বাংলাদেশের যে মন্ত্রীর সম্বল ছিল টিনের ঘর, গায়ে থাকত ১৪টি সেলাই দেওয়া শাল!

০৩:২৫:০১ বৃহস্পতিবার, ১৪ নভেম্বর ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • সৌম্য-নাঈমের ব্যাটিং তান্ডব, দারুণ ভাবে এগিয়ে যাচ্ছে টাইগাররা     • ভারতের প্রতিটি শহরে হবে গরুর হোস্টেল!     • কিছু বুঝে ওঠার আগেই বোল্ড মুমিনুল     • স্ব-পরিবারে ইসলাম ধর্ম গ্রহণ করলেন জামালপুরের কৃষ্ণ বাবু     • মসজিদ আল হারামের নির্মাণ কাজের সময় ক্রেন দুর্ঘটনায় আহ'ত বাংলাদেশিকে এক কোটি বার লাখ টাকা ক্ষতিপূরণ দিল সৌদি     • রোহিঙ্গা মুসলিমদের ওপর সেনাবাহিনীর নির্যাতন, রোহিঙ্গা ইস্যুতে এই প্রথম সু চির বিরুদ্ধে মামলা     • আমি নিজে থেকে মায়ের বিয়ে দিয়েছি: নুহাশ     • কারাগারে মা'রা গেলেন বিখ্যাত আলেম ও দাঈ শায়খ ফাহাদ     • অতি মহামারিতে রূপ নিচ্ছে ডায়াবেটিস : আক্রান্ত ৪ কোটি!     • শুরুতেই ৫ উইকেট তুলে নিয়ে ইমাজিং এশিয়া কাপে দারুণ খেলছে বাংলাদেশ!

বুধবার, ১৬ অক্টোবর, ২০১৯, ১০:২৩:৪৭

বাংলাদেশের যে মন্ত্রীর সম্বল ছিল টিনের ঘর, গায়ে থাকত ১৪টি সেলাই দেওয়া শাল!

বাংলাদেশের যে মন্ত্রীর সম্বল ছিল টিনের ঘর, গায়ে থাকত ১৪টি সেলাই দেওয়া শাল!

নিউজ ডেস্ক: পাঁচ-পাঁচবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হয়েছিলেন অ্যাডভোকেট ছায়েদুল হক। সর্বশেষ ২০১৪ সালের নির্বাচনে বিজয়ী হওয়ার পর আওয়ামী লীগ সরকারে মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রীর দায়িত্ব পালন করেছেন আওয়ামী লীগের বর্ষীয়ান এই নেতা। ২০১৭ সালের ১৬ ডিসেম্বর মারা যাওয়া ছায়েদুল হকের জীবদ্দশায় সম্বল বলতে ছিল পৈতৃক সূত্রে পাওয়া দুটি টিনের ঘর। ১৪টি সেলাই দিয়ে ২০ বছর একটি শাল পরেছেন জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ঘনিষ্ঠ এই সহচর।

নিজ গ্রাম নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের পূর্বাভাগ গ্রামের উত্তরপাড়ায় রয়েছে পৈতৃক সূত্রে পাওয়া টিনের ঘর দুটি। দীর্ঘদিনের পুরোনো দুই ঘরের একটিতে থাকতেন মন্ত্রী আর অন্যটি ছিল তার বৈঠকখানা। গ্রামের সাধারণ মানুষ ও দলীয় নেতাকর্মীদের সঙ্গে বসে কথা বলতেন বৈঠকখানায়। যদিও মন্ত্রীর ওই ঘরটি স্থানীয়দের কাছে ‘ডাক বাংলো’ হিসেবেই বেশি পরিচিত।

মন্ত্রী ছায়েদুল হকের বাড়িতে গিয়ে দেখা গেছে, পুরনো দুটি টিনের ঘরে শুধুমাত্র দুটি খাট ও কাঠের কিছু ফার্নিচার এবং কয়েকটি প্লাস্টিকের চেয়ার পড়ে আছে। বাড়িতে এলে ওই টিনের ঘরে পুরনো খাটেই ছায়েদুল হক ঘুমাতেন বলে জানিয়েছেন তার নিকট আত্মীয়রা। কোনও কিছুর প্রতি লোভ ছিল না তার।

ছায়েদুল হকের স্বজনরা বলেন, অর্থ-বিত্ত নিয়ে তার কোনও ভাবনা ছিল না। আমাদের শুধু বলতেন, একদিন সবকিছুর হিসাব দিতে হবে। তিনি কখনও অন্যায় কাজ করেননি। মন্ত্রী হয়েও সবসময় সাধারণ মানুষের মতো চলাফেরা করেছেন। গ্রামের মানুষদের তিনি বলতেন, আমি এমপি-মন্ত্রী না, আমি তোমাদের ছায়েদুল হক।

ছায়েদুল হকের বাড়ির তত্ত্বাবধায়ক বানেশ্বর দেবনাথ বলেন, ৫১ বছর ধরে আমি ছায়েদুল হককে চিনি। আজ পর্যন্ত আমি তার কোনও দোষ খুঁজে পাইনি। তার মতো লোক এই জীবনে আর দেখব কি-না, জানি না।

ছায়েদুল হকের দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মী ও নাসিরনগর উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি রাফি উদ্দিন বলেন, ছায়েদুল হকের মতো এমন সৎ নেতার মৃত্যু নেই। তিনি বেঁচে থাকবেন মানুষের হৃদয়ে।

নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের পূর্বাভাগ গ্রামের পশ্চিমপাড়াস্থ কল্লরপাড় পারিবারিক কবরস্থানে বাবা-মায়েরর কবরের মাঝখানে চিরনিদ্রায় শায়িত ছায়েদুল হক। হাওর বেষ্টিত এই উপজেলার সার্বিক উন্নয়নে জড়িয়ে আছে তার নাম। জেলা সদরের সঙ্গে নাসিরনগরের সরাসরি সড়ক যোগাযোগ স্থাপন তার উন্নয়ন কর্মকাণ্ডের এক মাইলফলক। এখনও তার কয়েকশ কোটি টাকার উন্নয়নমূলক কাজ চলমান রয়েছে।

উল্লেখ্য, ছায়েদুল হক ১৯৪২ সালে নাসিরনগর উপজেলার পূর্বভাগ ইউনিয়নের পূর্বভাগ গ্রামের উত্তপাড়ায় জন্মগ্রহণ করেন। হাইকোর্ট ও সুপ্রিমকোর্টের খ্যাতনামা এ আইনজীবী ১৯৭৩, ১৯৯৬, ২০০১ ও ২০০৮ এবং ২০১৪ সালে ব্রাহ্মণবাড়িয়া-১ (নাসিরনগর) আসন থেকে সংসদ সদস্য নির্বাচিত হন। ২০০১ সালের নির্বাচনে চট্টগ্রাম বিভাগে আওয়ামী লীগের ফল বিপর্যয়ের মধ্যেও তিনি বিজয়ী হয়ে চমক দেখিয়েছিলেন।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


মানবজাতির প্রতি পবিত্র কোরআনের অমূল্য উপদেশ

মানবজাতির-প্রতি-পবিত্র-কোরআনের-অমূল্য-উপদেশ

ঘূর্ণিঝড়ের সময় রাসূল (সা.) যা করতে বলেছেন

ঘূর্ণিঝড়ের-সময়-রাসূল-সা-যা-করতে-বলেছেন

৬৫ কোটি টাকায় বিক্রি হলো কোরআন তেলাওয়াতের এই ছবি!

৬৫-কোটি-টাকায়-বিক্রি-হলো-কোরআন-তেলাওয়াতের-এই-ছবি- ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


জলপাই চুল পড়া, ক্যানসার ও হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি কমায়

জলপাই-চুল-পড়া-ক্যানসার-ও-হার্ট-অ্যাটাকের-ঝুঁকি-কমায়

পরীক্ষার চাপ কমাতে শিক্ষার্থীদের ‘কবরে শুয়ে থাকার’ পরামর্শ!

পরীক্ষার-চাপ-কমাতে-শিক্ষার্থীদের-‘কবরে-শুয়ে-থাকার’-পরামর্শ-

লিপস্টিক ব্যবহার করতে গিয়ে সচরাচর যে ভুলগুলো করে বসে নারীরা

লিপস্টিক-ব্যবহার-করতে-গিয়ে-সচরাচর-যে-ভুলগুলো-করে-বসে-নারীরা এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


সুখবর পেলেন নিষিদ্ধ সাকিব

গাজা থেকে রকেট বৃষ্টি শুরু, আ'ত'ঙ্কে দিশেহারা ইসরাইল

কী হয়েছে ওর, বুঝে আসছে না, দরকার হলে ব্রেক: পাপন

খুব সহজে দ্রুত কোটি টাকার মালিক হতে চাইলে করুন এই চার ব্যবসা!

পাঠকই লেখক


৩০ বছর পর দেখা দিলো ‘ইঁদুর-হরিণ’!

৩০-বছর-পর-দেখা-দিলো-‘ইঁদুর-হরিণ’-

এক কাঁকড়ার দাম ৩৯ লাখ টাকা!

এক-কাঁকড়ার-দাম-৩৯-লাখ-টাকা-

সন্তানের আকুল কান্না মৃত্যুর জগত থেকে ফিরিয়ে এনেছে এক মৃত মাকে!

সন্তানের-আকুল-কান্না-মৃত্যুর-জগত-থেকে-ফিরিয়ে-এনেছে-এক-মৃত-মাকে- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ