মঙ্গলবার, ২৭ সেপ্টেম্বর, ২০২২, ০৭:১৪:২৯

সেই আরব আমিরাত এবার চমকে দিল বাংলাদেশকে!

সেই আরব আমিরাত এবার চমকে দিল বাংলাদেশকে!

স্পোর্টস ডেস্ক: ইতিহাস জানাচ্ছে, গত পরশুর ম্যাচের আগে টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে বাংলাদেশের সঙ্গে একবারই মুখোমুখি হয়ে মাত্র ৮২ রানে অলআউট হয়েছিল আরব আমিরাত।

২০১৬ সালের ২৬ ফেব্রুয়ারি শেরে বাংলা স্টেডিয়ামে হওয়া ম্যাচে বাংলাদেশের পুঁজি ছিল মাত্র ১৩৩ (৮ উইকেটে)। কিন্তু ওই সামান্য পুঁজি নিয়েও আরব আমিরাতকে ৫১ রানের বড় ব্যবধানে হারিয়েছিল টাইগাররা।

সেই আরব আমিরাত এবার চমকে দিয়েছে বাংলাদেশকে। ১৫৯ রানের লক্ষ্য তাড়া করতে নেমে শেষ ওভার পর্যন্ত তারা জয়ের সম্ভাবনা বাঁচিয়ে রেখেছিল। বাংলাদেশ কোনোমতে শেষ রক্ষা করেছে।

টপ অর্ডার ব্যাটাররা ছিলেন রীতিমত ব্যর্থ। তরুণ আফিফ হোসেন ধ্রুব আর অধিনায়ক নুরুল হাসান সোহান হাল না ধরলে বড় বিপদেই পড়তে হতো বাংলাদেশকে।

আফিফ ৫৫ বলে ৭৭ আর নুরুল হাসান সোহান ২৫ বলে ৩৫ রানের হার না মানা ইনিংস খেলেন। বাকিরা ব্যর্থতার মিছিল করেছেন। লিটন দাস (১৩) আর মেহেদি হাসান মিরাজ (১২) তবু দুই অংকে পা রাখেন।

মেকশিফট ওপেনার সাব্বির রহমান রুম্মন (০), মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত (৮ বলে ৩) আর ইয়াসির আলী রাব্বি (৭ বলে ৪) ছিলেন চরম ব্যর্থ। শুধু কম সময় ও কম রানে আউট হওয়াই নয়, তাদের ব্যাটিংয়ে আস্থা ও আত্মবিশ্বাস ছিল না একদমই। তিনজনের আউট হবার ধরনও ছিল দৃষ্টিকটু।

অপর মেকশিফট ওপেনার মিরাজ আর তিন নম্বরে নামা লিটন দাস একটি করে বাউন্ডারি হাঁকিয়ে অতি আক্রমণাত্মক হতে গিয়ে আউট হন। ৪৭ রানে ৪ আর ৭৭ রানে ৫ উইকেট পতনের পর ষষ্ঠ উইকেটে আফিফ আর সোহান ৮১ রানের অবিচ্ছন্ন জুটি গড়ে দলকে দেড়শো পার করে দেন।

বোলিংয়ে বাঁ হাতি পেসার শরিফুল ইসলাম (৩/২১), অফস্পিনার মেহেদি হাসান মিরাজ (৩/১৭) ছাড়া অন্যরা তেমন ভালো করতে পারেননি। তিন বোলার বিশেষ করে দুই পেসার মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন (৪ ওভারে ০/৪০), মোস্তাফিজুর রহমান (৪ ওভারে ২/৩১) আর বাঁহাতি স্পিনার নাসুম আহমেদ (৪ ওভারে ০/৩১) একদমই সুবিধা করতে পারেননি।

ওই ম্যাচ দেখে মনেই হয়নি আইসিসির এক সহযোগী সদস্য দেশের সঙ্গে খেলছে ২২ বছর ধরে টেস্ট খেলা বাংলাদেশ। নিউজিল্যান্ড সফর আর টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে এমন অনুজ্জ্বল পারফরম্যান্স দেখে যারপরনাই হতাশ ও বিরক্ত সমর্থকরা।

আজও কি একই দল নিয়ে মাঠে নামবে বাংলাদেশ? আগের ম্যাচের মতো ওপেনার লিটন দাসকে তিনে খেলিয়ে মেহেদি হাসান মিরাজ ও সাব্বির রহমান রুম্মনকে দিয়ে ইনিংসের সূচনা করা হবে? পেসারদের মধ্যে কি কোনো পরিবর্তন আসবে? একদমই অনুজ্জ্বল সাইফউদ্দিন কি আজও একাদশে থাকবেন? এসব প্রশ্ন অনেকের মনেই উঁকি দিচ্ছে।

যেহেতু স্ট্যান্ডবাই শরিফুল খেলেছেন প্রথম ম্যাচে। আর ১৫ জনের দলে থেকেও ড্রেসিংরুমে বসেছিলেন তাসকিন আহমেদ ও এবাদত হোসেন। আজ তাদেরও সুযোগ মিলতে পারে।

শোনা যাচ্ছে, সাব্বির রহমানের বদলে ওপেনিংয়ে আসতে পারেন স্ট্যান্ডবাই থাকা সৌম্য সরকার। তবে নির্ভরযোগ্য সূত্রের খবর, ব্যাটিং লাইনআপে পরিবর্তন আসার সম্ভাবনা খুব কম। টিম ম্যানেজমেন্ট ও নির্বাচকরা আজকের ম্যাচেও সাব্বির আর মিরাজের মেকশিফট ওপেনিং জুটি খেলানোর পক্ষে। হতে পারে এটাই তাদের শেষ সুযোগ।

তবে পেস বোলিং লাইনআপে বদল হচ্ছে এটা একপ্রকার নিশ্চিত। একাদশে ফিরছেন তাসকিন আর এবাদত। তাদের ১১ জনে ঢোকার অর্থ, সাইফউদ্দিন আর মোস্তাফিজের বাইরে চলে যাওয়া।

Follow করুন এমটিনিউজ২৪ গুগল নিউজ, টুইটার , ফেসবুক এবং সাবস্ক্রাইব করুন এমটিনিউজ২৪ ইউটিউব চ্যানেলে

aditimistry hot pornblogdir sunny leone ki blue film
indian nude videos hardcore-sex-videos s
sexy sunny farmhub hot and sexy movie
sword world rpg okhentai oh komarino
thick milf chaturb cum memes