বাধ নির্মাণে গাফলতি হলে ব্যবস্থা, সুনামগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর হুশিয়ারি

০৫:২০:৩৩ বৃহস্পতিবার, ২০ ফেব্রুয়ারী ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • যে কারণে শিশুদের উপর প্রভাব ফেলছে না করোনাভাইরাস     • করোনাভাইরাসে হাসপাতাল প্রধানের মৃত্যুর পর আরেক হাসপাতাল প্রধান আক্রা'ন্ত     • নামাজ পড়লে কঠিন রোগ থেকেও মুক্তি পাওয়া যায়     • অফিসে কর্মচারিদের সাথে 'মুকাবেলা' গানে মহিলা বসের তুমুল নাচ, ভাই'রাল ভিডিও     • বেতনের টাকা জমিয়ে কেনা অ্যাম্বুলেন্সে গ্রামবাসীকে বিনে পয়সায় সেবা দেন শিক্ষিকা শেফালী     • ফেলে যাওয়া বৃদ্ধার দায়িত্ব নিলেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা     • মার্কিন বিমান বাহিনীতে দাড়ি রাখা, হিজাব ও পাগড়ি পরার অনুমতি     • এটা পাকিস্তান, ভারত নয় : ইসলামাবাদ হাইকোর্টের প্রধান বিচারপতি     • চেক রিপাবলিকের জাতীয় দলে ডাক পেলেন মেহেরপুরের সোহাস     • সীমান্তে গরু চো'রাচা'লানিদের দুটি চম'কপ্রদ কৌ'শল

রবিবার, ৩০ এপ্রিল, ২০১৭, ০৩:২১:২৯

বাধ নির্মাণে গাফলতি হলে ব্যবস্থা, সুনামগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর হুশিয়ারি

বাধ নির্মাণে গাফলতি হলে ব্যবস্থা, সুনামগঞ্জে প্রধানমন্ত্রীর হুশিয়ারি

সিলেট ব্যুরো: হাওর অঞ্চলের বাঁধ নির্মাণে কারও কোনও ধরনের গাফিলতি থাকলে তার বিরুদ্ধে যথাযথ ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

তিনি বলেন, ‘হাওর অঞ্চলে মানুষের কষ্ট লাঘব করার জন্য বাঁধ নির্মাণ করা হয়। এসব বাঁধ নির্মাণে কোনও ধরনের অবহেলা থাকলে তা ছাড় দেওয়া হবে না।’

রবিবার সুনামগঞ্জের শাল্লা উপজেলায় হাওর এলাকা হাওর এলাকা পরিদর্শনের পর উপজেলার শাহীদ আলী মডেল উচ্চ বিদ্যালয়ের মাঠে এক মতবিনিময় সভায় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা এসব কথা বলেন।

সভায় প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘হাওর অঞ্চলের মানুষ প্রতিনিয়ত জীবনযুদ্ধে থাকে। বাওর এলাকা আমারও এলাকা, আমি বুঝি আপনাদের কষ্ট। এসব এলাকার মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়। তাই এসব এলাকায় বিকল্প জীবিকার ব্যবস্থা করা হবে। শুধু ফসলের ওপর নির্ভরশীল না থেকে মাছের উৎপাদন বাড়াতে হবে। মাছ উৎপাদনের সঙ্গে সঙ্গে মাছের সংরক্ষণ, প্রক্রিয়াজাত ও বাজারজাতের ব্যবস্থা যেন নেওয়া হয়, সে ব্যবস্থা করা হবে।’

হাওরে মানুষের বিকল্প জীবিকা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘পানি নেমে গেলেই হাওরে ব্যাপকভাবে মাছের পোনা ছেড়ে দেওয়া হবে। এমন ব্যবস্থা করতে হবে যেন মাছের চাষ বাড়ে। শুধু তাই নয়, হাসের চাষ করা যায়, খাচার মধ্যে মাছের চাষ করা যায়, শাক-সবজির চাষ করা যায়, ডাল-শরিষা উৎপাদন করা যায়। এমন নানা ধরনের প্রক্রিয়া আছে। এগুলো ব্যবহার করতে শুরু করলে আর হাওর এলাকার মানুষ আর্থিকভাবে ক্ষতিগ্রস্ত হবেন না।’

আগাম বন্যা হলেই হাওর এলাকার ফসল ক্ষতিগ্রস্ত হয়। এ পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে প্রতিকূল পরিবেশের সঙ্গে সহনীয় ধানের জাত তৈরিতে গবেষণা চলছে বলে জানিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি বলেন, ‘এমন ধানের জাত নিয়ে গবেষণা চলছে, যেগুলো কিছুদিন পানির নিচে থাকলেও নষ্ট হবে না। পানি নেমে গেলেই সেগুলো ঠিকভাবে বেড়ে উঠবে। এছাড়া অনেক সময় বৃষ্টি হয় না। অনাবৃষ্টি বা খরাতেও যেন ধান গাছ টিকে থাকতে পারে, তেমন ধান নিয়েও গবেষণা চলছে।’

হাওর অঞ্চলের উন্নয়নে সরকারের পরিকল্পনার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘হাওর এলাকার নদীগুলো যেন ভরাট না হয়ে যায়, সেজন্য নদীগুলো ড্রেজিং করা হবে। হাওর এলাকায় খাল কাটা হবে এবং এসব খাল যেন বেশি পানি ধারণ করতে পারে, সে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। এসব এলাকার ঘরবাড়ি যেন দুর্যোগে ক্ষতিগ্রস্ত না হয়, সে জন্যও পদক্ষেপ নেওয়ার পরিকল্পনা রয়েছে। হাওর উন্নয়ন বোর্ড সরকারের এসব পরিকল্পনা বাস্তবায়ন করবে।’
প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘আমাদের হাওর বাঁচিয়ে রাখতে হবে। কারণ হাওরে যে পানি জমা হয়, এই পানিই সারাবছর নদীতে যায়। এই পানি এই এলাকার মানুষের জীবনযাত্রার সঙ্গে সম্পৃক্ত।’

হাওর এলাকাকে দুর্যোগপ্রবণ উল্লেখ করে শেখ হাসিনা বলেন, ‘প্রকৃতির সঙ্গে তাল মিলিয়ে চলা এবং প্রকৃতিকেই কাজে লাগানোর চিন্তা করতে হবে। প্রাকৃতিক দুর্যোগ আসবে, সেটা মোকাবিলা করেই বাঁচতে হবে। কিভাবে মোকাবিলা করে বাঁচতে পারি, সেই পথ বের করতে হবে। এমন ব্যবস্থা নিতে হবে যেন কোনও মানুষের জীবনের ক্ষতি না হয়। খেয়াল রাখতে হবে, হাওরাঞ্চল জীববৈচিত্র্যের এলাকা। এই অঞ্চলের অনেক সম্ভাবনা রয়েছে। এসব সম্ভাবনা কাজে লাগাতে হবে। এখানে পর্যটনের সুযোগ আছে, আর্থিক স্বচ্ছলতা আনার সুযোগ আছে। এগুলোকে কাজে লাগিয়ে কেবল এই অঞ্চল নয়, দেশও যেন লাভবান হতে পারে সেই ব্যবস্থা আমরা নেবো।’

দুর্যোগে ত্রাণ তৎপরতা প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘কোনও ধরনের দুর্যোগ হলেই ত্রাণ মন্ত্রণালয় কাজ শুরু করে। আমরা যতটুকু সম্ভব, ত্রাণ দিয়ে যাব। হাওর এলাকায় ১০ টাকা কেজিতে ওএমএসের মাধ্যমে চাল বিক্রি করা হচ্ছে। যারা দুঃস্থ আছেন, তাদের জন্য রয়েছে ভিজিএফ কার্ডের ব্যবস্থা। এই অঞ্চলের মানুষের ঘরে খাবার আসার আগ পর্যন্ত এসব সহায়তা অব্যাহত থাকবে। একজন মানুষও না খেয়ে কষ্ট পাবেন না, এটাই আমাদের লক্ষ্য। আমরা চাই, আমাদের দেশের মানুষ, তিনি যে অঞ্চলেরই হোক না কেন, তারা যেন ভালোভাবে বাঁচতে পারে।’

সুনামগঞ্জের জেলা প্রশাসক শেখ রফিকুল ইসলামের সঞ্চালনায় মতবিনিময় সভায় আরও বক্তব্য রাখেন কৃষিমন্ত্রী মতিয়া চৌধুরী, দুর্যোগ ও ত্রাণমন্ত্রী মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরী মায়া, পানিসম্পদমন্ত্রী আনিসুল ইসলাম মাহমুদ, খাদ্যমন্ত্রী অ্যাডভোকেট কামরুল ইসলাম, অর্থ প্রতিমন্ত্রী এম এ মান্নান, পানিসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নজরুল ইসলাম ও স্থানীয় সংসদ সদস্য জয়া সেনগুপ্তা।
৩০ এপ্রিল ২০১৭/এমটিনিউজ২৪/টিটি/পিএস



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


দৈনন্দিন জীবনে ‘ইনশা আল্লাহ’ বলার গুরুত্ব ও তাৎপর্য এবং না বলার পরিণাম

দৈনন্দিন-জীবনে-‘ইনশা-আল্লাহ’-বলার-গুরুত্ব-ও-তাৎপর্য-এবং-না-বলার-পরিণাম

জীবনের শেষ সময়ে এসে পবিত্র ধর্ম ইসলাম গ্রহণ করলেন ৯২ বছরের বৃদ্ধা

জীবনের-শেষ-সময়ে-এসে-পবিত্র-ধর্ম-ইসলাম-গ্রহণ-করলেন-৯২-বছরের-বৃদ্ধা

মানুষের চোখে ফেরেশতাদের দেখা কি সম্ভব?

মানুষের-চোখে-ফেরেশতাদের-দেখা-কি-সম্ভব- ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


এ যেন সত্যিকারের জীবনযো'দ্ধা!

এ-যেন-সত্যিকারের-জীবনযো-দ্ধা-

চাটগাঁইয়া ও সিলেটি বিশ্বের সর্বাধিক কথ্য ভাষার তালিকায়!

চাটগাঁইয়া-ও-সিলেটি-বিশ্বের-সর্বাধিক-কথ্য-ভাষার-তালিকায়-

এক পাউন্ড মধু উৎপাদনে ২০ লাখ ফুলে যায় মৌমাছিরা

এক-পাউন্ড-মধু-উৎপাদনে-২০-লাখ-ফুলে-যায়-মৌমাছিরা এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


বিরাট কোহলির সঙ্গে বিচ্ছেদের সময়টা কষ্টের: আনুশকা শর্মা

'একটু বলিস' শেষ জীবনে ফোন করে কাজ চাইতেন তাপস পাল

ভবিষ্যতে আর কখনো কোনো যৌ'নকর্মীর জানাজা পড়াবো না : দৌলতদিয়ার ইমাম

করোনাভাইরাসের রেশ না কাটতেই এবার চীনের আকাশে একসঙ্গে পাঁচ সূর্য!

বিচিত্র জগৎ


যে বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হতে হলে অবশ্যই ম্যাট্রিকে ফেল করতে হবে!

যে-বিশ্ববিদ্যালয়ে-ভর্তি-হতে-হলে-অবশ্যই-ম্যাট্রিকে-ফেল-করতে-হবে-

আবারো বিয়ের পিঁড়িতে ৬ ভাইবোন, বাসর সাজালেন নাতি-নাতনিরা

আবারো-বিয়ের-পিঁড়িতে-৬-ভাইবোন-বাসর-সাজালেন-নাতি-নাতনিরা

চারবার আবেদন করেও ব্যাংক ঋণ না পেয়ে কিনলেন লটারি, ১৪ কোটি টাকা জিতলেন দিনমজুর

চারবার-আবেদন-করেও-ব্যাংক-ঋণ-না-পেয়ে-কিনলেন-লটারি-১৪-কোটি-টাকা-জিতলেন-দিনমজুর বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ