বুধবার, ২৯ ডিসেম্বর, ২০২১, ০৯:১০:৪৮

মুখোমুখি হওয়া মাত্রই উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বেঁধে যায়

মুখোমুখি হওয়া মাত্রই উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বেঁধে যায়

চাঁদপুরের ফরিদগঞ্জে ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে প্রচারণার সময় প্রতিপক্ষের কর্মীরা মোটরসাইকেল প্রতীকের প্রার্থীর মিছিলে হামলা ও সংঘর্ষের ঘটনা ঘটিয়েছে। এই ঘটনায় ২০টি মোটরসাইকেল ও বেশকিছু যানবাহন ভাঙচুর করা হয়। আহত হয়েছেন অন্তত ২৫ জন। 

মঙ্গলবার (২৮ ডিসেম্বর) সন্ধ্যায় রূপসা দক্ষিণ ইউনিয়নের গৃদকালিন্দিয়া বাজারে এই ঘটনা ঘটে। এসময় কয়েক শ মোটরসাইকেল নিয়ে আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থীর সমর্থনে মিছিল বের হয়। মিছিলটি বাজার এলাকায় পৌঁছা মাত্র প্রতিপক্ষের কর্মীরা তাতে হামলা করে। পরে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে। এই ঘটনায় চেয়ারম্যান প্রার্থী আনারস প্রতীকের আব্দুল কাদের খোকন তার প্রতিপক্ষ নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শরীফ খানের বিরুদ্ধে অভিযোগ আনেন। 

হামলায় আহত এবং প্রত্যক্ষদর্শীরা জানিয়েছেন, মঙ্গলবার সন্ধ্যায় নৌকার বিদ্রোহী আনারস প্রতীকের চেয়ারম্যান প্রার্থী আব্দুল কাদের খোকন মোটরসাইকেল শোভাযাত্রা বের করেন। শোভাযাত্রাটি গৃদকালিন্দিয়া বাজারে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে আসা নৌকার প্রার্থীর মিছিলের মুখোমুখি হয়। এ সময় উভয় পক্ষের মাঝে সংঘর্ষ বেঁধে যায়। সংঘর্ষে অন্তত ২৫ জন আহত হন এবং ২০টি মোটরসাইকেলসহ বেশকিছু যানবাহন ভাঙচুর করা হয়। আহতরা ফরিদগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স, চাঁদপুর এবং লক্ষ্মীপুরের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা গ্রহণ করছেন বলে জানা গেছে।

সংঘর্ষের বিষয়ে আনারস প্রতীকের প্রার্থী আওয়ামী লীগ নেতা আবদুল কাদের খোকন অভিযোগ করেন, আমরা শোভাযাত্রা নিয়ে বাজারের দিকে যাচ্ছিলাম। গৃদকালিন্দিয়া বাজার এলাকায় পৌঁছলে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শরীফ খান এবং তার সমর্থকরা আমাদের মিছিলে অস্ত্র নিয়ে হামলা করে। তারা আমাদের অন্তত ২০টি মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও অন্তত ২০/২৫ জনকে আহত করেছে।

তিনি আরো বলেন, আইন-শৃংখলা রক্ষাকারী বাহিনী ওই তাণ্ডব দেখেছে। আমি এ ঘটনার বিচার চাই। এক প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, আমি মামলা করব। তার ভাই উপজেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও ভাইস চেয়ারম্যান জিএস তছলিম উদ্দিন বলেছেন, আমরা শরীফ খান ও তার সাঙ্গপাঙ্গদের বিচার চাই।

এদিকে নৌকা প্রতীকের প্রার্থী শরীফ খান জানিয়েছেন, আমি প্রতিদিনের ন্যায় কর্মীরাসহ বাজারে গণসংযোগের উদ্দেশ্যে যাচ্ছিলাম। বাজারে আসলে আনারস প্রতীকের প্রার্থী এবং তার সমর্থকরা আমার কর্মীদের ওপর হামলা করলে সংঘর্ষ বেধে যায়। আমি এই হামলাকারীদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণে প্রশাসনকে অনুরোধ করছি।

এ বিষয়ে ফরিদগঞ্জ থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ শহীদ হোসেন বলেন, আচরণবিধি লঙ্ঘন করে শ খানেক মোটরসাইকেল নিয়ে শোভাযাত্রা করছিল আনারস প্রতীকের আবদুল কাদের খোকন ও তার সমর্থকরা। সেখানে বিপরীত দিক থেকে আসা নৌকার মিছিলের মুখোমুখি হলে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। আমি তাৎক্ষণিক ফোর্স নিয়ে ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে নিয়েছি। তিনি আরো জানান, সংঘর্ষে কিছু মোটরসাইকেল ভাঙচুর ও বেশ কয়েকজন আহত হয়েছেন বলে জানতে পেরেছি। আমরা লিখিত অভিযোগ পেলে জড়িতদের বিরুদ্ধে অবশ্যই আইনগত ব্যবস্থা নেব।

এমটিনিউজ২৪.কম এর খবর পেতে Follow করুন এমটিনিউজ২৪ গুগল নিউজ, এমটিনিউজ২৪ টুইটার , এমটিনিউজ২৪ ফেসবুক এবং সাবস্ক্রাইব করুন এমটিনিউজ২৪ ইউটিউব চ্যানেলে