গা বাধানোর জন্য সুন্নি নামধারী একদল ওয়াহাবিকে উস্কে দিয়েছে সাম্প্রতিক বছরগুলোতে। এই ওয়াহাবিদের দৃষ্টিতে সুন্নিদের চার মাজহাবের তিন মাজহাবের ইমামগণ এবং তাদের অনুসারীরাও কাফির ও হত্যার যোগ্য! আপনারা হয়তো জানেন যে ভারত বর্ষে মোঘল শাসকদের অনেকেই ছিলেন শিয়া মুসলমান। নবাব সিরাজউদদৌলাও ছিলেন শিয়া মুসলমান। দানবীর ও ভারত বর্ষে মুসলমানদের মধ্যে শিক্ষা বিস্তারের জন্য সবচেয়ে বেশি সম্পদ ওয়াকফকারী মহান ব্যক্তিত্ব হাজি মুহাম্মাদ মুহসিন ছিলেন একজন শিয়া মুসলমান। ভারতবর্ষ ও মধ্যপ্রাচ্যসহ বিশ্বের নানা অঞ্চলে শিয়া ও সুন্নি মুসলমানরা ঐক্যবদ্ধভাবে সাম্রাজ্যবাদী ব্রিটেনসহ উপনিবেশবাদী কাফির শক্তিগুলোর বিরুদ্ধে লড়াই করেছে।

বর্তমান যুগে ইহুদিবাদী ইসরাইলের অপরাধযজ্ঞ থেকে মুসলমানদের দৃষ্টি আড়াল করতে এবং মুসলমানদের মধ্যে অনৈক্য ও বিভেদ উস্কে দিয়ে তাদেরকে সহজেই শোষণ করার জন্য দেশে দেশে শিয়া-সুন্নি বিভেদ উস্কে দেয়ার চেষ্টা করছে সাম্রাজ্যবাদীরা।

সাম্প্রতিক সময়ে ইরাক ও সিরিয়ায় এ ধরনের তৎপরতা জোরদার করা হয়েছে আলকায়দা বা আইএসআইএল-এর ওয়াহাবি সন্ত্রাসীদের মাধ্যমে। কিন্তু এই দুই দেশের শিয়া ও সুন্নি আলেমগণ ঐক্যবদ্ধভাবে ওয়াহাবি ও বিজাতীয় শক্তিকে মোকাবেলার আহ্বান জানানোর পর সন্ত্রাসীরা শিয়া ও সুন্নি মুসলমানদের সম্মিলিত শক্তির কাছে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে।

ইরানের ইসলামী বিপ্লবের মহান রূপকার ইমাম খোমেনী (র.)ও বলেছেন, যারা মুসলমানদের মধ্যে শিয়া-সুন্নির নামে অনৈক্য সৃষ্টি করে তারা শিয়াও নয়, সুন্নিও নয়, বরং সাম্রাজ্যবাদীদের দালাল।

এছাড়া আমিরুল মু'মিনিন আলী (আ.)'র ভাষণ ও বক্তৃতামালার সংস্করণ 'নাহজুল বালাগ্বা' শিয়াদের জন্য শীর্ষস্থানীয় প্রামাণ্য বই। আল্লাহ ও বিশ্বনবী (সা.)'র বাণীর পরই এ বইকে সবচেয়ে বেশি গুরুত্ব দেন তারা। আবার সুন্নি মুসলমানের কাছেও এটি একটি নির্ভরযোগ্য প্রামাণ্য বই। এ বইয়ে স্বয়ং আলী (আ.) থেকে বার বার বলা হয়েছে যে রাসূল (সা.) ছিলেন সর্বশেষ নবী। দৃষ্টান্ত হিসেবে এ বইয়ে উল্লেখিত আলী (আ.)'র ৭১ ও ২৩৩ নম্বর খোতবা দেখুন (সাইটে এ দুই খোতবার ফটোকপি সংযুক্ত করা হল)।  তাই শিয়ারা রাসূল (সা.)-কে নবী ও রাসূল বলে মানেন না- এমন দাবি সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন এবং ইসলামের শত্রুদের পক্ষ থেকে প্রচারিত একটি অপবাদ।

শিয়া মুসলমানরা যে কোনো সমাবেশে কিংবা একা থাকলেও বিশ্বনবী (সা.)'র পবিত্র নাম শোনার সঙ্গে সঙ্গে দরুদ পাঠ করে সম্মান প্রদর্শন করেন। তাছাড়া শিয়া মুসলমানরা বিশ্বনবী (সা.)'র নবুওত প্রাপ্তির দিবসকে উৎসব হিসেবে পালন করে থাকেন।

পরিশেষে বলা যায়, শিয়া-সুন্নীদের মধ্যে প্রায় সবগুলো ধর্মীয় বিষয়গুলোর মিল খুজে পাওয়া যায়। তবে তাদের মধ্যে যে অমিলগুলো দেখতে পাওয়া যায়, সেগুলোকে অনেকেই মনে করেন পশ্চিমাদের কুচক্রের বেড়া জালে পড়ে তারা পরস্পপর না বুঝে যুদ্ধে লিপ্ত হয়।
সূত্র: রেডিও তেহরান
১৫ সেপ্টেম্বর, ২০১৫/এমটিনিউজ২৪/রাসেল/এমআর



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


সূর্যগ্রহণ ও চন্দ্রগ্রহণের সময় মহানবী (সা.) যা করতেন

সূর্যগ্রহণ-ও-চন্দ্রগ্রহণের-সময়-মহানবী-সা-যা-করতেন

দীর্ঘ ৫০ বছর ধরে ‘আল্লাহ’ লেখা কাগজ সংরক্ষণই করছেন এই বৃদ্ধ

দীর্ঘ-৫০-বছর-ধরে-‘আল্লাহ’-লেখা-কাগজ-সংরক্ষণই-করছেন-এই-বৃদ্ধ

মুসলমানরাই সবচেয়ে বেশি সুখী মানুষ: মনোবিজ্ঞানীদের গবেষণা

মুসলমানরাই-সবচেয়ে-বেশি-সুখী-মানুষ-মনোবিজ্ঞানীদের-গবেষণা ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


ফেসবুকে ঝড় তুলছে হবিগঞ্জের শিক্ষিত গরু!

ফেসবুকে-ঝড়-তুলছে-হবিগঞ্জের-শিক্ষিত-গরু-

একনাগাড়ে হাঁচি, ব্যবহার করুন ঘরোয়া এই টোটকা

একনাগাড়ে-হাঁচি-ব্যবহার-করুন-ঘরোয়া-এই-টোটকা

মাত্র ২০ বছর বয়সেই এই ছেলের আয় বছরে ২০ কোটি! জানেন কীভাবে?

মাত্র-২০-বছর-বয়সেই-এই-ছেলের-আয়-বছরে-২০-কোটি--জানেন-কীভাবে- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


যে ৬ কারণে রংপুরের পল্লীনিবাসেই এরশাদকে দাফনের সিদ্ধান্ত

শেষ বলের আগে আমি মুশফিককে মনে করেছিলাম: স্টোকস

আইসিসির ওয়ানডে র‍্যাঙ্কিং প্রকাশ, জেনে নিন দলগুলোর অবস্থান

শ্রীলঙ্কা সফরে মাশরাফির নেতৃত্বে ১৫ সদস্যের দল ঘোষণা বিসিবির

পাঠকই লেখক


স্ত্রীর তালাকের নোটিশ পেয়ে খুশিতে দুধ দিয়ে গোসল করলেন এক স্বামী!

স্ত্রীর-তালাকের-নোটিশ-পেয়ে-খুশিতে-দুধ-দিয়ে-গোসল-করলেন-এক-স্বামী-

কলাগাছের ভেলায় চড়ে বিয়ে করতে কনের বাড়িতে এলেন বর

কলাগাছের-ভেলায়-চড়ে-বিয়ে-করতে-কনের-বাড়িতে-এলেন-বর

এক প্যাকেট আঙুর, দাম ১১ লাখ টাকা!

এক-প্যাকেট-আঙুর-দাম-১১-লাখ-টাকা- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ