মসজিদে শিশুদের আসতে বাধা না দিয়ে উৎসাহ দিন

০৭:৪১:০৩ মঙ্গলবার, ২৮ জানুয়ারী ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • করোনাভাইরাস নিয়ে বি চৌধুরীর পরামর্শ     • করোনা ভাইরাস আত'ঙ্কের মধ্যে এবার নাইজেরিয়ায় মহামা'রি আকার নিয়েছে লাসা জ্বর, নিহ'ত ২৯     • আতিকুল ইসলামের প্রচারণা অফিসে হঠাৎ রাদওয়ান মুজিব সিদ্দিক     • মেহেদির রং না মুছতেই রহ'স্যজনক মৃত্যু নববধূর     • সিরিজ জিতেও কোনো লাভ হলো না পাকিস্তানের     • 'বাংলাদেশ টেস্ট খেলে টি-২০ এর মতো, আর টি-২০ খেলে টেস্টের মতো'     • রাস্তা ফেলে যাওয়া নবজাতককে নিজের বাসায় নিলেন ইউএনও     • আমার বউ যে চলে গেল, এইডার কোনো খবর নাই : রাষ্ট্রপতি     • আমাদের প্রতিভা আছে কিন্তু প্রয়োগ হচ্ছে না : মাহমুদউল্লাহ     • কাশ্মীর নিয়ে পাকিস্তানের সঙ্গে আলোচনা বসবে ভারত : প্রতিরক্ষা মন্ত্রী রাজনাথ

সোমবার, ০৯ ডিসেম্বর, ২০১৯, ১২:৩৯:১০

মসজিদে শিশুদের আসতে বাধা না দিয়ে উৎসাহ দিন

মসজিদে শিশুদের আসতে বাধা না দিয়ে উৎসাহ দিন

ইসলাম ডেস্ক: নবী করিম সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের নাতিরা নামাজের সিজদার সময় নবী করিম (সা.)-এর ঘাড়ে উঠে বসতেন। নবী করিম (সা.) তখন সাবধানে তাদের নামিয়ে নামাজ শেষ করতেন। এ কারণে অনেক সময় সিজদায় সময় বেশি ব্যয় হতো, তবুও রাগ দেখাতেন না, দু'র্ব্যবহার করতেন না।

সম্প্রতি প্রত্যন্ত এলাকার এক মসজিদের ইমাম সাহেব মেসেজ করেছেন, ‘আপনাকে সালাম, আমি নোয়াখালী জেলার একটা গ্রামের মসজিদের ইমাম। বহুদিন আগে আপনার ফেসবুক আইডিতে একটা পোস্ট পড়েছিলাম বাচ্চাদের মসজিদে নিয়ে আসা বিষয়ে। আপনার সেই পোস্ট পড়ার পর আমিও চিন্তা করেছিলাম বাচ্চাদের মসজিদে নিয়ে আসার জন্য কিছু একটা করার।

তারপর আমি মসজিদে জুমার নামাজে ঘোষণা করলাম, ১২ বছরের নিচে যত বাচ্চা মসজিদে আসবে প্রত্যেক ওয়াক্তে ২টি করে চকলেট আমার পক্ষ থেকে পাবে। আর আমি চকলেট দেওয়ার সময় লিখে রাখব, যে যত বেশি চকলেট পাবে সপ্তাহের শেষ দিন এশার নামাজের পর তাকে পুরস্কৃত করা হবে।

আমি যখন এই ঘোষণা দিয়েছিলাম, তখন আমি ভেবেছি, এতে আ'হামরি একটা সাড়া পাবো না। কিন্তু আল্লাহতায়ালার ইচ্ছা অপরিসীম, এক সপ্তাহ দুই সপ্তাহ যেতে না যেতেই গড়ে ১০ থেকে ২০ জন বাচ্চা প্রতিনিয়ত মসজিদে আসা শুরু করল। প্রথম সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি ৫৮টি চকলেট পেয়েছিল ৮ বছরের সালেহ নামে একটা ছেলে, তাকে পুরস্কৃত করেছিলাম শুধুমাত্র একটা জ্যামিতি বক্স দিয়ে।

আমি বাচ্চাদের বলে দিয়েছিলাম, তোমরা শুধু মসজিদে নামাজ পড়তে আসবে না, তোমরা মসজিদে আসবে, খেলবে, দৌড়াদৌড়ি করবে, হাসাহাসি করবে। আর এতে কিছু মুরুব্বি মুসল্লির গা জ্বা'লা শুরু হয়ে গেল। তারা যেমন বাচ্চাগুলোর ওপর ক্ষি'প্ত হলো, তেমনি ক্ষি'প্ত হলো আমার ওপরও।

আমি সোজাসুজি বলে দিলাম, দরকার হলে আমি শুধু ধৈ'র্যশীল নামাজি ও বাচ্চাদের ইমামতি করব। বাকিরা অন্য মসজিদ দেখতে পারেন। কারণ আমি এই এলাকার সন্তান, আমি জানি পরবর্তী প্রজন্ম নামাজি না হলে কী ভ'য়ঙ্ক'র হবে এলাকার পরিস্থিতি। আমার বড় শক্তি ছিল আমার কমিটির অধিকাংশ লোকজন আমার এই আয়োজনে সঙ্গী ছিলেন।

কিন্তু এত চকলেট দেওয়ার সাধ্য আমার ছিলো না। প্রতিদিন প্রায় ৬০ থেকে ৭০ পিস চকলেট এভারেজ লাগতো। আমার মসজিদের কমিটিতে কিছু যুবক ছিল, আমি তাদের সঙ্গে আলোচনা করলাম। দু’জন ভাই আমার সঙ্গে একাত্মতা পোষণ করল এবং তারা চকলেটের সম্পূর্ণ খরচ বহন করবে বলে আমাকে আশ্বস্ত করল। পরের সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি চকলেট পেয়েছিল ৬ বছরের একটা মেয়ে। অবাক করার মতো বিষয়! তার বাবা সব সময় তাকে নিয়ে আসতেন মসজিদে। তাকে পুরস্কৃত করা হয় ভালোমানের একটা অ্যালার্ম ঘড়ি দিয়ে।

আমার মসজিদে এখন গড়ে প্রতিদিন ২০ থেকে ৩০ জন বাচ্চা উপস্থিত হয় এবং অনেক কাতারের পাশের অধিকাংশ মুসল্লি বাচ্চা থাকে, প্রথমদিকে যেরকম হাসাহাসি, দৌড়াদৌড়ি হতো এখন আর ওরকম হয় না। তারা এখন চুপচাপ দাঁড়িয়ে নামাজ আদায় করে। এখন শুধু চকলেট দেওয়া হয় না। আমার কমিটির লোকজন অনেক ভালো কিছু দেওয়ার চেষ্টা করে। মাঝে মাঝে বিস্কুট দেওয়া হচ্ছে, মাঝে মাঝে কলম দেওয়া হচ্ছে, বিভিন্ন জিনিস বিভিন্ন জায়গা থেকে বিভিন্ন লোকজন দিচ্ছেন।

সবশেষে সৌদি প্রবাসী এক ভাই ফোন করে জানিয়েছেন, পরের সপ্তাহে সবচেয়ে বেশি যে চকলেট পাবে তাকে একটা বাইসাইকেল দেওয়া হবে।

আমার মসজিদে এখন বাচ্চাদের অভাব নেই। যদি পেছনে বাচ্চারা হাসাহাসি করে তাহলে এখন আর কোনো মুরুব্বি বাচ্চাদের সঙ্গে দুর্ব্য'বহার করে না। তাদের মসজিদ থেকে তাড়িয়ে দেওয়া হয় না। মসজিদের অধিকাংশ মুসল্লি বাচ্চাদের প্রচণ্ড ভালোবাসে, আসলে তাদের সঙ্গে সুন্দর আচরণ করে। আপনিও শুরু করতে পারেন আপনার এলাকার মসজিদে এমন আয়োজন, আর আপনি পেতে পারেন কেয়ামত পর্যন্ত সদকায়ে জারিয়ার সওয়াব।
চকলেট বা উপহার দেওয়া একমাত্র পদ্ধতি নয়। আদর ও প্রশ্রয় নীরবেও হতে পারে। উত্তম আচরণও হতে পারে। ‘

মোটকথা, শিশুদের মসজিদে স্বাগত জানানো বয়স্ক মুসলমানদের ঈমানি দায়িত্ব। অনেক মসজিদে প্রচুর জায়গা আছে। সেখানে বাগান, শিশুদের জন্য কিছু দোলনা, খেলার সামগ্রী ইত্যাদির ব্যবস্থা রাখা যেতে পারে।

তুরস্কের বহু মসজিদে এমন লেখা আছে, যদি আপনার মসজিদে নামাজের সময় শিশুদের কলরব না শোনা যায়, তাহলে আপনার দেশের ধর্মীয় ভবিষ্যৎ অন্ধকার।

আপনি যখন আগামী দিন কবরে চিরনিদ্রায় শায়িত হবেন, তখন আজকের শিশুরাই মসজিদে আপনার কাতারগুলোজুড়ে অবস্থান করবে। যারা আজ দুষ্টুমি করে বলে আপনি তাদের মসজিদে আসতে দিতে চান না। তাদের আদর দিন, উৎসাহ দিন, উপহার দিন। আপনার কথা স্মরণ করবে। ইনশাআল্লাহ, আপনার জন্য দোয়া করবে, আপনি কবরে থেকেও সওয়াব পেতে থাকবেন।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


চিকিৎসাবিজ্ঞানে সিজদার উপকারিতা

চিকিৎসাবিজ্ঞানে-সিজদার-উপকারিতা

আল্লাহ যাদের রক্ষা করেন, তাদেরকে কেউ ক্ষতি করতে পারে না

আল্লাহ-যাদের-রক্ষা-করেন-তাদেরকে-কেউ-ক্ষতি-করতে-পারে-না

জীবনের সার্বিক সফলতার সর্বোত্তম দোয়া

জীবনের-সার্বিক-সফলতার-সর্বোত্তম-দোয়া ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


মক্কা থেকে হজ্ব করে ফিরেই স্বাধীনতা সংগ্রামে নেমেছিলেন শহীদ তিতুমীর

মক্কা-থেকে-হজ্ব-করে-ফিরেই-স্বাধীনতা-সংগ্রামে-নেমেছিলেন-শহীদ-তিতুমীর

জানেন, কোন ধরনের খাবার খেলে মেয়েরা বেশি আকৃষ্ট হন!

জানেন-কোন-ধরনের-খাবার-খেলে-মেয়েরা-বেশি-আকৃষ্ট-হন-

মা অন্যের বাড়িতে কাজের বুয়া করেছে, ছেলে এখন জজ

মা-অন্যের-বাড়িতে-কাজের-বুয়া-করেছে-ছেলে-এখন-জজ এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


সেদিন মেয়েকে বলি, আমরা ভারতীয় আমাদের কোনও ধর্ম নেই : শাহরুখ

৩ ঘণ্টার ছুটি নিয়ে প্রেমিকাকে বিয়ে করলেন জাতীয় দলের ফুটবলার

তালিকা প্রকাশ, আইপিএলে রয়্যাল চ্যালেঞ্জার্স ব্যাঙ্গালুর দল পাচ্ছেন মুশফিক!

ইরাকে অন্ধকারের মধ্যে মার্কিন সেনাদের ভবিষ্যৎ

বিচিত্র জগৎ


তলোয়ার হাতে ঘোড়ায় চড়ে বিয়ে করতে গেলেন দুই বোন!

তলোয়ার-হাতে-ঘোড়ায়-চড়ে-বিয়ে-করতে-গেলেন-দুই-বোন-

মহা ধুমধামে বাঙালী মেয়েকে বিয়ে করলেন মার্কিন তরুণী

মহা-ধুমধামে-বাঙালী-মেয়েকে-বিয়ে-করলেন-মার্কিন-তরুণী

সামুদ্রিক মাছ খেয়ে এক রাতেই যুবতী থেকে বৃদ্ধা!

সামুদ্রিক-মাছ-খেয়ে-এক-রাতেই-যুবতী-থেকে-বৃদ্ধা- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ