বাস-মিনিবাস ছাড়া প্রায় সবই চলেছে, নিষেধাজ্ঞায় ঢিলেঢালা ভাব

০৪:৪২:৫০ বৃহস্পতিবার, ০৬ মে ২০২১


মঙ্গলবার, ০৬ এপ্রিল, ২০২১, ০৯:৩২:১৬

বাস-মিনিবাস ছাড়া প্রায় সবই চলেছে, নিষেধাজ্ঞায় ঢিলেঢালা ভাব

বাস-মিনিবাস ছাড়া প্রায় সবই চলেছে, নিষেধাজ্ঞায় ঢিলেঢালা ভাব

নিউজ ডেস্ক: করোনাভাইরাসের বিস্তার ঠেকাতে সাত দিনের জন্য আরোপ করা নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন তা পালনে সারা দেশেই ঢিলেঢালা ভাব দেখা গেছে। প্রায় ১১ ধরনের বিধি-নিষেধের মধ্যে বাস-মিনিবাস ছাড়া সবই কমবেশি চলেছে। বেশির ভাগ মার্কেট অবশ্য বন্ধ ছিল। তবে রাস্তায় মানুষজনের কমতি ছিল না। এমনকি অনেক মানুষের মাস্কও ছিল না। আর নিষেধাজ্ঞা মানাতেও সরকারের পক্ষ থেকে তেমন কড়াকড়ি দেখা যায়নি।

নিষেধাজ্ঞা মেনে শুধু গণপরিবহন বন্ধ ছিল। তবে রাস্তায় ছিল অটোরিকশা। সড়ক ছিল রিকশার দখলে। অনেক দূরের পথেও রিকশা চলতে দেখা গেছে। রাস্তায় প্রাইভেট কারও দেখা গেছে বেশ। নিধি-নিষেধ মেনে বিভিন্ন মার্কেট বন্ধ থাকলেও নির্দিষ্ট সময়ের জন্য মার্কেট খোলার দাবিতে রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্ষোভ করেছেন ব্যবসায়ী ও কর্মচারীরা।

সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিরা বলছেন, সরকার নিষেধাজ্ঞা দিয়েই তাদের দায়িত্ব শেষ করেছে। কিন্তু নিষেধাজ্ঞা বাস্তবায়নের দিকে তাদের খুব একটা খেয়াল নেই। গণপরিবহন বন্ধ করে অফিস খোলা রাখা হয়েছে। এতে মানুষকে যে কোনোভাবেই হোক অফিসে যেতে হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মানার তেমন কোনো বালাই ছিল না। এতে যিনি রাস্তায় বেরিয়েছেন তিনিও ঝুঁকিতে পড়েছেন এবং বাড়ির লোকদেরও আগের চেয়ে বেশি ঝুঁকিতে ফেলেছেন।

বিধি-নিষেধ জারির পর রাজধানীসহ সারা দেশে কী পরিস্থিতি চলছে সে বিষয়ে খোঁজ রাখছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। গতকাল সোমবার বিকেলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খানের কাছে বিধি-নিষেধ পালনে ঢিলেঢালা ভাবের বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে তিনি বলেন, ‘আমরা বিষয়গুলো দেখছি। আজ তো প্রথম দিন যাচ্ছে, আগামীকাল (মঙ্গলবার) বিষয়গুলো নিয়ে আমরা আলাপ-আলোচনা করব।’ প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, ‘সরকারের নির্দেশনা সমন্বিতভাবেই বাস্তবায়ন করা হবে।’

জনপ্রশাসন প্রতিমন্ত্রী ফরহাদ হোসেন বলেন, ‘বিধি-নিষেধ মানেই হচ্ছে কিছু সমস্যা আমাদের মোকাবেলা করতে হবে। গণপরিবহন নিয়ন্ত্রণ করা না গেলে সংক্রমণ নিয়ন্ত্রণ সম্ভব নয়। তাই সরকার বাধ্য হয়েই এ সিদ্ধান্ত নিয়েছে। জনগণকে সুস্থ রাখাই সরকারের মূল উদ্দেশ্য।’

ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জেলার চিত্রও প্রায় একই। গণপরিবহন ও মার্কেট ছাড়া সব কিছুই ছিল খোলা। চট্টগ্রামে গণপরিবহন (বাস, মিনিবাস ও হিউম্যান হলার) বন্ধ থাকলেও পিকআপ ভ্যান, প্রাইভেট কার, মাইক্রোবাস, প্রাইভেট সিএনজিচালিত অটোরিকশাসহ বিভিন্ন যানবাহন সমানে চলেছে। এর বাইরে নগরজুড়ে কয়েক লাখ পেডাল ও ব্যাটারিচালিত রিকশা অবাধে চলাচল করেছে। সেই সঙ্গে প্রধান সড়ক, উপসড়ক থেকে শুরু করে অলিগলির সর্বত্র ছিল মানুষের আনাগোনা।

সরকারের ১১ নিষেধাজ্ঞার মধ্যে ছিল—সব সরকারি-বেসরকারি অফিসে শুধু জরুরি কাজে সীমিত পরিসরে প্রয়োজনীয় জনবলকে প্রতিষ্ঠানের নিজস্ব পরিবহনের মাধ্যমে আনা-নেওয়া। কিন্তু তা মানেনি বেসরকারি অফিসগুলো। তারা ঠিকই অফিস খোলা রেখেছে; কিন্তু কর্মীদের যাতায়াতের ব্যবস্থা করেনি। এতে সকালে অফিসে যেতে ও বাসায় ফিরতে বেশ দুর্ভোগ পোহাতে হয় কর্মীদের। রিকশা, হেঁটে, ভাড়ায় মোটরসাইকেলে, পিকআপ বা কয়েকজন মিলে প্রাইভেট কার ভাড়া করে অফিসে যেতে দেখা যায়। এতে অন্যান্য দিনের চেয়ে বেশি স্বাস্থ্যঝুঁকিতে নিষেধাজ্ঞার প্রথম দিন পার করেছেন তাঁরা। এমনকি সব শিল্প-কারখানার শ্রমিকদের যাতায়াতের ব্যবস্থাও করেননি কর্তৃপক্ষ।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


১২০০ বছর পূর্বের গায়েবি মসজিদে হঠাৎই আজানের সুর!

১২০০-বছর-পূর্বের-গায়েবি-মসজিদে-হঠাৎই-আজানের-সুর-

সব মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: মিজানুর রহমান আজহারি

সব-মুসলমানদের-ঐক্যবদ্ধ-হতে-হবে-মিজানুর-রহমান-আজহারি

নির্মিত হচ্ছে বিশাল মসজিদ, একসঙ্গে ১২ হাজার মুসল্লি নামাজ আদায় করতে পারবেন

নির্মিত-হচ্ছে-বিশাল-মসজিদ-একসঙ্গে-১২-হাজার-মুসল্লি-নামাজ-আদায়-করতে-পারবেন ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


একসঙ্গে পাঁচকন্যা ও চার ছেলেসন্তানের জন্ম দিলেন হালিমা! সুস্থ আছেন সবাই

একসঙ্গে-পাঁচকন্যা-ও-চার-ছেলেসন্তানের-জন্ম-দিলেন-হালিমা--সুস্থ-আছেন-সবাই

এফোর্ট তার জন্যই দিন, যে আসলেই সেটা ডিজার্ভ করে

এফোর্ট-তার-জন্যই-দিন-যে-আসলেই-সেটা-ডিজার্ভ-করে

ক্যামেরায় বেশি মেগাপিক্সেল হলেই কি ছবি ভালো হবে?

ক্যামেরায়-বেশি-মেগাপিক্সেল-হলেই-কি-ছবি-ভালো-হবে- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


রোজাদার রিকশাচালককে মারধর, আটক বংশালের প্রভাবশালী সেই বাড়িওয়ালা

সব মুসলমানদের ঐক্যবদ্ধ হতে হবে: মিজানুর রহমান আজহারি

স্থগিত আইপিএল; ক্রিকেটারদের বাড়ি ফেরা শুরু

পুরো পরিবারের লাশ নিয়ে বাড়ি ফিরল ছোট্ট মীম!

বিচিত্র জগৎ


পাত্র দু’য়ের ঘরের নামতা বলতে না পারায় বিয়ে ভেঙে দিলেন পাত্রী

পাত্র-দু’য়ের-ঘরের-নামতা-বলতে-না-পারায়-বিয়ে-ভেঙে-দিলেন-পাত্রী

মায়ের মৃত্যুর প্রতিশোধ নিতে ধর্ষণের পর ১০০ শিশু হত্যা : টুকরো টুকরো লাশ গলিয়ে দিতেন অ্যাসিডে!

মায়ের-মৃত্যুর-প্রতিশোধ-নিতে-ধর্ষণের-পর-১০০-শিশু-হত্যা-টুকরো-টুকরো-লাশ-গলিয়ে-দিতেন-অ্যাসিডে-

এক ভূমিকম্পে বন্ধ হওয়া শতবর্ষী ঘড়ি আরেক ভূমিকম্পে চালু!

এক-ভূমিকম্পে-বন্ধ-হওয়া-শতবর্ষী-ঘড়ি-আরেক-ভূমিকম্পে-চালু- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ