ইডেনে থাকছেন বাংলাদেশের সেই ঐতিহাসিক স্কোয়াডের ধর্ম বদল করা অভিমানী ক্রিকেটার

০৬:২২:৫২ শনিবার, ০৪ জুলাই ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • সুশান্তের মৃত্যু র'হস্যে ফেঁ'সে যাচ্ছেন আদিত্যর ছেলে সুর্য পাঞ্চোলি     • করোনার অবসরে পূর্ণ কোরআন মুখস্ত করলেন গৃহিণী নাসমা     • পরিচয় মিলেছে কানাডার প্রধানমন্ত্রীর বাসভবনে আ'টক সশ'স্ত্র সেনার     • ইসরাইল ইসলামের শ'ত্রু, মুসলিমদের ঐক্যবদ্ধ হয়ে ইহুদিদের রু'খতে হবে: মাহাথির     • লাদাখের পর এবার রাশিয়ার শহর নিজের বলে দাবি করলো চীন     • মাশরাফির আবারো করোনা পজিটিভ      • ৭ মাসের ভাড়া দিয়ে ঢাকা ছাড়লেন তাসনিয়া!     • ‘মসজিদে প্রথম কাতারে বসবেন অফিসাররা’, নোটিশ নিয়ে তোলপাড়!     • করোনা থেকে বাঁচতে 'স্বর্ণের মাস্ক', দাম ৩ লাখ ২৮ হাজার টাকা!     • এবার ট্রাম্পের পরিবারে করোনার হানা

সোমবার, ১৮ নভেম্বর, ২০১৯, ১০:০৫:১৫

ইডেনে থাকছেন বাংলাদেশের সেই ঐতিহাসিক স্কোয়াডের ধর্ম বদল করা অভিমানী ক্রিকেটার

ইডেনে থাকছেন বাংলাদেশের সেই ঐতিহাসিক স্কোয়াডের ধর্ম বদল করা অভিমানী ক্রিকেটার

স্পোর্টস ডেস্ক: রেকর্ড বই বলছে, ‘সদাগোপান রমেশ বোল্ড রঞ্জন দাস ৫৮।’ এই পরিসংখ্যানটুকু বাদ দিলে আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে তাঁকে চেনার, জানার আর কোনও উপায় নেই। কী করেই বা থাকবে! 

সেই ২০০০ সালের ১০ নভেম্বর-এর ভারত-বাংলাদেশ প্রথম টেস্ট ম্যাচটাই যে তার জীবনের প্রথম এবং শেষ আন্তর্জাতিক ম্যাচ। তিনি বিকাশরঞ্জন দাস। দারুণ সম্ভাবনা নিয়ে এসেছিলেন রঞ্জন। ১৮ বছর বয়সে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলতে নেমেছিলেন ভারতের বিরুদ্ধে। 

সেটা ছিল বাংলাদেশ ক্রিকেটের এক ঐতিহাসিক দিন। নাবালকত্ব ছেড়ে সাবালকত্বের পথে পা বাড়িয়েছিল পদ্মাপাড়ের ক্রিকেট। অনেকেই তখন বলেছিলেন, লম্বা দৌড়ের মশলা রয়েছে বিকাশের মধ্যে। ঠিকঠাক রাস্তা ধরে এগোলে বাঁ হাতি পেসার সৌরভ ছড়াতেই পারতেন দেশের ক্রিকেটে।   

কিন্তু যা ভাবা হয়, তা সব সময় মেলে না। ফুল হয়ে ফোটার আগেই ঝরে যেতে হয় বিকাশকে। ‘বিকাশ’ নামের অস্তিত্ব এখন আর নেই। সে দিনের বিকাশরঞ্জন দাস ব্যক্তিগত জীবনে বদলে ফেলেছেন ধর্ম। হয়ে গিয়েছেন মাহমুদুল হাসান। 

ক্রিকেটারের পরিবর্তে এখন তিনি ব্যাঙ্কের ম্যানেজার। ব্যস্ততার মধ্যে কাটে প্রতিটা দিন। এ হেন মানুষটার সঙ্গে যখন যোগাযোগ করা হল, তখন তিনি ভারতে আসার ভিসা সবেমাত্র হাতে পেয়েছেন।

তিনি বললেন, ২১ তারিখ ভারতের বিমানে উঠছি। ২২ তারিখ ইডেন গার্ডেন্সে দেখা হবে দাদার (সৌরভ) সঙ্গে। ১৯ বছর আগে সৌরভের সাথে শেষ বার খেলেছি। তারপরে আর দেখা হয়নি ওর সঙ্গে। এ বার আবার দেখা হবে। দাদা দারুণ একটা উদ্যোগ নিয়েছে। আমাদের কথা যে ভুলে যাননি, তাতেই প্রমাণিত সৌরভ অনেক বড় মাপের মানুষ। 

২০০০ সালে টেস্ট খেলার স্বীকৃতি পায় বাংলাদেশ। সৌরভের নেতৃত্বে ভারত গিয়েছিল সে দেশে। সাবেক সেই ভারত অধিনায়ক এখন দেশটির বোর্ড প্রেসিডেন্ট। টেস্ট ক্রিকেটের গরিমা ফেরাতে দারুণ এক উদ্যোগ নিয়েছেন তিনি। ভারত-বাংলাদেশ দ্বিতীয় টেস্ট হবে ইডেনে। বোর্ড প্রেসিডেন্ট আমন্ত্রণ জানিয়েছেন বাংলাদেশের হয়ে প্রথম টেস্ট ম্যাচ খেলা ক্রিকেটারদের। 

প্রিয় ‘দাদা’র কাছ থেকে আমন্ত্রণ পেয়ে নস্ট্যালজিক বিকাশ। ফিরে যাচ্ছেন ১৯ বছর আগের সেই ঐতিহাসিক দিনে। ঢাকার ইস্টার্ন ব্যাঙ্ক লিমিটেডের ব্র্যাঞ্চ ম্যানেজার বলছেন, “সেই মধুর স্মৃতি কী করে ভুলব বলুন তো! শান্ত (হাসিবুল হোসেন) ভাই প্রথম ওভার করেছিল। আর এক প্রান্ত থেকে আমি শুরু করেছিলাম। প্রথম বলটা করেছিলাম সদাগোপান রমেশকে।”

বিকাশের জোরের উপরে ধেয়ে আসা বলটাই মৃ'ত্যু প'রো'য়ানা নিয়ে হাজির হয় রমেশের কাছে। টাইম মেশিনের সাহায্য না নিয়ে বিকাশ ফিরে যান ২০০০ সালের সেই প্রথম টেস্টে। 

তিনি বলছিলেন, ‘একটু জোরের উপরেই বলটা রেখেছিলাম। বাড়তি বাউন্সে বল রমেশের ব্যাটে লেগে স্টাম্পে লাগে। একটু পরেই আম্পায়ার স্টিভ বাকনার এগিয়ে এসে আমার হাতে বেলটা তুলে দিয়ে বলেন, এটা যত্ন করে রেখে দিও। এটা তোমার প্রথম টেস্ট উইকেটের স্মৃতি। বেলটা হাতে নিয়ে দেখলাম ভেঙে গিয়েছে।’ 

সেই বেল এখনও বিকাশের শো কেসে সযত্নে সাজানো রয়েছে। অভিষেক টেস্টের সেই স্মারকের দিকে তাকালে অদ্ভুত এক ভাল লাগা কাজ করে তার। সেই সঙ্গে য'ন্ত্র'ণায় মো'চ'ড় দিয়ে ওঠে তার বুক। শুরুতেই কেন শেষ হয়ে গেল প্রতিশ্রুতি জাগানো একটা কেরিয়ার?

সেই প্রশ্নের ব্যাখ্যা দিয়ে বিকাশ বলছেন, ‘ঘরোয়া ক্রিকেটে নাগাড়ে বল করে যেতাম। পিঠে ব্যথা অনুভব করতাম। কেউ সে ভাবে আমাকে গাইড করার ছিল না। ওই পিঠের চোটই আমার কেরিয়ার শেষ করে দিল।’

কথাগুলো এক নিঃশ্বাসে শেষ করে উঠেই প্রাক্তন বাঁ হাতি পেসারের প্রশ্ন, ‘আপনাদের বুমরাও তো চো'টের ক'ব'লে। তাকে ফেরানোর জন্য চেষ্টা করছে না বিসিসিআই?’ চো'ট-আ'ঘা'ত ফাস্ট বোলারের জীবনে বি'ভী'ষি'কা। চো'ট সারিয়ে ফিরে আসার ল'ড়া'ইটা একজন ফাস্ট বোলারের কাছে আরও ক'ঠি'ন। সংশ্লিষ্ট ক্রিকেট বোর্ডের সাহায্যের দরকার পড়ে। 

বিকাশের অভিমান তার দিকে সেই সময়ে সাহায্যের হাত বাড়িয়ে দেয়নি বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড। অবহেলিত বিকাশ অভিমানের বাষ্প গলায় জড়িয়ে বলছেন, “অস্ট্রেলিয়ায় কমনওয়েলথ ব্যাঙ্ক টুর্নামেন্ট খেলতে গিয়ে শচীন টেন্ডুলকার ও অজিত আগারকারের সঙ্গে দেখা হয়েছিল। পরে জানতে পারি চো'ট সারানোর জন্য বোর্ড ওদের অস্ট্রেলিয়ায় পাঠিয়েছে। আমিও আমাদের দেশের বোর্ডের শ'র'ণা'প'ন্ন হয়েছিলাম। দুঃ'খের কথা, কোনও সহযোগিতাই পাইনি। তখন ঠিকঠাক সাহায্য পেলে আমাকে হয়তো খেলা ছাড়তে হত না।’

সেই ক'ষ্ট বু'কে চেপে রেখে দিয়েছেন বিকাশ। বোর্ডের প্রতি অ'ভি'মা'ন এখনও রয়েছে। বলছিলেন, “যে তোমাকে সার্ভিস দেবে, তাকে তো যত্ন করতে হয়।’ সেই যত্নটাই পাননি বলে অভিযোগ তার। বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের প্রতি তী'ব্র অ'ভিমা'নে আর যোগাযোগও রাখেননি। 

কথায় বলে, দৃষ্টির আড়াল হলে, স্মৃতি থেকেও নাকি মুছে যাওয়া হয়। বিকাশকেও হয়তো ভুলেই গিয়েছিল সে দেশের বোর্ড। না হলে সৌরভের আমন্ত্রণের কথা তাকে কেন জানাল না কেন বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড? দেশের প্রাক্তন অধিনায়ক হাবিবুল বাশারের কাছ থেকেই প্রথম তিনি জানতে পারেন ইডেনে আসার আমন্ত্রণ জানিয়েছেন 'দাদা'।

দ্বিতীয় টেস্টের জন্য সেজে উঠছে কলকাতা। শহর মোড়ানো হবে গোলাপি আলোয়। ইডেনে বসবে চাঁদের হাট। ইতিহাস তৈরির ম্যাচে ভারতকে কি বে'গ দিতে পারবে বাংলাদেশ? ইনদওরে মাত্র তিনদিনেই টেস্ট ম্যাচ জিতে নিয়েছে ভারত। দ্বিতীয় টেস্টে তো আরও ঝ'ড়ঝ'ঞ্ঝা বইবে বাংলাদেশের উপর দিয়ে! খেলতে হবে সম্পূর্ণ অপিরিচিত গোলাপি বলে। 

শামি-ইশান্তদের মোকাবিলা করতে হবে ফ্লাডলাইটের আলোয়। কাজটা কতটা কঠিন? বিকাশ বলছেন, “ভারতের মাটিতে দক্ষিণ আফ্রিকাও তো কয়েকদিন আগে বি'ধ্ব'স্ত হল। খুবই শ'ক্তিশা'লী দল ভারত। বিশ্বের সেরা বোলার রয়েছে ভারতের এই দলটায়। বাংলাদেশ আরও ভাল খেলতেই পারত। তবে এটাও তো ভাবতে হবে, পুরো শক্তির দল নিয়ে যেতে পারেনি বাংলাদেশ। আশা করি ইডেনে লড়াই হবে। দিন-রাতের টেস্ট উপভোগ করবেন সবাই।’’

শুক্রবারের ভরা ইডেন আ'বে'গতা'ড়িত করে তুলতে পারে বিকাশকে। ফিরিয়ে দিতে পারে ১৯ বছর আগের সোনা রোদ্দুর। কল্পচোখে তিনি দেখতেই পারেন ১৮ বছরের এক তরুণ প্রতিভা বল হাতে ছুটছেন বঙ্গবন্ধুতে। তার বি'ষা'ক্ত ছো'ব'লে মাটিতে গড়াগড়ি খাচ্ছে রমেশের উইকেট। কে বলে ক্রিকেট কে'ড়ে নেয়! মন ভাল করা অনেক স্মৃতিও তো ফিরিয়ে দেয় ক্রিকেট। সূত্র : আনন্দবাজার   



ইসলাম


করোনার অবসরে পূর্ণ কোরআন মুখস্ত করলেন গৃহিণী নাসমা

করোনার-অবসরে-পূর্ণ-কোরআন-মুখস্ত-করলেন-গৃহিণী-নাসমা

কোরআন ছাড়া এক পা এগোনো মানুষের জন্য মঙ্গলজনক নয়

কোরআন-ছাড়া-এক-পা-এগোনো-মানুষের-জন্য-মঙ্গলজনক-নয়

কাবা শরিফ চত্বরে সালাতুল কুসুফ আদায়

কাবা-শরিফ-চত্বরে-সালাতুল-কুসুফ-আদায় ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


ইরানের যেসব দর্শনীয় স্থান দেখে বিশ্বের পর্যটকেরা মুগ্ধ হন

ইরানের-যেসব-দর্শনীয়-স্থান-দেখে-বিশ্বের-পর্যটকেরা-মুগ্ধ-হন

জানেন কি, বাড়িতে করোনা নিয়ে আসতে পারে জুতাও! জেনে নিন বাঁচার উপায়

জানেন-কি-বাড়িতে-করোনা-নিয়ে-আসতে-পারে-জুতাও--জেনে-নিন-বাঁচার-উপায়

দুটি পাথরে ভাগ্য বদল, শ্রমিক থেকে এক দিনেই ৩০ কোটি টাকার মালিক!

দুটি-পাথরে-ভাগ্য-বদল-শ্রমিক-থেকে-এক-দিনেই-৩০-কোটি-টাকার-মালিক- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


করোনা রোগীদের জন্য অ্যাম্বুলেন্স দান করলেন সালাহ

দুর্দান্ত কারিশমায় চ্যাম্পিয়ন লিভারপুলকে গুনে গুনে ঠিক হালি গোল দিল ম্যান সিটি!

কোরআন ছাড়া এক পা এগোনো মানুষের জন্য মঙ্গলজনক নয়

সাকিব শতাব্দীর দ্বিতীয় সেরা ক্রিকেটার নির্বাচিত

বিচিত্র জগৎ


নিজেকে নারী বলেই জানতেন অথচ তিরিশ বছর পর জানা গেল তারা দু’বোন আসলে পুরুষ!

নিজেকে-নারী-বলেই-জানতেন-অথচ-তিরিশ-বছর-পর-জানা-গেল-তারা-দু’বোন-আসলে-পুরুষ-

সন্তানদের মৃত্যু দেখে বেঁচে থাকার ইচ্ছেটুকুই হারিয়ে ফেলল এক মা হাঁস!

সন্তানদের-মৃত্যু-দেখে-বেঁচে-থাকার-ইচ্ছেটুকুই-হারিয়ে-ফেলল-এক-মা-হাঁস-

গুলশানের ফ্ল্যাটে ঢুকে খাবার দেখেই ৩ দিন কাটিয়ে দিল চোর, ফ্ল্যাটের মালিক দেখলেন যুক্তরাষ্ট্রে বসে - অতঃপর…

গুলশানের-ফ্ল্যাটে-ঢুকে-খাবার-দেখেই-৩-দিন-কাটিয়ে-দিল-চোর-ফ্ল্যাটের-মালিক-দেখলেন-যুক্তরাষ্ট্রে-বসে-অতঃপর… বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ