চোখের জলে ক্ষমা চেয়ে গোনাহ মোছার রাত

০৬:৫২:৪৭ রবিবার, ০৭ জুন ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • র‍্যাবের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট সরোয়ার আলম স্ত্রীসহ করোনা আক্রা'ন্ত     • পারিশ্রমিক ৬০ থেকে ১৫ লাখ হওয়া প্রসঙ্গে যা বললেন শাকিব খান     • করোনা মোকাবেলায় ইরানের যুগান্তকারী উদ্ভাবন     • করোনা থেকে মাস্কই বাঁচতে পারে, মাস্ক ব্যবহারে নিয়ম জানালেন ডা. নাসিমা      • দিল্লির শ্মশানে ২৪ ঘণ্টাই জ্বলছে চিতা-চুল্লি, তবুও মৃ'তদেহের স্তূপ!     • করোনায় আক্রা'ন্ত হওয়ায় ভর্তি নিল না হাসপাতাল, মৃ'ত্যু বলিউডের প্রখ্যাত প্রযোজকের     • সবমিলে নাসিমের অবস্থা সংকটাপন্ন: ডা. কাজী দ্বীন মোহাম্মদ     • অবশেষে নিষিদ্ধ হচ্ছে পুলিশের যখন তখন হস্তক্ষেপ, হাঁটু দিয়ে গলা চে'পে ধ'রা     • মার্কিন প্রেসিডেন্ট নির্বাচনে ডেমোক্রেট দলের মনোনয়ন পেলেন জো বাইডেন     • নিন্দার মুখে তুরস্কের এরদোগান সরকার

রবিবার, ২১ এপ্রিল, ২০১৯, ১১:০৭:৩১

চোখের জলে ক্ষমা চেয়ে গোনাহ মোছার রাত

চোখের জলে ক্ষমা চেয়ে গোনাহ মোছার রাত

আহমদ আবদুল্লাহ: শাবান মাসের বরকত অনেক। এর অন্যতম কারণ হল, এ মাসের ১৪তম তারিখ দিবাগত রাতেই হয়ে থাকে বিশ্বসৃষ্টির মুক্তি ও ভাগ্য নির্ধারণের বরকতপূর্ণ রজনি ‘শবেবরাত’ বা লাইলাতুল বরাত। এ রাতের মর্যাদা সম্পর্কে এবং ইবাদতের ব্যাপারে নির্দেশ দিয়ে রাসূল (সা.) বলেন, যখন শাবান মাসের অর্ধেকের রজনি আসে (শবেবরাত) তখন তোমরা রাতে নামাজ পড়ো, আর দিনের বেলা রোজা রাখো। নিশ্চয় আল্লাহ এ রাতে সূর্য ডোবার সঙ্গে সঙ্গে পৃথিবীর আসমানে এসে বলেন, কোনো গোনাহ ক্ষমাপ্রার্থী আছে কি আমার কাছে? আমি তাকে ক্ষমা করে দেব। কোনো রিজিকপ্রার্থী আছে কি? আমি তাকে রিজিক দেব। কোনো বিপদগ্রস্ত মুক্তি পেতে চায় কি? আমি তাকে বিপদমুক্ত করে দেব। আছে কি এমন, আছে কি তেমন? এমন বলতে থাকেন ফজর পর্যন্ত (ইবনে মাজাহ : ১৩৮৮)।

এ রাতে ইবাদত-বন্দেগি করা নির্ভরযোগ্য হাদিসে প্রমাণিত। তাই রাসূল (সা.) ও সাহাবা-তাবেয়ীনের যুগ থেকে আজও এ রাতে বিশেষ নফল ইবাদত বন্দেগির ধারাবাহিকতা চলে আসছে। হজরত আয়শা (রা.) বলেন, এক রাতে রাসূলকে (সা.) না পেয়ে খুঁজতে বের হলাম। খুঁজতে খুঁজতে জান্নাতুল বাকীতে গিয়ে আমি তাঁকে দেখতে পেলাম। তিনি বললেন, কী ব্যাপার আয়শা? তুমি যে তালাশে বের হলে? তোমার কি মনে হয় আল্লাহ এবং তাঁর রাসূল তোমার ওপর কোনো অবিচার করবেন? তোমার পাওনা রাতে অন্য কোনো বিবির ঘরে গিয়ে রাত্রিযাপন করবেন? হজরত আয়শা (রা.) বললেন, আমার ধারণা হয়েছিল আপনি অন্য কোনো বিবির ঘরে গিয়েছেন। রাসূল (সা.) তখন বললেন, যখন শাবান মাসের ১৫ রাত আসে অর্থাৎ যখন শবেবরাত হয়, তখন আল্লাহ পাক এ রাতে প্রথম আসমানে নেমে আসেন। তারপর বনু কালব গোত্রের বকরির পশমের চেয়ে বেশিসংখ্যক বান্দাকে ক্ষমা করে দেন (সুনানে তিরমিজি : ৭৩৯)।

এ মাস এলে প্রিয়নবী (সা.) এর আমলের ধারা স্বাভাবিক অবস্থা থেকে বাড়িয়ে দিতেন। উম্মুল মু’মিনিন হজরত আয়েশা (রা.) বলেন, একবার রাসূল (সা.) রাতে নামাজে দাঁড়ালেন এবং এত দীর্ঘ সেজদা করলেন যে, আমার আশঙ্কা হল, তাঁর হয়তো ইন্তেকাল হয়ে গেছে। আমি তখন উঠে তাঁর বৃদ্ধাঙ্গুলি নাড়া দিলাম। তাঁর বৃদ্ধাঙ্গুলি নড়ল। যখন তিনি সেজদা থেকে উঠলেন এবং নামাজ শেষ করলেন তখন আমাকে লক্ষ করে বললেন, হে আয়েশা! (অথবা বলেছেন, ও হুমায়রা!) তোমার কি এই আশঙ্কা হয়েছে যে, আল্লাহর রাসূল তোমার হক নষ্ট করবেন? আমি উত্তরে বললাম, না, ইয়া রাসূলুল্লাহ। আপনার দীর্ঘ সেজদা থেকে আমার আশঙ্কা হয়েছিল, আপনি মৃত্যুবরণ করেছেন কিনা।

নবীজী জিজ্ঞাসা করলেন, তুমি কি জানো এটা কোন রাত? আমি বললাম, আল্লাহ ও তাঁর রাসূলই ভালো জানেন। তিনি তখন বললেন, এটা হল অর্ধ শাবানের রাত (শাবানের চৌদ্দ তারিখের দিবাগত রাত)। আল্লাহ তায়ালা অর্ধ শাবানের রাতে তাঁর বান্দাদের প্রতি রহমতের দৃষ্টি দান করেন, ক্ষমা প্রার্থনাকারীদের ক্ষমা করেন এবং অনুগ্রহপ্রার্থীদের প্রতি অনুগ্রহ করেন। আর বিদ্বেষ পোষণকারীদের ছেড়ে দেন তাদের অবস্থাতেই (বায়হাকি ৩/৩৮২,৩৮৩)। এই হাদিস থেকে এ রাতের মর্যাদা যেমন জানা যায় তেমনি এ রাতের আমল কেমন হওয়া উচিত তাও বোঝা যায়। অর্থাৎ দীর্ঘ নামাজ পড়া, সেজদা দীর্ঘ হওয়া, দোয়া ইস্তেগফার করা এ রাতে জরুরি।

হাদিসে এ রাতকে বলা হয়েছে, ‘লাইলাতুন নিসফি মিন শাবান’ বা শাবানের অর্ধ মাসের রাত। আবার কোথাও বলা হয়েছে ‘লাইলাতুল বরাত’ বা মুক্তির রজনি। হজরত জালালুদ্দিন মহল্লি (রাহ.) এ রাতের আরও দুটি নামের কথা উল্লেখ করেছেন এভাবে, ক. ‘লাইলাতুল রাহমাত’ বা করুণার রাত। খ. ‘লাইলাতুস সাফ’ বা চুক্তিনামার রাত (জালালাইল : ২/৪১০)। কারণ, এ রজনিতে সমগ্র সৃষ্টির প্রতি পরম দয়াময়ের পক্ষ থেকে তার অপার করুণার বান বয়ে যায় এবং মানুষের জীবন-মরণ ইত্যাদি নানা বিষয়ে অজস্র চুক্তিনামা বা দলিলাদি স্বাক্ষরিত হয়। এ রাতকে শাফায়াতের রাতও বলা হয়। লাইলাতুল বরাত মর্যাদাপূর্ণ রাত। এ রাতে আল্লাহ তায়ালার পক্ষ থেকে অনেক বরকত নাজিল হয়। অসংখ্য নেকি দান করা হয়। অনুগ্রহ ও দয়ার ভাণ্ডার খুলে দেয়া হয়। গুনাহগুলো ক্ষমা করে দেয়া হয়। বিশেষ করে এ রাত গুনাহের কাফফারা হিসেবে গণ্য হয়।

মানবজাতিকে সৃষ্টি করে কিভাবে চলতে হবে এবং কী কী আমল করতে হবে এবং কোন কোন কাজ দূর করতে হবে তা পরিষ্কারভাবে বলে দিয়েছেন আল্লাহ তায়ালা। তবুও মানুষ শয়তানের ধোকায় পড়ে অনেক পাপ করে থাকে। আল্লাহ বড়ই দয়ালু। তিনি চান অপরাধ করার পর বান্দাদের একটি সুযোগ দিতে, যাতে তারা তাদের কৃতকর্মের জন্য অনুতপ্ত হয়ে তার কাছে তাওবা করে। তাই তারা যদি এই রাতে আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা করে, তবে তিনি ক্ষমা করে দেবেন। আর এ জন্য রাতটি ক্ষমা প্রার্থনার রাত। সুতরাং পাপী পারে এ রাতে ক্ষমা চেয়ে নিতে রাব্বুল আলামিনের কাছ থেকে।

শবেবরাত ও শবেকদরের বরকতে সগিরা গুনাহ মাফ হয় বটে; তবে যে কোনো গুনাহ থেকে ক্ষমা পেতে হলে খাঁটি মনে তাওবা করতে হবে। এ বরকতময় রাতে যেন আমরা আল্লাহর ইবাদতে মশগুল থাকতে পারি, কোরআন তেলাওয়াত করতে পারি, দেশ-জাতি ও আত্মীয়-স্বজনদের জন্য দোয়া করতে পারি, আল্লাহ আমাদের সেই তাওফিক দান করুন। আমিন!

আহমদ আবদুল্লাহ : শিক্ষক, রসুলপুর জামিয়া ইসলামিয়া, ঢাকা

[email protected]



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


নামাজ শরীরে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ায় যেভাবে

নামাজ-শরীরে-রোগ-প্রতিরোধ-ক্ষমতা-বাড়ায়-যেভাবে

ঘূর্ণিঝড়, জলোচ্ছ্বাস ও ঝড় থেকে মুক্ত থাকার দোয়া

ঘূর্ণিঝড়-জলোচ্ছ্বাস-ও-ঝড়-থেকে-মুক্ত-থাকার-দোয়া

রোজাদারের জন্য পবিত্র রমজানে জান্নাতে নির্মান করা হয় উজ্জল প্রাসাদ

রোজাদারের-জন্য-পবিত্র-রমজানে-জান্নাতে-নির্মান-করা-হয়-উজ্জল-প্রাসাদ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


ডায়াবেটিস, জন্ডিস সহ ১০ জটিল রোগের জন্য উপকারী তেলাকুচা!

ডায়াবেটিস-জন্ডিস-সহ-১০-জটিল-রোগের-জন্য-উপকারী-তেলাকুচা-

কাঠ দিয়ে হাত ধোয়ার মেশিন বানিয়ে রাষ্ট্রপতি পদকে ভূষিত ৯ বছরের শিশু

কাঠ-দিয়ে-হাত-ধোয়ার-মেশিন-বানিয়ে-রাষ্ট্রপতি-পদকে-ভূষিত-৯-বছরের-শিশু

এক ডিভোর্সেই বিশ্বের সবচেয়ে ধনীর তালিকায় এই যুবতী

এক-ডিভোর্সেই-বিশ্বের-সবচেয়ে-ধনীর-তালিকায়-এই-যুবতী এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


রাজধানীতে নতুন নিয়মে আসছে লকডাউন

লাদাখে নতুন যে সিদ্ধান্ত নিয়ে উত্তে'জনা আরও বাড়িযে তুলছে চীনা সেনাবাহিনী

নিজের সবচেয়ে দামি জায়গায় মসজিদ, মাদরাসা বানিয়ে দিয়েছেন রফিক

এই প্রথম বাংলাদেশের যে এলাকাকে ‘রেড জোন’ ঘোষণা

বিচিত্র জগৎ


এই সেই আম, এক কেজি কিনতে গিয়ে অনেক ধনী ব্যক্তিও ঢোঁক গিলেন কারণ এটাই বিশ্বের সবচেয়ে দামি

এই-সেই-আম-এক-কেজি-কিনতে-গিয়ে-অনেক-ধনী-ব্যক্তিও-ঢোঁক-গিলেন-কারণ-এটাই-বিশ্বের-সবচেয়ে-দামি

করোনায় মালিকের মৃত্যুর পরেও ৩ মাস হাসপাতালে তার ফেরার অপেক্ষা করতে থাকে প্রভু ভক্ত কুকুর

করোনায়-মালিকের-মৃত্যুর-পরেও-৩-মাস-হাসপাতালে-তার-ফেরার-অপেক্ষা-করতে-থাকে-প্রভু-ভক্ত-কুকুর

সাতদিনে ১২০০ কিমি রাস্তা সাইকেল চালিয়ে অসুস্থ বাবাকে নিয়ে বাড়ি ফিরলেন অষ্টম শ্রেণির ছাত্রী!

সাতদিনে-১২০০-কিমি-রাস্তা-সাইকেল-চালিয়ে-অসুস্থ-বাবাকে-নিয়ে-বাড়ি-ফিরলেন-অষ্টম-শ্রেণির-ছাত্রী- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ