আজ জেলহত্যা দিবস, জাতীয় চার নেতাকে হারানোর দিন

১২:৫১:৪৫ বৃহস্পতিবার, ২৬ নভেম্বর ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • স্বামী-সন্তান হারিয়েছি, ঈমান ত্যাগ করিনি : নওমুসলিম নারীর আত্মত্যাগের কথা     • সানা খানের স্বামী কে এই মুফতি আনাস, যেভাবে তাদের পরিচয়!     • চাপে ইমরান খান সরকার, ইসরায়েলকে স্বীকৃতির পক্ষে পাকিস্তানের সেনাবাহিনী     • অকাল গর্ভপাতের বেদনা আমাকেও সইতে হয়েছে: রাজ পুত্রবধূ মেগান     • হঠাৎ সড়কে লেখা 'স্যরি', উত্তর খুঁজছে পুলিশ     • থামছেই না ট্রাম্পের পাগলামি, পাঁচ ঘণ্টার ব্যবধানে ঘটালেন আরেক কাণ্ড     • চলতি বছরের এইচএসসি ফলাফল প্রকাশের সময় জানালেন শিক্ষামন্ত্রী     • ওষুধ কিনতে মা চাইলেন টাকা, ছেলে বললেন বিষ কিনে খেতে!     • ভারতে হিন্দু-মুসলমান বিয়ে ঠেকাতে বিজেপির কঠোর আইন     • যেসব দেশের মুসলিমদের আর ভিসা দেবে না সংযুক্ত আরব আমিরাত

মঙ্গলবার, ০৩ নভেম্বর, ২০২০, ১২:১১:৫৪

আজ জেলহত্যা দিবস, জাতীয় চার নেতাকে হারানোর দিন

আজ জেলহত্যা দিবস, জাতীয় চার নেতাকে হারানোর দিন

নিউজ ডেস্ক : ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট সপরিবারে বঙ্গবন্ধুকে হ'ত্যার পর জাতীয় চার নেতাকে বন্দি করে রাখা হয় পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগারে। সেই বছরের ৩ নভেম্বর ঘ'টে ইতিহাসের আরেকটি নি'র্ম'ম ও নৃ'শং'স হ'ত্যাকা'ণ্ড। কারাগারের সেলেই গু'লি করে হ'ত্যা করা হয় বাংলাদেশের প্রথম অস্থায়ী রাষ্ট্রপতি সৈয়দ নজরুল ইসলাম, প্রধানমন্ত্রী তাজউদ্দীন আহমদ, মন্ত্রিসভার সদস্য ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলী এবং এ এইচ এম কামারুজ্জামানকে।

জাতীয় এই চার নেতার স্মরণে আজ মঙ্গলবার নানা আয়োজনে পালিত হবে জেলহ'ত্যা দিবস। এ উপলক্ষে আজ সকাল ৬টায় ধানমণ্ডিতে বঙ্গবন্ধু ভবন ও আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কার্যালয়সহ সারা দেশের দলীয় কার্যালয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা অর্ধনমিতকরণ, কালো পতাকা উত্তোলন এবং কালোব্যাজ ধারণ করা হবে। এরপর রয়েছে বঙ্গবন্ধু ভবনে জমায়েত এবং বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের প্রতিকৃতিতে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ কর্মসূচি। 

সকাল ৮টায় বনানী কবরস্থানে ১৫ই আগস্টের কালরাতে শহীদ ও কারাগারে নিহ'ত জাতীয় নেতাদের কবরে পুষ্পার্ঘ্য অর্পণ, ফাতেহা পাঠ, মিলাদ ও মোনাজাত অনুষ্ঠিত হবে। বিকেল ৩টায় কৃষিবিদ ইনস্টিটিউশন মিলনায়তনে ভার্চুয়াল স্মরণসভায় সভাপতিত্ব করবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। তিনি গণভবন প্রান্ত থেকে যোগ দেবেন। 

এদিকে যে সেলটিতে চার নেতাকে হ'ত্যা করা হয়েছিল, সেখানকার রডে এখনো রয়েছে গু'লির ক্ষ'ত। সেই গু'লির চিহ্ন সংর'ক্ষ'ণ করে সেলটিকে বানানো হয়েছে জাতীয় চার নেতা স্মৃতি জাদুঘর। ওই সেলের খানিকটা দূরে রয়েছে বঙ্গবন্ধু কা'রা স্মৃতি জাদুঘর। 

২০১০ সালের মে মাসে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতার স্মৃতিবিজড়িত কারা জাদুঘর উদ্বোধন করেন। ২০১৩ সালের ২৮ নভেম্বর স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের কারা-২ অধিশাখা এক প্রজ্ঞাপনে বঙ্গবন্ধু ও চার নেতার স্মৃতি জাদুঘরকে জাতীয় জাদুঘরের শাখা হিসেবে ঘোষণা দেয়।

ঘোষণা ছিল, পুরান ঢাকা থেকে কেরানীগঞ্জের কারাগারে ব'ন্দি সরিয়ে নেওয়ার পরপরই বঙ্গবন্ধু ও জাতীয় চার নেতা কারা স্মৃতি জাদুঘর সবার জন্য খুলে দেওয়া হবে। ছয় বছর পেরিয়ে গেলেও জাদুঘরটি উন্মুক্ত করতে পারছে না কারা কর্তৃপক্ষ। ২০১৪ সালের ২৯ জুলাই পুরান ঢাকার নাজিমউদ্দিন রোডের কেন্দ্রীয় কারাগার থেকে সব ব'ন্দিকে সরিয়ে নেওয়া হয় কেরানীগঞ্জের নতুন কারাগারে। 

এ ব্যাপারে কারা মহাপরিদর্শক ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মো. মোমিনুর রহমান মামুন বলেন, প্রকল্পের কাজ শেষ না হওয়ায় জনসাধারণের জন্য জাদুঘর উন্মুক্ত করা যাচ্ছে না। কারা সূত্র জানায়, বঙ্গবন্ধু কারা স্মৃতি জাদুঘরে তাঁর খাবার প্লেট, বিছানাপত্র, চেয়ার, টেবিলসহ নানা জিনিস রাখা আছে। 

জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুর ব্যবহূত চেয়ার, টেবিল, চামচ, হাঁড়ি-পাতিল ছাড়াও রয়েছে তার ম্যুরাল। বঙ্গবন্ধুর গোসলখানা ও রান্নাঘরের অংশও জাদুঘরের অন্তর্ভুক্ত করা হয়েছে। সামনের বকুল চত্বরে নির্মাণ করা হয়েছে ছয় দফার স্মারক স্তম্ভ। বঙ্গবন্ধুর নিজ হাতে লাগানো কামিনী ও সফেদাগাছও রয়েছে সেখানে। ২০১৪ সালের নভেম্বরে জেলহ'ত্যা দিবস উপলক্ষে টিকিটের বিনিময়ে কারা স্মৃতি জাদুঘর দেখার সুযোগ পেয়েছিল দর্শনার্থীরা।

অন্যদিকে নাজিমউদ্দিন রোডের পুরনো কারাগারের প্রধান ফটক পেরিয়ে ভেতরে ঢোকার পর কিছুদূর এগোলেই ডান দিকের রাস্তাটি গেছে শেখ মুজিবুর রহমান কারা স্মৃতি জাদুঘরের দিকে। ফটক পেরিয়ে ভেতরে প্রবেশের পর বাঁ পাশে রয়েছে 'নীল নদ', যেখানে বিদেশি কয়েদিদের রাখা হতো। এর পাশেই রয়েছে 'জাতীয় চার নেতা কারা স্মৃতি জাদুঘর'।

জাদুঘরে প্রবেশ ফটকের ডান পাশে রয়েছে উঁচু একটি বেদি, যেখানে জাতীয় চার নেতাকে হ'ত্যার পর দীর্ঘ সময় ফেলে রাখা হয়েছিল। সবুজ রং করা বেদির ওপর লাল রং করা হয়েছে, যা দিয়ে রক্তের ছাপ বোঝানো হয়েছে। ফটক পেরিয়ে সামনে রয়েছে চার নেতার ভাস্কর্য। যার প্রতিটির নিচে লেখা রয়েছে তাঁদের সংক্ষিপ্ত পরিচয় ও রাজনৈতিক জীবন। ভাস্কর্যগুলোর পাশেই রয়েছে তিন কক্ষের একটি ভবন, যার নামকরণ করা হয়েছে মৃ'ত্যুঞ্জ'য়ী শহীদ স্মৃতিকক্ষ। 

এই তিন কক্ষে ছিলেন জাতীয় চার নেতা। এখানেই তাদের হ'ত্যা করা হয়। ভবনের প্রথম কক্ষটি সৈয়দ নজরুল ইসলাম ও তাজউদ্দীন আহমদের নামে। দ্বিতীয় ও তৃতীয় কক্ষটি নামকরণ করা হয়েছে যথাক্রমে এ এইচ এম কামারুজ্জামান ও ক্যাপ্টেন এম মনসুর আলীর নামে। প্রতিটি কক্ষেই রয়েছে তাদের ব্যবহৃত আসবাব। কারাজীবনে ব্যবহৃত তাদের প্রায় প্রতিটি জিনিস আলাদা রাখা হয়েছে।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


স্বামী-সন্তান হারিয়েছি, ঈমান ত্যাগ করিনি : নওমুসলিম নারীর আত্মত্যাগের কথা

স্বামী-সন্তান-হারিয়েছি-ঈমান-ত্যাগ-করিনি-নওমুসলিম-নারীর-আত্মত্যাগের-কথা

পবিত্র কাবা দৃষ্টিগোচর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে আমাদের অনেকেই কেঁদে ফেললেন

পবিত্র-কাবা-দৃষ্টিগোচর-হওয়ার-সঙ্গে-সঙ্গে-আমাদের-অনেকেই-কেঁদে-ফেললেন

পবিত্র কোরআনে বর্ণিত ত্বীন এখন চাষ হচ্ছে গাজীপুরের বারতোপা গ্রামে

পবিত্র-কোরআনে-বর্ণিত-ত্বীন-এখন-চাষ-হচ্ছে-গাজীপুরের-বারতোপা-গ্রামে ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


তিন বউ মিলে ২২ বছর বয়সী স্বামীর জন্য চতুর্থ বিয়ের পাত্রী খুঁজছেন!

তিন-বউ-মিলে-২২-বছর-বয়সী-স্বামীর-জন্য-চতুর্থ-বিয়ের-পাত্রী-খুঁজছেন-

সাল ১৯৪৭ : দেশভাগের নেপথ্যে যে ঐতিহাসিক প্রেমকাহিনী

সাল-১৯৪৭-দেশভাগের-নেপথ্যে-যে-ঐতিহাসিক-প্রেমকাহিনী

করোনা থেকে হচ্ছে হার্ট অ্যাটাক!

করোনা-থেকে-হচ্ছে-হার্ট-অ্যাটাক- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


'কানাডার বেগমপাড়ার সাহেবদের ধরার নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী'

আইসিসির দশক সেরা ক্রিকেটারের তালিকা প্রকাশ

বিয়ের পর নাম পরিবর্তন করলেন সানা খান

'কল্পনাও করিনি প্রধানমন্ত্রী আমাকে এই জায়গায় আসন দেবেন'

বিচিত্র জগৎ


জানাজা শেষে মুচকি হেসে বাসায় ফিরতো বাপ্পি, রাত হলেই কবরের লাশ তুলে বাসায় নিতো!

জানাজা-শেষে-মুচকি-হেসে-বাসায়-ফিরতো-বাপ্পি-রাত-হলেই-কবরের-লাশ-তুলে-বাসায়-নিতো-

৭৫ বছর বয়সী প্রেমজি প্রতিদিন ২৫ কোটি টাকা দান করেন!

৭৫-বছর-বয়সী-প্রেমজি-প্রতিদিন-২৫-কোটি-টাকা-দান-করেন-

'৪৯ বছর বয়সেই সারা বিশ্বে ১৫০ শিশুর বাবা আমি!'

-৪৯-বছর-বয়সেই-সারা-বিশ্বে-১৫০-শিশুর-বাবা-আমি-- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ