বুধবার, ০৩ আগস্ট, ২০১৬, ০৭:০৮:৫০

দেশভাগের বেদনাতেই হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ

দেশভাগের বেদনাতেই হয়েছিল পশ্চিমবঙ্গ

নীরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী : ১৯৪৭ সালে স্বাধীনতা ঘোষণার আগে সিরিল র‌্যাডক্লিফের ওপর দায়িত্ব পড়েছিল পাঞ্জাব ও বাংলা ভাগের। র‌্যাডক্লিফ যখন তা পেশ করলেন, ভারি গোলমাল হল, ভুলে ভর্তি র‌্যাডক্লিফের মানচিত্র। স্বাধীনতার দিনটিতে দেখা গেল মুর্শিদাবাদে উড়ছে পাকিস্তানের পতাকা, খুলনায় ভারতের নিশান। দ্রুতই অবশ্য ত্রুটি সংশোধন হল। যথাস্থান নিল খুলনা ও মুর্শিদাবাদ।

দেশ ভাগের আগে, অর্থাৎ স্বাধীনতার আগে যখন যুক্ত বাংলা, এদিককার, কলকাতার লোকে ওদিকে বরিশাল, ঢাকা গেলে বলত পূর্ববঙ্গে যাচ্ছি। এদিকে এলে আমাদের বলা হত পূর্ববঙ্গের লোক। আমরা পূর্ববঙ্গের লোক, বাঙাল। স্বাধীনতার আগে থেকেই অবিভক্ত বঙ্গের পূর্ব দিকের অংশটিকে পূর্ববঙ্গই বলা হত। সেই হিসেবে পূর্ববঙ্গ ছিলই, স্বাধীনতার পর সেটা হয়ে গেল পূ্র্ব পাকিস্তান।

দেশ ভাগে, স্বাধীনতার সময় ভারতের সঙ্গে জুড়ে গেল বাংলার যে অংশ, সেটা বাংলার পশ্চিমাঞ্চল। তাই নাম হয়ে গেল লোকমুখেই পশ্চিমবঙ্গ। দেশ ভাগের বেদনাতেই এ রাজ্যের নাম তখন লোকের মুখে মুখে হয়েছে পশ্চিমবঙ্গ, বিভক্ত বঙ্গের পশ্চিম অঞ্চল— এই সত্য এই নামকরণ, এটা ঠিক রাজনৈতিক নেতাদের সিদ্ধান্তে হয়নি, লোকে এ রাজ্যকে পশ্চিমবঙ্গ বলেছে, সরকারি নথিপত্রে হয়ে গেছে ওয়েস্ট বেঙ্গল। এতে সরকারি কাজকর্মে এত বছর ধরে বড় অসুবিধা হচ্ছিল।

বর্ণানুসারে পশ্চিমবঙ্গের প, বা ইংরেজিতে ডব্লু অনেক নিচে। নিচে থাকার যে অসুবিধা। আসাম, অন্ধ্র প্রদেশে ওপরে। দশকের পর দশক পশ্চিমবঙ্গ বা ওয়েস্ট বেঙ্গলের এই অসুবিধা হয়েছে। তাই বঙ্গ বা বাংলা নামকরণ সঠিক সিদ্ধান্ত। আমি বলব ‘‌বঙ্গ’‌ নামটিই ভাল, ঠিকঠাক। ‘‌বাংলা’‌ নাম হলে অনেক অসুবিধা হবে।

১৯৭১ সালে স্বাধীন সার্বভৌম বাংলাদেশ হওয়ায়, সংক্ষেপে আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে তাকেই ‘‌বাংলা’‌ বলেন বিদেশিরা। তাই এ রাজ্যের নাম ‘‌বঙ্গ’‌ হলে যথাযথ।

লেখক : একজন ভারতীয় বাঙ্গালী কবি

৩ আগস্ট ২০১৬/এমটি নিউজ২৪/এসবি/এসএস

এমটিনিউজ২৪.কম এর খবর পেতে গুগল নিউজ (Google News) এ ডান দিকের স্টার বাটনে ক্লিক করে গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি ফলো করুন! Follow করুন এমটিনিউজ২৪ গুগল নিউজ