আজ ১৭ রমজান, এদিন মুসলমানদের সাথে কাফেরদের প্রথম যুদ্ধ সঙ্ঘটিত হয়

০১:৪৩:০৩ মঙ্গলবার, ১৮ মে ২০২১

সর্বশেষ সংবাদ :

     • ভয়াবহ ঘূর্ণিঝড়ে লণ্ডভণ্ড শতাধিক গ্রাম, নিহত ৬, মোতায়েন ৩টি যুদ্ধজাহাজ     • শোয়েবের বলে এত জোরে আঘাত লেগেছিল যে ঘুমাতে কষ্ট হতো: শচীন     • মনুষ্যবিহীন সাবমেরিন দিয়ে ইসরায়েলি গ্যাস প্লাটফর্মে হামলা চালিয়েছে হামাস     • ‘ইসরায়েলকে ঘৃণা করে যাব, ফিলিস্তিনিরা জানুক বাংলাদেশ তাদের বন্ধু’     • ইসরাইলের প্রতি হুঁশিয়ারি দক্ষিণ আফ্রিকার প্রেসিডেন্টের     • গাজায় এত মৃত্যু দেখে চুপ থাকতে পারল না রাশিয়া     • অলরাউন্ডার ক্রিকেটারের মৃত্যু, নেমে এসেছে শোকের ছায়া     • নিরাপত্তা পরিষদে ফিলিস্তিনিদের পক্ষে জোড়ালো অবস্থান নিল চীন     • কানাডায় কেউ ধর্ম ও বর্ণবিদ্বেষ এবং ইসলাম ফোবিয়া ছড়িয়ে সমাজে সম্প্রতি নষ্ট করতে চাইলে তার বিরুদ্ধে কঠোর ব্যবস্থা     • হামাসের ঝাঁকে ঝাঁকে রকেট দেখে বিস্মিত ইসরায়েল

শুক্রবার, ৩০ এপ্রিল, ২০২১, ১১:৫৬:২৫

আজ ১৭ রমজান, এদিন মুসলমানদের সাথে কাফেরদের প্রথম যুদ্ধ সঙ্ঘটিত হয়

আজ ১৭ রমজান, এদিন মুসলমানদের সাথে কাফেরদের প্রথম যুদ্ধ সঙ্ঘটিত হয়

ইসলামিক ডেস্ক: আজ ১৭ রমজান। সত্য-মিথ্যার লড়াইয়ের দিন। এদিন মুসলমানদের সাথে কাফেরদের প্রথম যুদ্ধ সঙ্ঘটিত হয়। যা ঐতিহাসিক বদর যুদ্ধ হিসেবে ইতিহাসে পরিচিত। ঘুমিয়ে পড়া জীর্ণশীর্ণ মুসলমানকে জাগিয়ে দেয়ার জন্য বদরের চেতনার চেয়ে কার্যকরী আর কিছুই হতে পারে না। বদর মুসলমানের ঈমানি চেতনাকে শাণিত করে।

মাত্র দুই বছর আগে মক্কায় কাফেরদের অকথ্য নির্যাতনের শিকার হয়ে মহান আল্লাহর নির্দেশে নবীজী সাহাবিদের নিয়ে মদিনায় হিজরত করেন। মদিনায় নবীজীর সুখ্যাতি ও চার দিকে ইসলামের সুমহান বার্তা কাফেরদের মনকে ভীষণ বিষিয়ে তুলেছিল। নব প্রতিষ্ঠিত ইসলামী রাষ্ট্রের বিরুদ্ধে তাদের চক্রান্ত থেমে থাকেনি। ভারি অস্ত্রশস্ত্র সংগ্রহের জন্য তারা আবু সুফিয়ানকে শামে পাঠায়। মুসলমানরা এই খবর জানতে পেরে অস্ত্রশস্ত্র নিয়ে ফেরার পথে আবু সুফিয়ানের পথ আগলে দাঁড়ায়। মুসলমানদের উদ্দেশ্য ছিল তার থেকে যুদ্ধের সরঞ্জাম কেড়ে নেয়া। এদিকে মক্কায় অপপ্রচার রটে যে, মুসলমানরা আবু সুফিয়ানের ওপর হামলা করেছে। আবু জাহেলের নেতৃত্বে ১০০০ সৈন্যে নিয়ে কাফেরদের বিশাল বাহিনী মদিনা আক্রমণে বের হয়ে পড়ে। মুসলমানরা আক্রমণ প্রতিহত করতে বদরের উপকণ্ঠে উপস্থিত হয়।

দ্বিতীয় হিজরির রমজান মাসের ১৭ তারিখ। রোজা রেখে যুদ্ধের ময়দানে উপস্থিত নবীজীর কাফেলা। বদরের মাঠে কাফের বাহিনীর এক হাজার সশস্ত্র সৈন্য বাহিনীর মুখোমুখি মাত্র ৩১৩ জন মর্দে-মুজাহিদ। জাগতিক দৃষ্টিতে দেখলে যে কেউই যুদ্ধের আগে মুমিন বাহিনীর নিশ্চিত পরাজয়ের কথা বলে দিতে পারবে। কিন্তু এ বাহিনী তো জাগতিক দৃষ্টির বাইরেও আরেকটি দৃষ্টি অর্জন করেছিল। তা হলো ঈমানি দৃষ্টি। জাগতিক অস্ত্র ছাড়াও ঈমানি অস্ত্র তাদের কলবের খাপে মোড়া ছিল। যুদ্ধের প্রস্তুতিকলে নবীজী সবার সাথে পরামর্শ করলেন। মুহাজিরগণ সর্বোচ্চ সমর্থনের আশ্বাস দিলেন। নবীজীর মন ভরেনি। তিনি আবারো সমর্থন চাইলেন। এবার তিনি জানতে চাচ্ছেন মূলত আনসারদের মতামত।

কারণ আনসাররা মদিনার অধিবাসী। মদিনার অলিগলি সম্পর্কে অন্যদের চাইতে তাদের ধারণা বেশি। এই যুদ্ধে তাদের মতামত ও অংশগ্রহণ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। আনসার সাহাবি সাদ ইবনে মুয়াজ রা: বললেন, হে আল্লাহর রাসূল সা:। আপনি আমাদের কাছে যা চান আমরা দিতে প্রস্তুত। আমাদের সাথে নিয়ে যেখানে যেতে চান আমরা না বলব না। আপনি যা আদেশ করবেন তাই আমরা মেনে নেবো। আরেক সাহাবি বললেন, আমরা মুসা আ:-এর উম্মতের মতো বলব না যে, আপনি আর আপনার রব গিয়ে যুদ্ধ করুন। বরং আমরা বলব, আপনি আমাদের নিয়ে চলুন। আমরা আপনার চতুর্দিক থেকে দুর্গ গড়ে তুলব। নবীজীর আদেশ পেয়ে সাহাবারা আল্লাহর ওপর ভরসা করে, খেজুর গাছের শুকনো ঢাল হাতেই ঝাঁপিয়ে পড়ে চকচকে তরবারিধারীদের ওপর। বুখারি শরিফের কিতাবুল মাগাজিতে এসেছে, যেসব সাহাবি শুকনো খেজুরের ঢাল নিয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছিল, একসময় তারা দেখে খেজুরের ঢাল আর খেজুরের ঢাল নেই। চকচকে তরবারি বনে গেছে। সুবহানাল্লাহ। জাগতিক অস্ত্রের মোকাবেলায় ঈমানি অস্ত্র এমনই হয়।

আরেকটি ঘটনা, নবীজী সা: সৈনদের উদ্বুদ্ধ করার জন্য আবেগময়ী ভাষণ দিচ্ছেন। একপর্যায়ে বলছেন, ওই জান্নাতের দিকে ছুটে আসো যা আসমান ও জমিনের চেয়েও বড়। ন্যায়ের পক্ষে লড়াই করে শহীদ হলে এমন ১০টি পৃথিবীর সমান একটি জান্নাত তোমাকে দেয়া হবে। পাশেই একজন সাহাবি খেজুর খাচ্ছিলেন। যখন জান্নাতের কথা শুনলেন, তখন বললেন, বাহ! কী চমৎকার জান্নাত বানিয়ে রেখেছেন আল্লাহ তায়ালা। আমি যদি হাতে থাকা খেজুরগুলো খেতে থাকি তাহলে তো জান্নাতে যেতে খুব দেরি হয়ে যাবে। এই বলে হাতের সব খেজুর ছুড়ে ফেলে সে চলে যায় জিহাদের ময়দানে। জগতের মানুষ ভরসা করে জাগতিক উপকরণের ওপর। মুমিন ভরসা করে আল্লাহর ওপর। তাইতো রাসূল সা: যুদ্ধ শুরুর আগে আগে আকাশের দিকে দু’হাত বাড়িয়ে কান্নাজড়িত কণ্ঠে বারবার বলছিলেন, হে আল্লাহ! এত বিশাল সেনাবাহিনীর মোকাবেলা করার শক্তি এ ছোট্ট মুমিন বাহিনীর নেই। আজ যদি এ মুমিন বাহিনী হেরে যায়, তাহলে তোমাকে আল্লাহ বলে ডাকার আর কেউই থাকবে না। এভাবে দোয়া করে রাসূল সা: ঝাঁপিয়ে পড়লেন যুদ্ধের ময়দানে। আল্লাহর সাহায্য নাজিল হলো। বিশ্বাসীরা জয়ী হলো। এই যে অস্ত্রের বলে নয় দোয়া ও আল্লাহর উপর ভরসা রেখে প্রচেষ্টা করার ফলে বিজয় লাভ- এটাই বদরের সবচেয়ে বড় শিক্ষা। আফসোস! আজ মুসলমানের সব আছে, শুধু ঈমানী শক্তিতে তারা হয়ে পড়েছে জীর্ণশীর্ণ।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


ঈদের নামাজ পড়ার নিয়ম

ঈদের-নামাজ-পড়ার-নিয়ম

টানা ৪০ দিন মসজিদে জামায়াতের সহিত পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে সাইকেল পুরস্কার পেল ৯ শিশু

টানা-৪০-দিন-মসজিদে-জামায়াতের-সহিত-পাঁচ-ওয়াক্ত-নামাজ-পড়ে-সাইকেল-পুরস্কার-পেল-৯-শিশু

দৃষ্টিহীন শিক্ষার্থীদের কোরআন শেখাচ্ছেন দৃষ্টিহীন শিক্ষক

দৃষ্টিহীন-শিক্ষার্থীদের-কোরআন-শেখাচ্ছেন-দৃষ্টিহীন-শিক্ষক ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


যে দুই ব্লাড গ্রুপের মানুষের করোনা সংক্রমিত হওয়ার সম্ভাবনা বেশি!

যে-দুই-ব্লাড-গ্রুপের-মানুষের-করোনা-সংক্রমিত-হওয়ার-সম্ভাবনা-বেশি-

যে কারণে অন্ধ হয়ে যাচ্ছেন করোনা থেকে সেরে ওঠা রোগীরা

যে-কারণে-অন্ধ-হয়ে-যাচ্ছেন-করোনা-থেকে-সেরে-ওঠা-রোগীরা

একসঙ্গে পাঁচকন্যা ও চার ছেলেসন্তানের জন্ম দিলেন হালিমা! সুস্থ আছেন সবাই

একসঙ্গে-পাঁচকন্যা-ও-চার-ছেলেসন্তানের-জন্ম-দিলেন-হালিমা--সুস্থ-আছেন-সবাই এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


ইসরাইলের চেলসিকে হারিয়ে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন ‘বাংলাদেশের’ হামজা স্পোর্টস ইসরাইলের চেলসিকে হারিয়ে মাঠে ফিলিস্তিনের পতাকা ওড়ালেন ‘বাংলাদেশের’ হামজা

কৃতজ্ঞতা জানিয়ে হামজাকে চিঠি দিল ফিলিস্তিন সরকার

ইসরায়েলের বিপক্ষে ব্যবস্থা নিতে সৌদির আহবান

ইসরায়েল যা করছে তা মেনে নেয়া যায় না : আইরিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী

বিচিত্র জগৎ


পাত্র দু’য়ের ঘরের নামতা বলতে না পারায় বিয়ে ভেঙে দিলেন পাত্রী

পাত্র-দু’য়ের-ঘরের-নামতা-বলতে-না-পারায়-বিয়ে-ভেঙে-দিলেন-পাত্রী

মায়ের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে ধর্ষণের পর ১০০ শিশু হত্যা : টুকরো টুকরো লাশ গলিয়ে দিতেন অ্যাসিডে!

মায়ের-মৃত্যুর-প্রতিশোধ-নিতে-ধর্ষণের-পর-১০০-শিশু-হত্যা-টুকরো-টুকরো-লাশ-গলিয়ে-দিতেন-অ্যাসিডে-

এক ভূমিকম্পে বন্ধ হওয়া শতবর্ষী ঘড়ি আরেক ভূমিকম্পে চালু!

এক-ভূমিকম্পে-বন্ধ-হওয়া-শতবর্ষী-ঘড়ি-আরেক-ভূমিকম্পে-চালু- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ