অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে গিয়ে জীবন নিয়ে ছিনিমিনি

০৯:২৯:২২ রবিবার, ১২ জুলাই ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • অবিশ্বাস্য এক কাজ করেছে ১৫ বছর বয়সী কিশোর রায়হান, ফেসবুক পেজে জানালেন ব্যারিস্টার সুমন     • বিশ্বকাপ আয়োজন নিয়ে কোন দ্বিধা নেই: ইনফান্তিনো     • অমিতাভ বচ্চনের পর এবার করোনায় আক্রা'ন্ত হলেন অভিষেক বচ্চনও     • ‘আমি তৈরি তুমি এসো, ভালোবেসে গ্রহণ কর’, লিখে নারীর আ'ত্মহ'ত্যা     • কবরস্থান থেকে ভেসে আসছে, ‘আমি বেঁচে আছি, সাহায্য করুন’     • ছাদ থেকে পড়ে মায়ের মৃত্যু হলেও অলৌকিকভাবে বেঁচে গেল কোলে থাকা এক বছরের শিশু     • বিশ্বকে হতবাক করলো করোনার এই আবিস্কার     • অমিতাভ বচ্চন করোনায় আক্রা'ন্ত      • বিশ্ব ধরেই নিচ্ছে বাংলাদেশ জা'লিয়াতির দেশ : শাহরিয়ার কবির     • খবরটি ভিত্তিহীন: মাশরাফী

শনিবার, ৩০ মে, ২০২০, ১০:৩৫:৫৯

অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে গিয়ে জীবন নিয়ে ছিনিমিনি

অর্থনীতিকে চাঙ্গা রাখতে গিয়ে জীবন নিয়ে ছিনিমিনি

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : মাস তিনেক হতে চলল করোনাকে সঙ্গে নিয়ে জীবন কা'টাচ্ছে গোটা পৃথিবী। কোনও দেশে এর প্রকো'প কম, কোথাও বেশি। তফাত এটুকুই। কি সং'ক্র'মণ, কি মৃ'ত্যু, আমেরিকা পয়লা নম্বরে থেকে ন'জর কেড়েছে বিশ্বের। শোনা যাচ্ছে, আগস্টের গোড়ায় মৃ'তের সংখ্যা দেড় লাখ ছোঁবে। তার ওপর গত দু'‌মাসে চার কোটি মানুষ চাকরি হা'রিয়েছেন।

অদূর ভবিষ্যতে এই সমস্যা থেকে বেরনোর সম্ভাবনাও দেখা যাচ্ছে না। এখন প্রশ্ন উঠছে, যখন অন্য দেশগুলো এই ভাইরাসকে নিয়'ন্ত্রণের কিছু না কিছু উপায় বার করছে, তখন আমেরিকার কেন এমন দুর'বস্থা? এক কথায় এর উত্তর হল, অতিরিক্ত বাণিজ্য–‌মনস্কতা, 'অবসেশন উইথ বিজনেস'। আমরা যারা আমেরিকায় থাকি, তাদের সারাক্ষণ মাথায় রাখতে হয়, জনসাধারণ অর্থনীতির সেবা করে। অর্থনীতি আমাদের সেবক নয়।

যেন–‌তেন–‌প্রকারেণ অর্থনীতিকে চা'ঙ্গা রাখতে হবে, দরকার হলে আত্মত্যা'গ করতে হবে। প্রাণত্যা'গও যে করতে হতে পারে, সেটা অবশ্য করোনার মতো একটা ভ'য়াব'হ মহামা'রী না এলে বোঝা যেত না। আমজনতা বিশ্বাস করে, তাদের অস্তিত্ব নির্ভর করছে বাণিজ্যের ওপর, আর তারা ভালভাবেই জানে, বাণিজ্য–‌বিরো'ধী কোনও নীতি সহ্যই করবে না মার্কিন প্রশাসন। সে শ্রম আইন হোক কি পরিবেশ, সবটাই হতে হবে বাণিজ্যমুখী। দ্বিতীয় যে বিশ্বাসে ভর করে চলে আমেরিকা, তা হল বাজার অর্থনীতিই শেষ কথা, সব সম'স্যার সমাধান ওতেই। 

এই যে আবহাওয়ার বিরাট পরিবর্তন, আয়ের চ'রম বৈ'ষম্য, ভ'য়ঙ্কর দারিদ্র, ভে'ঙে পড়া স্বাস্থ্য ব্যবস্থা— এগুলো নিয়ে ভাবতেই রাজি নয় কেউ। সারাক্ষণ দৌড়চ্ছে কী করে আরও আরও রোজগার করা যায় তার পিছনে। প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেই একই মানসিকতার হবেন, সেটাই তো স্বাভাবিক। করোনা মোকাবিলায় তার সামনে দুটো পথ খোলা ছিল। এক, ভাইরাসের মা'রণ ক্ষমতার গুরুত্ব বুঝে অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড বন্ধ রাখা।

দুই, ভাইরাসের গুরুত্ব কমিয়ে দেখানো, এ ‌বিষয়ে সত্য গোপন করা এবং আশা করা, একদিন নিজে থেকেই উবে যাবে করোনা। ট্রাম্প দ্বিতীয় পথটি বেছে নিয়েছেন কারণ তা আপাতদৃষ্টিতে অর্থনীতির দৌড়ে বাধা সৃষ্টি করেনি। বলা বাহুল্য, তার দল এবং সমর্থকেরা এজন্য তাকে বাহবা দিয়েছেন। 'আন্ডারক্লাস' কথাটা আমেরিকার সমাজে খুব প্রযোজ্য। 'সাপ্লাই সাইড ইকনমিক্স'-এর তত্ত্ব অনুযায়ী, এই মডেলে ধনীর থেকে গরিবের দিকে চুঁইয়ে আসবেই সমৃদ্ধির সোনালি ধা'রা। 

বাস্তবে কী হয়, তা অবশ্য আলাদা কথা। এই নীতিতে অর্থনীতি চলে বলেই আমেরিকায় তৈরি হয়েছে আন্ডারক্লাস। এই তালিকায় রয়েছেন কৃষ্ণাঙ্গ, কম আয়ের মানুষ, নার্সিংহোমগুলোতে পড়ে থাকা প্রবীণেরা, জেলবন্দি, আর আছেন বিপদসীমার সবচেয়ে কাছাকাছি করোনা যোদ্ধার দল যারা হয় স্বাস্থ্যকর্মী নয়তো অন্য প্রয়োজনীয় পরিষেবার সঙ্গে যুক্ত। এদের বেশির ভাগই ঘন জনবসতি এলাকায় থাকেন এবং এদের কাজের জায়গাও ঝুঁ'কিপূর্ণ। বেতন কম হওয়ায় এদের স্বাস্থ্যবিমা নেই অথবা থাকলেও খুব কম অঙ্কের। এই গোষ্ঠীর মানুষের মধ্যে ডায়াবেটিস, হার্টের অসুখ, হাইপারটেনশন জাতীয় অসুস্থতা বেশি।

সুতরাং করোনা পরি'স্থিতিতে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্পের হাতে ছিল দুটি ট্রাম্প কার্ড। একদিকে অধিকাংশ আমেরিকান যে করেই হোক অর্থনীতিকে সচল রাখতে বদ্ধপরিকর, অন্যদিকে গরিব ও বেকার মানুষেরা জীবন বাজি রেখে রোজগার করতে মরিয়া। ফলে ডাক্তারদের সাবধানবাণী, বিজ্ঞানীদের ভবিষ্যদ্বাণী, সমাজতাত্ত্বিকদের কল্যাণ প্রকল্প, কোনওটাতেই কান দেওয়ার প্রয়োজন নেই। জীবন না জীবিকা, এই প্রশ্নে শুধু ট্রাম্প কেন, যে কোনও রিপাবলিকান প্রেসিডেন্ট একইরকমভাবে দ্বিতীয়টিকেই বেছে নিতেন। বিকল্প মানবিক নীতির সপক্ষে যে মত সোচ্চার হচ্ছে আমেরিকায় এই মৃত্যুমিছিলের পর, বুঝতে হবে, তা রাতারাতি আসার নয়। এজন্য দরকার জোরদার আন্দোলন। এই মুহূর্তে এটুকু বলা যায়, সেই আন্দোলনের দরজা হয়তো খুলে দিল করোনা। সূত্র : আজকাল



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


সূরা ফাতেহা সব রোগের মহাওষুধ

সূরা-ফাতেহা-সব-রোগের-মহাওষুধ

করোনার অবসরে পূর্ণ কোরআন মুখস্ত করলেন গৃহিণী নাসমা

করোনার-অবসরে-পূর্ণ-কোরআন-মুখস্ত-করলেন-গৃহিণী-নাসমা

কোরআন ছাড়া এক পা এগোনো মানুষের জন্য মঙ্গলজনক নয়

কোরআন-ছাড়া-এক-পা-এগোনো-মানুষের-জন্য-মঙ্গলজনক-নয় ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


আমের গুণের শেষ নেই, নির্ভয়ে খান এই শর্তগুলো মেনে

আমের-গুণের-শেষ-নেই-নির্ভয়ে-খান-এই-শর্তগুলো-মেনে

ইরানের যেসব দর্শনীয় স্থান দেখে বিশ্বের পর্যটকেরা মুগ্ধ হন

ইরানের-যেসব-দর্শনীয়-স্থান-দেখে-বিশ্বের-পর্যটকেরা-মুগ্ধ-হন

জানেন কি, বাড়িতে করোনা নিয়ে আসতে পারে জুতাও! জেনে নিন বাঁচার উপায়

জানেন-কি-বাড়িতে-করোনা-নিয়ে-আসতে-পারে-জুতাও--জেনে-নিন-বাঁচার-উপায় এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


আগামী বছরের জুনে এশিয়া কাপ!

দাঁত-ঠোঁট অবিকল মানুষের মতো দেখতে অদ্ভুত মাছ!

আমের গুণের শেষ নেই, নির্ভয়ে খান এই শর্তগুলো মেনে

চাচি-ভাতিজার প্রেম! বিয়ে করে জঙ্গলে ঢুকে ঘটালেন ভ'য়ঙ্কর ঘটনা!

বিচিত্র জগৎ


দাঁত-ঠোঁট অবিকল মানুষের মতো দেখতে অদ্ভুত মাছ!

দাঁত-ঠোঁট-অবিকল-মানুষের-মতো-দেখতে-অদ্ভুত-মাছ-

বিশ্বের প্রথম গোল্ডেন হোটেল, টয়লেট থেকে শুরু করে সবকিছুই সোনায় মোড়া!

বিশ্বের-প্রথম-গোল্ডেন-হোটেল-টয়লেট-থেকে-শুরু-করে-সবকিছুই-সোনায়-মোড়া-

নিজেকে নারী বলেই জানতেন অথচ তিরিশ বছর পর জানা গেল তারা দু’বোন আসলে পুরুষ!

নিজেকে-নারী-বলেই-জানতেন-অথচ-তিরিশ-বছর-পর-জানা-গেল-তারা-দু’বোন-আসলে-পুরুষ- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ