হে আল্লাহ আমাদের রহমত করুন: মাশরাফি

০৬:৫১:৫৯ সোমবার, ৩০ মার্চ ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • সিএনজি চালকের ছেলে হয়েও আমিনুল ইসলাম বিল্পব দিলেন ৫০ কোটির সমতুল্য অনুদান!     • ৩৩০০ নয়, চীনের উহানে করোনায় প্রকৃত মৃত্যুর সংখ্যা ৪২ হাজার!      • এক ঘণ্টার ব্যবধানে বাবা-ছেলের মৃ'ত্যুতে সীতাহরণ গ্রামে আত'ঙ্ক     • আমেরিকায় করোনা অ্যাপ তৈরি করে সাড়া ফেলে দিয়েছেন বাংলাদেশি ছাত্র     • পাকিস্তানে তাবলীগ জামাতে গিয়ে করোনায় আক্রা'ন্ত ২৭     • আর কতদিন চলবে করোনা মহামা'রী, জেনে নিন গাণিতিক পরিসংখ্যান     • করোনার ভয়, আদরের সন্তানকে বুকে জড়িয়ে ধরতে না পেরে কাঁদছেন চিকিৎসক     • দেশের সকল শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের চলমান ছুটি বাড়তে পারে ঈদ পর্যন্ত     • করোনায় কাঁপছে বিশ্ব, উল্টো ব্যবসা বাণিজ্যে ফুলে ফেঁপে উঠছে চীন     • করোনা আ'তঙ্কের মধ্য পরপর দুই বার ভূমিকম্পে কেঁপে উঠলো ভারত

সোমবার, ২৩ মার্চ, ২০২০, ১০:৫৮:৪৭

হে আল্লাহ আমাদের রহমত করুন: মাশরাফি

 হে আল্লাহ আমাদের রহমত করুন: মাশরাফি

স্পোর্টস ডেস্ক: কবি হেলাল হাফিজের কবিতার লাইনের সঙ্গে সুর মিলিয়ে বাংলাদেশ ক্রিকেট দলের সবচেয়ে সফল অধিনায়ক মাশরাফি বিন মোর্ত্তজা নিজের অফিশিয়াল ফেসবুক পেজে লেখেন, ‘এখন যৌবন যার বাসায় থাকার তার শ্রেষ্ঠ সময়’। করোনা ভাইরাস বিস্তার রোধ করতে সবাইকে উদ্বুদ্ধ ও উৎসাহ দিচ্ছেন মাশরাফি। তিনি আরও লেখেন, ‘বি সেফ, বি অ্যাট হোম’।

আসসালামু আলাইকুম। আশা করি সবাই ভালো আছেন। যদিও ভালো আছেন কথাটা এ মুহূর্তে বলা ঠিক কিনা কারণ সবাই মানসিকভাবে বিপর্যস্ত। তার পরও কথা বলতে হবে। করোনা ভাইরাস বিষয়ে আমরা সবাই জানি অনেকেই কথা বলছি সোশ্যাল মিডিয়ায়। যেখানে যাবেন আপনারা দেখবেন যে করোনা ভাইরাস নিয়ে সবাই আতঙ্কিত। আতঙ্কিত না হওয়ারও কোনো কারণ নেই। পৃথিবীর বড় বড় দেশ এখন শারীরিক, মানসিক, সামাজিকভাবে বিপর্যস্ত। কোনোভাবেই ট্যাকেল দিতে পারছে না। এখন আমাদের কী করা উচিত বা আমাদের কী করণীয়। কারণ বড় দেশগুলো ভেঙে পড়ছে। আমাদের দেশ তো এমনিতেই ছোট। মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। আমাদের যদি এই রকম ক্রাইসিস আসে আল্লাহ না করুকÑ কী হতে পারে আমরা বুঝতে পারছি। তাই এ মুহূর্তে করণীয় কিছু আছে বলে আমি মনে করি। যা আমাদের সবারই করা উচিত। এক হচ্ছে যে ঘরে বসে আল্লাহকে ডাকা'

পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ার আহ্বান জানিয়ে মাশরাফি বলেন, 'পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়া। আল্লাহর কাছে ডাকা যে আল্লাহ আমাদের রহমত করুন। এ ধরনের দুর্যোগ থেকে আমাদের সহযোগিতা করুন যেন না হয়। সবাই যেন সুস্থ থাকে। দ্বিতীয় জিনিস করণীয় যেগুলো আমাদের আছে যেটা হচ্ছে অবশ্য অবশ্যই প্রবাসী ভাই ও বোনেরা যারা বিদেশে থাকেন, এসেছেন দেশে বা যারা বেড়াতে গিয়েছিলেন, দেশে আসছেন আপনাদের কিন্তু অনেক কিছু করার আছে। প্রথম হচ্ছে নিয়মকানুনগুলো অবশ্যই মেনে চলা। কোয়ারেন্টিনÑ এ শব্দটা ব্যবহার না করে আমি বলব, গৃহবন্দি থাকা। সেটা পরিবার নিয়ে নয়। আপনি আলাদা ১৪ দিন থাকুন। এবং ১৪ দিন পার হওয়ার পর যদি আপনি অসুস্থ না হন, তা হলে আপনার পরিবারকে নিয়ে আপনার ঘরে থাকুন। যতক্ষণ না পর্যন্ত এই ঘোষণা আসছে বা ডাক্তাররা বা সমাজের উচ্চপদস্থ যারা আছেন উনারা ঘোষণা না করছেন যে ‘উই আর সেফ’। ততক্ষণ পর্যন্ত আপনাকে ঘরে থাকা। এটা হচ্ছে প্রথম বিষয়। এর পরও আমাদের করণীয় আছে। যেটা হচ্ছে যে সাবান দিয়ে হাত ধোয়া নিয়মিত'

তিনি আরও বলেন, 'নিয়মিত পানি পান করা। ১৫-২০ মিনিট অন্তর অন্তর। আপনার ঘর, আপনার পরিবেশ চারপাশটা পরিষ্কার পরিচ্ছন্ন রাখা। এসব ব্যাপারে কিন্তু আছেই। আমাদেরকে এসব নিয়মকানুন মেনে চলতে হবে। এর চেয়ে আরও কঠিন অবস্থায় যাওয়ার পর মানলে আর কোনো সুযোগ আমরা পাব না। আমাদের উচিত এখন থেকেই এ জিনিসটাকে শক্ত হাতে প্রতিহত করা। কারণে এটা রাষ্ট্রীয় ক্রাইসিস হয়ে যেতে পারে। আমরা কেউই জানি না যে আমাদের আশপাশে কারা আছে। আমরা কার হাত ধরছি। কী করছি। আমরা কেউই জানি না যে আসলে এ ভাইরাসটা কে নিয়ে চলছে পথে। এ ভাইরাস ১৪ দিন সময় নেবে আপনার বোঝার জন্য। আমার কাছে মনে হয় যে এটা গভীরভাবে চিন্তা করার ব্যাপার। যেটাকে গুরুত্ব দিচ্ছি না। এ যদি আকস্মিকভাবে আমাকে, আপনাকে, পরিবারকে বা পরিবারের কাউকে বা সামাজিকভাবে আঘাত করে, সেটা কিন্তু সামাল দেওয়া খুবই কঠিন হবে। আগেও বলেছি, ইতালির মতো বড় বড় দেশ ইংল্যান্ড বলেন, স্পেন বলেন, চায়না বলেন, সব দেশগুলো হিমশিম খাচ্ছে। সেখানে আমরা কতটুকু পারব সেটা আমাদের ভাবার সময় এসেছে। কারণ দেশটা অনেক ছোট। মানুষের সংখ্যা অনেক বেশি। আমাদের যে করণীয় জিনিসগুলো আছে তা আমরা করি। একটা কথা মনে রাখবেন যে, আপনার ঘরের ক্যাপ্টেন কিন্তু আপনি এখন নিজে। আপনি যদি আপনার ঘরের ক্যাপ্টেন্সি ঠিকমতো করতে পারেন আমি শিওর যে ইনশাল্লাহ আমরা কিছুটা হলেও কমাতে পারব। অন্যথায় কিন্তু ডিজেস্টার হওয়ার সুযোগ খুব বেশি। আপনারদের কাছে বিনীত অনুরোধ, আপনারা ঘরে থাকুন প্লিজ প্লিজ। প্লিজ ঘরে থাকুন।

আপনি নিজে সুরক্ষিত থাকুন। আপনার পরিবারকে সুরক্ষিত রাখুন। আপনার সমাজকে সুরক্ষিত রাখুন। এটা আমার দায়িত্ব, আপনার দায়িত্ব, সবার দায়িত্ব। এ মুহূর্তে কোনোভাবেই আমরা বাইরে যাওয়া অ্যাফোর্ট করতে পারি না বিনা কারণে ঘর থেকে বের হওয়া। আমরা অনেক সময় বলি, নানা কারণে কাজে ব্যস্ততা ইত্যাদিÑ পরিবারকে সময় দিতে পারি না। আপনি এখন পরিবারকে সময় দিন। এখন আপনার কোনো কাজের ব্যস্ততা নেই। অন্য যারা আছেন তারা চেষ্টা করুন। যে যার অবস্থান থেকে চেষ্টা করুন। দূরত্ব বজায় রেখে চলাফেরা করুন। যতটুকু না করলেই নয়। তার পরও আমি বলব, স্টে অ্যাট হোম। ঘরে থাকুন, আপনার সমাজকে আপনি রক্ষা করুন।'



এর আরো খবর »

ইসলাম


মহামা'রির সময় বাসায় নামাজেই জামাতের সওয়াব

মহামা-রির-সময়-বাসায়-নামাজেই-জামাতের-সওয়াব

ইতিহাসে ২০ বার বাধার মুখে পড়েছে হজপালন!

ইতিহাসে-২০-বার-বাধার-মুখে-পড়েছে-হজপালন-

হে আল্লাহ, আমাদের তাওবা কবুল করে হেফাজত করুন : কাবা শরিফের প্রধান ইমাম

হে-আল্লাহ-আমাদের-তাওবা-কবুল-করে-হেফাজত-করুন-কাবা-শরিফের-প্রধান-ইমাম ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


করোনাভাইরাস নিয়ে যত ভুল ধারণা, জবাব দিল বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা

করোনাভাইরাস-নিয়ে-যত-ভুল-ধারণা-জবাব-দিল-বিশ্ব-স্বাস্থ্য-সংস্থা

মোবাইল ফোনে ৯ দিন বেঁচে থাকতে পারে করোনাভাইরাস!

মোবাইল-ফোনে-৯-দিন-বেঁচে-থাকতে-পারে-করোনাভাইরাস-

করোনা সংক্র'মণ ঠেকাতে বাইরে থেকে ঘরে ফিরেই যা যা করতে হবে

করোনা-সংক্র-মণ-ঠেকাতে-বাইরে-থেকে-ঘরে-ফিরেই-যা-যা-করতে-হবে এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


রাজধানী রিয়াদসহ সৌদির একাধিক শহরে ক্ষে'পণা'স্ত্র হা'মলা

এক মাসের ভাড়া মওকুফ না করলে বাড়িওয়ালাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা: মেয়র আরিফ

শের-ই বাংলা মেডিকেলের করোনা ইউনিটে ভর্তির পরপরই নারীর মৃ'ত্যু

চিত্রনায়ক কাজী মারুফ ও তার স্ত্রী করোনা ভাইরাসে আক্রা'ন্ত

বিচিত্র জগৎ


মহিলার এক হাঁচিতেই নষ্ট হলো ২৬ লাখ টাকার খাবার!

মহিলার-এক-হাঁচিতেই-নষ্ট-হলো-২৬-লাখ-টাকার-খাবার-

২০০০ বছর আগেই করোনাভাইরাসের কথা বলেছিল তুর্কি ক্যালেন্ডার!

২০০০-বছর-আগেই-করোনাভাইরাসের-কথা-বলেছিল-তুর্কি-ক্যালেন্ডার-

নারী থেকে পুরুষ হওয়া সেলিমকে দেখতে এলাকাবাসীর ভিড়

নারী-থেকে-পুরুষ-হওয়া-সেলিমকে-দেখতে-এলাকাবাসীর-ভিড় বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ