চাকরিজীবী ছেলের ভিখারিনী মা!

০৯:০৭:৩৭ শনিবার, ১৯ অক্টোবর ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • শেখ রাসেল বেঁচে থাকলে দেশের জন্য অনেক কিছু করত : প্রধানমন্ত্রী     • শুধু ফুটবলের নয়, ১৭০০ মসজিদের দেশও ব্রাজিল     • বিএসএফ 'বাহাদুরি' দেখাচ্ছিল, বিজিবি বাধ্য হয়ে গু'লি ছুড়েছে : পররাষ্ট্রমন্ত্রী     • যে খাবারগুলো খুব পছন্দ করতেন মহানবী (সা.)     • সৌদিতে আগুনে পুড়ে ৩৬ জন ওমরাহযাত্রীর মৃত্যু, বাসটিতে ছিল ৯ বাংলাদেশী     • যুবলীগের সম্মেলন: চেয়ারম্যান ও সা. সম্পাদক পদে আলোচনায় যেসব নেতা     • কট্টর হিন্দুত্ববাদী দল শিবসেনায় যোগ দিলেন সালমান খানের দেহরক্ষী শেরা     • মুসলমানদের বাদ দিয়ে অন্যদের নাগরিকত্ব দেবে বিজেপি : আসাদউদ্দিন     • হিজাব পরিহিতা সকল মুসলিম নারীকে আমি সম্মান করি: ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট     • মহানবী (সঃ) বিরুদ্ধে কুৎসা রটনাকারী হিন্দু নেতাকে প্রকাশ্যে গু'লি করে ও গলা কে'টে হ'ত্যা

রবিবার, ২৭ মে, ২০১৮, ১০:২৮:১৩

চাকরিজীবী ছেলের ভিখারিনী মা!

চাকরিজীবী ছেলের ভিখারিনী মা!

মো. মঞ্জুরুল আলম মাসুম, বাগাতিপাড়া (নাটোর): ‘ছেলে আমার মস্ত বড়, মস্ত অফিসার, মস্ত ফ্ল্যাটে যায় না দেখা এপার ওপার। নানান রকম জিনিস আর আসবাব দামী দামী, সবচেয়ে কম দামী ছিলাম একমাত্র আমি।’ নচিকেতার সেই বিখ্যাত গানটির কথা অনেকেরই মনে রয়েছে।

গানের সঙ্গে বাস্তব জীবনেও অনেকের মিল খুঁজে পাওয়া যায়। স্বামী মারা যাওয়ার পর ভিক্ষা করেই পাঁচ ছেলে এবং মেয়ে মেয়েকে বড় করেছেন মা নসরান বেওয়া (৬০)। এক ছেলে সরকারি কমিউনিটি ক্লিনিকে চাকরি পেয়েছেন। ছেলের স্ত্রী ইউপি সদস্যা। বাকি ছেলেরা করেন কৃষি কাজ।

কিন্তু ভাগ্য বদলায়নি বাগাতিপাড়া উপজেলার ফাগুয়াড়দিয়াড় ইউনিয়নের ভিক্ষুক মা নসরান বেওয়ার। তিনি রয়ে গেছেন সেই ভিখারিনীই।

ছেলে চাকরি করেন কমিউনিটি ক্লিনিকে, ছেলের বউ ইউপি সদস্য তবুও এক মুঠো ভাত জুটে না তার। ভিক্ষা করেই নসরান বেওয়া জীবনযুদ্ধ চালিয়ে যাচ্ছেন।

অন্যান্য এলাকার মতো মালঞ্চি বাজারে মাঝে মধ্যে লাঠি হাতে নিয়ে ভিক্ষা করতে দেখা যায় নসরান বেওয়াকে। হাত পাতছেন একে অন্যের কাছে। অনেকে আবার তাচ্ছিল করে সরিয়ে দিচ্ছেন। তীব্র গরম যেন তার কাছে কিছুই নয়, যেখানে তীব্র রোদ আর গরমে বের হওয়া কঠিন সেখানে জীবনের তাগিদে ভিক্ষা করে চলছে নসরান বেওয়া। এভাবে সারা দিন ভিক্ষা করে যা আয় হয় তা দিয়ে জীবন চালিয়ে নেন তিনি।

মালঞ্চি বাজারে কথা হয় ভিক্ষুক মা নসরান বেওয়ার সঙ্গে। তিনি বলেন, কোনো মতে জীবন চলছে। বয়স্ক ভাতায় যে কয়টা টাকা পাই তা দিয়ে চিকিৎসা আর পেটে খাওয়া হয় না। মানুষের কাছ থেকে হাত পেতে চেয়ে নিতে হয় টাকা, আর ওই টাকা দিয়েই কোনো মতে চলে সংসার।

তবে এসময় নসরান বেওয়ার চোখে তীব্র আবেগ আর চোখে ছল ছল পানি যেন গড়িয়ে পড়ছে। দুঃখ করে বলেন, তার ছেলে ও ছেলে বৌ তাকে কোনো ভাত কাপড় দেয় না।

তিনি জানান, তিনি ভিক্ষা করেই ছেলেদের পড়া লেখা করিয়েছেন। এর মধ্যে ছেলে রফিকুল ইসলাম কমিউনিটি ক্লিনিকে চাকরি করেন। আর সেই ছেলের বউ ফাগুয়াড়দিয়াড় ইউনিয়নের ইউপি সদস্য। বড় আশা ছিল ছেলে লেখাপড়া শেষ করে চাকরি করে মাকে দেখাশুনা করবে, কিন্তু সে আশা ধুলিসাৎ হয়ে এখন ভিক্ষা করে সংসার চালাতে হচ্ছে।

সারা জীবন শ্রম আর কষ্ট করে সংসার আগলে রেখেছিলেন নসরান বেওয়া। কিন্তু জীবনে একটু সুখের বদলে পেয়েছেন লাঞ্চনা আর বঞ্চনা। জীবনের শেষ সময়ে ভিক্ষাবৃত্তি করে বাঁচার স্বপ্ন দেখছেন বৃদ্ধা মা। ছেলে চাকরি করলেও খোঁজ খবর রাখেন না মায়ের। বৃদ্ধ মায়ের বাস্তব জীবনের এমন গল্প যেন সইবার না।

তবে বৃদ্ধ নসরান বেওয়ার জীবন কাহিনীর গল্প হয়তো একদিন শেষ হয়ে যাবে, কিন্তু যে ঘৃণা নিয়ে পৃথিবী ছেড়ে চলে যাবে, সেটা কী কখনও শুধরাতে পারবে নসরান বেওয়ার ছেলেরা।

সারা জীবন অপরাধ বোধ নিয়ে বেঁচে থাকতে হবে ক্ষণিকের এই পৃথিবীতে। আর যেন নসরান বেওয়ার মতো জীবনযুদ্ধে কাউকে নামতে না হয় এমন প্রত্যাশাই যেন সবার।

এ ব্যাপারে তার ছেলে রফিকুল ইসলাম বলেন, মাকে আমরাই দেখাশুনা করি। কিন্তু মাঝে মধ্যে কথা না শুনে বাইরে গিয়ে মানুষের নিকট হাত পাতেন। মায়ের এই হাত পেতে অন্যের টাকা নেয়াটা আমরা পছন্দ করি না। আবার কিছু করতেও পারি না।
এমটিনিউজ২৪.কম/এইচএস/কেএস 



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


যে খাবারগুলো খুব পছন্দ করতেন মহানবী (সা.)

যে-খাবারগুলো-খুব-পছন্দ-করতেন-মহানবী-সা

যে একটি কাজেই আল্লাহ তায়ালা সবচেয়ে বেশি খুশি হন এবং বান্দার পৃথিবীর সমান গোনাহ ক্ষমা করে দেন

যে-একটি-কাজেই-আল্লাহ-তায়ালা-সবচেয়ে-বেশি-খুশি-হন-এবং-বান্দার-পৃথিবীর-সমান-গোনাহ-ক্ষমা-করে-দেন

মহানবী হজরত মুহাম্মদ (স.)’র প্রাণপ্রিয় নাতি ইমাম হোসেইন (আ.)’র মাজারে কোটি মানুষের সমাবেশ

মহানবী-হজরত-মুহাম্মদ-স-’র-প্রাণপ্রিয়-নাতি-ইমাম-হোসেইন-আ-’র-মাজারে-কোটি-মানুষের-সমাবেশ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


১২ বছরে ৩৫ কেজি কয়েন জমিয়ে মাকে ফ্রিজ কিনে দিয়ে স্বপ্ন পূরণ করলেন ছেলে

১২-বছরে-৩৫-কেজি-কয়েন-জমিয়ে-মাকে-ফ্রিজ-কিনে-দিয়ে-স্বপ্ন-পূরণ-করলেন-ছেলে

হঠাৎ মাটির নিচ থেকে আওয়াজ '‌আমাকে কবব থেকে বের করো, এখানে ভীষণ অন্ধকার'

হঠাৎ-মাটির-নিচ-থেকে-আওয়াজ--‌আমাকে-কবব-থেকে-বের-করো-এখানে-ভীষণ-অন্ধকার-

সকালে ঘুম থেকে উঠে গরম পানিতে লেবুর রস খাওয়ার অসাধারণ ৬ উপকার!

সকালে-ঘুম-থেকে-উঠে-গরম-পানিতে-লেবুর-রস-খাওয়ার-অসাধারণ-৬-উপকার- এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


বাংলাদেশকে সহযোগিতা না করলে কাকে করব : সৌরভ গাঙ্গুলী

অমিত সাহা কাঁদলেন আর বললেন ‘আমিও মানুষ’

বিশ্বকাপে ওরাই বাংলাদেশকে ডুবিয়েছে : সৌরভ গাঙ্গুলী

প্রত্যেক জুমাবারে জান্নাতে বাজার বসে

পাঠকই লেখক


টাঙ্গাইলে বিয়ের ১১ দিনের মাথায় নববধূকে তালাক দিয়ে শাশুড়িকে বিয়ে করলেন জামাই!

টাঙ্গাইলে-বিয়ের-১১-দিনের-মাথায়-নববধূকে-তালাক-দিয়ে-শাশুড়িকে-বিয়ে-করলেন-জামাই-

জন্মদিনে চমক দিতে গিয়ে শ্বশুরের গুলিতে প্রাণ গেল জামাইয়ের

জন্মদিনে-চমক-দিতে-গিয়ে-শ্বশুরের-গুলিতে-প্রাণ-গেল-জামাইয়ের

একজন ফকিরের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে মিললো ৭ কোটি ৬০ লাখ টাকা!

একজন-ফকিরের-ব্যাংক-অ্যাকাউন্টে-মিললো-৭-কোটি-৬০-লাখ-টাকা- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ