হত্যাকাণ্ডের পর নিয়মিত ওয়াক্তের নামাজে ইমামতিও করেন মসজিদের ইমাম!

০৩:১৫:৫১ রবিবার, ১৩ জুন ২০২১

সর্বশেষ সংবাদ :

     • এসএসসি ও এইচএসসি পরীক্ষা নিতে না পারলে বিকল্প চিন্তা-ভাবনা: শিক্ষামন্ত্রী     • মাত্র একজনের দেহে করোনা শনাক্তের পর ভুটানের রাজধানী লকডাউনে     • সাকিবের শাস্তি মওকুফের জন্য সিসিডিএম এর কাছে আবেদন করেছে মোহামেডান     • আগে তো প্রধানমন্ত্রীকে খুশির খবরটা জানাতে হবে: রেলমন্ত্রী     • সাড়ে চার শ বছরেরও বেশি সময় রাত-দিন ২৪ ঘণ্টা কোরআন তিলাওয়াত হচ্ছে তোপকাপি প্রাসাদে     • ভারতে করোনা পরিস্থিতি ; দীর্ঘ ৭০ দিন পর কমল সংক্রমণ ও মৃত্যু     • মুকুল রায় তৃণমূলে ফিরতেই ‘খেলা শুরু’, বড় বেকায়দায় বিজেপি!     • মানুষের ঢল কানাডার সেই মুসলিম পরিবারের জানাজায়      • নেতানিয়াহুর ১০ বছরের কারাদণ্ড হতে পারে!     • ফিলিস্তিনি নারীকে গুলি করে ফেলে রাখল ইসরাইলি সেনারা!

বুধবার, ২৬ মে, ২০২১, ০৫:৫২:৫৬

হত্যাকাণ্ডের পর নিয়মিত ওয়াক্তের নামাজে ইমামতিও করেন মসজিদের ইমাম!

হত্যাকাণ্ডের পর নিয়মিত ওয়াক্তের নামাজে ইমামতিও করেন মসজিদের ইমাম!

স্ত্রীর প্রতি কুনজর ছিল জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমানের। বিষয়টি জানার পর ইমামকে নিষেধ করতে মসজিদে গিয়েছিলেন স্বামী আজহার। সেখানে বাগবিতণ্ডার এক পর্যায়ে ধারালো ছুরি দিয়ে আজহারের গলায় আঘাত করেন ইমাম। এভাবে হত্যার পর মরদেহ ছয় টুকরা করে মসজিদের সেপটিক ট্যাংকে লুকিয়ে রাখেন ওই ইমাম।

ঘটনাটি ঘটেছে রাজধানীর দক্ষিণখানে সরদারবাড়ি জামে মসজিদে। গতকাল মঙ্গলবার ভোরে ওই মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে উদ্ধার করা হয় ছয় টুকরা লাশ। গ্রেপ্তার করা হয় অভিযুক্ত মাওলানা আব্দুর রহমানকে। জব্দ করা হয় হত্যায় ব্যবহৃত পশু জবাই করার তিনটি চাকু। এ ঘটনায় নিহতের স্ত্রীকেও আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে।

সরেজমিনে গতকাল দুপুরে ওই মসজিদের সামনে গিয়ে স্থানীয় মুসল্লি ও অন্যদের সঙ্গে কথা হয় এই প্রতিবেদকের। এ সময় কয়েকজন মুসল্লি বলেন, ‘মাওলানা আব্দুর রহমান ৩৩ বছর ধরে এই মসজিদে ইমামতি করছেন। প্রতি ওয়াক্তে আমরা এই হুজুরের পেছনে নামাজ পড়ি। এখন শুনছি অন্যের স্ত্রীর প্রতি কুনজর দেওয়ার জের ধরে হুজুর একজনকে খুন করে লাশ ছয় টুকরা করে মসজিদের ওজুখানার ট্যাংকের ভেতরে লুকিয়ে রেখেছিলেন। বিষয়টি ভাবতে গিয়েও গা শিউরে উঠছে।’

বিভিন্ন সূত্রের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, স্ত্রীর ওপর ইমামের কুনজর পড়ার অভিযোগ পেয়ে গত ১৯ মে রাতে সরদারবাড়ি জামে মসজিদে ইমামের কক্ষে যাওয়ার পর থেকেই আজহার নিখোঁজ ছিলেন। পরিবারের অভিযোগের ভিত্তিতে এ বিষয়ে অনুসন্ধান শুরু করে আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী। একপর্যায়ে মসজিদের সিঁড়িতে রক্তের দাগ ও সেপটিক ট্যাংক থেকে দুর্গন্ধ বের হওয়ার তথ্য পায় র‌্যাব। গতকাল ভোরে ইমামকে আটক করে জিজ্ঞাসাবাদ করলে হত্যার ঘটনা বেরিয়ে আসে।

গতকাল দুপুরের দিকে এলাকায় গেলে সরদারবাড়ি জামে মসজিদের সামনে স্থানীয় মুসল্লিসহ এলাকাবাসীর ভিড় দেখা যায়। দোতলা ভবনবিশিষ্ট মসজিদের এক পাশ তালাবদ্ধ। অন্য পাশ নামাজের জন্য খোলা। নিচতলার ওজুখানার পানির ট্যাংকের ভেতর থেকেই আজহারের ছয় টুকরো লাশ উদ্ধার করা হয়। সেখানে উপস্থিত মো. মোস্তফা নামের এক মুরব্বি বলেন, সকালে দুর্গন্ধ পাওয়া যায় মসজিদে। এ নিয়ে কানাকানি শুরু হয়। একপর্যায়ে তা জেনে পুলিশ ও র‌্যাব এসে ছয় টুকরা লাশ উদ্ধার করে। পরে হুজুরকে গ্রেপ্তার করে নিয়ে যায় র‌্যাব। রিফাত নামের আরেক মুসল্লি বলেন, ‘ঠিক কখন আজহারকে খুন করা হয় তা আমরা জানি না। তবে হত্যার পর লাশ মসজিদের ভেতরে রেখেই ইমাম সাহেব আমাদের নামাজ পড়ান বলে মনে হচ্ছে।’

রাজধানীর কারওয়ান বাজারে র‌্যাবের মিডিয়া সেন্টারে গতকাল বিকেলে সংবাদ সম্মেলনে চাঞ্চল্যকর এই হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে বিভিন্ন তথ্য তুলে ধরেন র‌্যাব-১-এর পরিচালক (সিও) লে. কর্নেল আব্দুল মুত্তাকিম। তিনি বলেন, র‌্যাব হেফাজতে জিজ্ঞাসাবাদে ইমাম আব্দুর রহমান আজহারকে হত্যার দায় স্বীকার করেন। ইমাম রহমান র‌্যাবের জিজ্ঞাসাবাদে বলেছেন, আজহার অভিযোগ করছিলেন যে তাঁর স্ত্রীর দিকে ইমামের কুনজর রয়েছে। এ নিয়ে বাগবিতণ্ডায় তিনি আজহারকে হত্যা করেন। তবে আজহারের স্ত্রীর সঙ্গে কোনো সম্পর্ক থাকার কথা অস্বীকার করেন ইমাম।

আব্দুল মুত্তাকিম বলেন, প্রাথমিক তদন্তে র‌্যাব জানতে পেরেছে যে দক্ষিণখানের বাসিন্দা আজহারের স্ত্রীর প্রতি কুনজর ছিল ইমাম মাওলানা আব্দুর রহমানের। বিষয়টি জানার পর ইমামকে নিষেধ করতে মসজিদে গিয়েই খুন হন আজহার। ইমাম পুরো হত্যাকাণ্ডটি ঘটান মসজিদে তাঁর শয়নকক্ষে। এই হত্যাকাণ্ড ঘটানোর পরও ইমাম মসজিদে নিজ কক্ষেই অবস্থান করেন। তিনি নিয়মিত ওয়াক্তের নামাজে ইমামতিও করেন।

র‌্যাব বলে, ‘নিহত আজহারের ছেলে আরিয়ান ওই মসজিদের মক্তবে পড়ত। আজহারও এই ইমামের কাছে কোরআন শিখতেন। সেই সুবাদে তাঁদের মধ্যে একটি পারিবারিক সম্পর্ক ছিল। ওই ঘটনার এক দিন আগে আজহারের স্ত্রী আছমা গ্রামের বাড়ি টাঙ্গাইলে চলে যান। কিছু সময় আগে নিহতের স্ত্রীকে আমাদের হেফাজতে নিয়েছি। হত্যাকাণ্ডে তাঁর কোনো সংশ্লিষ্টতা আছে কি না, তা জানতে তাঁকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। এ ব্যাপারে বিস্তারিত তথ্য পরে জানানো সম্ভব হবে।’

ধারালো অস্ত্রগুলো কিভাবে মসজিদে এলো, জানতে চাইলে আব্দুল মুত্তাকিম বলেন, তিনি (ইমাম) দীর্ঘদিন ধরে ওই মসজিদে চাকরি করতেন। কোরবানির সময় পশু জবাই করার জন্য তিনি এগুলো মসজিদে নিজের জিম্মায় রাখতেন। সেই অস্ত্র দিয়েই এই হত্যাকাণ্ড ঘটানো হয়েছে।

র‌্যাব-পুলিশ যা বলছে : আজহার হত্যাকাণ্ডের তদন্তে ইমাম আব্দুর রহমানের সঙ্গে নিহতের স্ত্রীর পরকীয়া প্রেমের সম্পর্কের তথ্য বেরিয়ে এসেছে বলে র‌্যাব-পুলিশের সূত্র দাবি করেছে। সূত্র বলছে, স্ত্রী-সন্তান নিয়ে দক্ষিণখানের মধুবাগ এলাকায় ইউসুফ গাজীর ৩৯ নম্বর বাসায় ভাড়া থাকতেন নিহত আজহার। বাসায় আসা-যাওয়ার সূত্র ধরেই ইমামের সঙ্গে সম্পর্ক হয় তাঁর স্ত্রীর। অন্তত এক বছর ধরে এই সম্পর্ক চলছিল। আজহার বিষয়টি টের পেয়ে পাঁচ মাস আগে বাসাও বদল করেন। ২০ দিন আগেও ইমাম ও আজহারের স্ত্রীর সাক্ষাৎ হয়। বিষয়টি জানতে পেরে আজহার স্ত্রী-সন্তানকে নিয়ে তাঁর নিজ বাড়ি টাঙ্গাইলের কালিহাতীতে চলে যান। এরপর কালিহাতী থেকে ইমামকে ফোন করে তাঁদের মধ্যে সম্পর্কের বিষয়টি জানতে চাইলে ইমাম অস্বীকার করেন। ইমাম বিষয়টি নিয়ে কথা বলতে আজহারকে মসজিদে আসতে বলেন। সে অনুযায়ী ইমামের সঙ্গে দেখা করতে গত ১৯ মে দক্ষিণখানে সরদারবাড়ি মসজিদে আসার পর নিখোঁজ হন আজহার।

এ ঘটনা তদন্তের একপর্যায়ে দক্ষিণখানে মাদরাসাতুর রহমান আল আরাবিয়া থেকে আব্দুর রহমানকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তাঁর দেওয়া তথ্যের ভিত্তিতে সরদারবাড়ি জামে মসজিদের সেপটিক ট্যাংক থেকে আজহারের লাশ উদ্ধার করা হয়।

দক্ষিণখান থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আজিজুল হক মিয়া বলেন, এ ঘটনায় পরকীয়া প্রেমের সম্পর্ক বিষয়ে অনেক তথ্য পাওয়া গেছে।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


হাজার বছরের পুরনো পবিত্র কোরআনের ১৭টি প্রাচীন কপি সংগ্রহ

হাজার-বছরের-পুরনো-পবিত্র-কোরআনের-১৭টি-প্রাচীন-কপি-সংগ্রহ

রেডিও শুনে শুনে পবিত্র কোরাআনের হাফেজ হলেন মরু রাখাল

রেডিও-শুনে-শুনে-পবিত্র-কোরাআনের-হাফেজ-হলেন-মরু-রাখাল

স্বর্ণের পাতায় লেখা পবিত্র কোরআন, মূল্য এক কোটি ১৫ লাখ টাকা

স্বর্ণের-পাতায়-লেখা-পবিত্র-কোরআন-মূল্য-এক-কোটি-১৫-লাখ-টাকা ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


দুই কারণে জাপানীরা সবচেয়ে বেশি দিন বাঁচে! তাদের এই দীর্ঘায়ুর রহস্য জানলে চমকে যাবেন!

দুই-কারণে-জাপানীরা-সবচেয়ে-বেশি-দিন-বাঁচে--তাদের-এই-দীর্ঘায়ুর-রহস্য-জানলে-চমকে-যাবেন-

বাসায় আগুন লাগলে প্রথম যে কাজটি করবেন! তাড়াহুড়ায় অনেকেই যে ভুল কাজটি করেন

বাসায়-আগুন-লাগলে-প্রথম-যে-কাজটি-করবেন--তাড়াহুড়ায়-অনেকেই-যে-ভুল-কাজটি-করেন

নামকরা সংস্থার চাকরি ছেড়ে গরুর খামারি, বছরে আয় ৪৪ কোটি

নামকরা-সংস্থার-চাকরি-ছেড়ে-গরুর-খামারি-বছরে-আয়-৪৪-কোটি এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


ভুলের জন্য ক্ষমা চাইছি, ভবিষ্যতে কখনই আর এমন কাজ করব না: সাকিব

অন্যায়ের বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়িয়েছে সাকিব : শিশির

বাড়ির আঙিনায় বিশাল গর্ত, গুপ্তধন পেয়ে উধাও সবাই!

ক্রিকেটে এমন ঘটনা এটাই প্রথম নয়, সাকিবের আগে লাথি মেরে স্টাম্প ভেঙেছিলেন যিনি!

বিচিত্র জগৎ


কাজ করিয়ে পুরো টাকা না দেওয়ায় মালিকের ৬ কোটির বাড়ি গুঁড়িয়ে দিলেন মিস্ত্রি!

কাজ-করিয়ে-পুরো-টাকা-না-দেওয়ায়-মালিকের-৬-কোটির-বাড়ি-গুঁড়িয়ে-দিলেন-মিস্ত্রি-

গোটা পরিবারের সামনে ২৮ জন স্ত্রীকে সাক্ষী রেখে ৩৭তম বিয়ে করলেন এই ব্যক্তি!

গোটা-পরিবারের-সামনে-২৮-জন-স্ত্রীকে-সাক্ষী-রেখে-৩৭তম-বিয়ে-করলেন-এই-ব্যক্তি-

একই সাথে ১০ সন্তানের জন্ম দিয়ে গিনেস রেকর্ড!

একই-সাথে-১০-সন্তানের-জন্ম-দিয়ে-গিনেস-রেকর্ড- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ