পার্বত্য চট্টগ্রাম: আঞ্চলিক রাজনীতির জটিল সমীকরণ

০৪:৩২:২৯ রবিবার, ০৯ আগস্ট ২০২০

সর্বশেষ সংবাদ :

     • সিনহার ময়নাতদ'ন্ত প্রতিবে'দনে যা জানা গেল     • বঙ্গমাতার আদর্শ বাঙালী নারীদের জন্য অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবে : এমপি গোপাল     • নৌপথে দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে শ্রীশ্রী কান্তজীউর যাত্রা শুরু     • কারাগারে ওসি প্রদীপের আবদার     • দেশে গত ২৪ ঘন্টায় নতুন করে ২৪৮৭ জনের দেহে করোনা শনা'ক্ত     • দেশে গত ২৪ ঘণ্টায় করোনায় ৩৪ জনের মৃত্যু     • ভাইরাস তা'ড়াতে পাঁপড় খেতে বলা সেই ভারতীয় মন্ত্রী করোনা আক্রা'ন্ত     • এক বিন্দুও পিছু হটতে রাজি নয় চীন, ‘যু'দ্ধ প্রস্তুতির’ নির্দেশ ভারতীয় সেনাপ্রধানের     • অবশেষে আজ থেকে শুরু হল একাদশে ভর্তি কার্যক্রম     • টানা ১০০ দিন নিউজিল্যান্ডে নতুন করে কোনও মানুষের মাঝে করোনা শনা'ক্ত হয়নি

সোমবার, ১৮ মার্চ, ২০১৯, ০৮:৩৩:৩৮

পার্বত্য চট্টগ্রাম: আঞ্চলিক রাজনীতির জটিল সমীকরণ

পার্বত্য চট্টগ্রাম: আঞ্চলিক রাজনীতির জটিল সমীকরণ

আকবর হোসেন : পার্বত্য চট্টগ্রামে সাম্প্রতিক কয়েকটি হত্যাকান্ড এবং পাহাড়ি সংগঠনগুলোর মধ্যে একের পর এক ভাঙন - ওই এলাকার রাজনীতিতে নতুন মেরুকরণ সৃষ্টি করেছে?

বেশ কিছুদিন ধরেই পার্বত্য এলাকায় অস্থিরতার ইঙ্গিত পাওয়া যাচ্ছিল। গত কয়েকমাস ধরে প্রায়ই সে অঞ্চলে একের পর এক হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। সর্বশেষ নানিয়ারচর উপজেলা চেয়ারম্যান হত্যাকাণ্ড এবং তার পরদিনই আরো পাঁচজনকে গুলি করে হত্যা নতুন উদ্বেগ তৈরি করেছে।

১৯৯৭ সালে পার্বত্য চট্টগ্রাম শান্তি চু্ক্তির পর সে এলাকার রাজনীতি গত বিশ বছরে অনেকটাই বদলে গেছে। শান্তিচুক্তি স্বাক্ষরের সময় সে অঞ্চলের বড় ধরনের আধিপত্য ছিল জ্যোতিরিন্দ্র বোধিপ্রিয় লারমা বা সন্তু লারমার।

সন্তু লারমা গত বিশ বছরে অনেক জায়গাতেই তার প্রভাব হারিয়েছেন। বর্তমানে শুধু রাঙামাটি শহর এবং আরো কিছু এলাকায় সন্তু লারমার প্রভাব রয়েছে। কিন্তু বাকি অঞ্চলে সেটি নেই। রাঙামাটির সাংবাদিক সুনীল দে বলেন, "এখানে কারো একচ্ছত্র আধিপত্য এখনো আছে কিনা সেটি নিয়ে আমার প্রশ্ন আছে।"

১৯৯৭ সালের ২ ডিসেম্বর সরকারের সাথে যখন সন্তু লারমার পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি (পিসিজেএসএস) শান্তিচুক্তি স্বাক্ষর করেন তখন পাহাড়ে একটি অংশ সেটির বিরোধিতা করেছিল। পিসিজেএসএস'র ছাত্র সংগঠন পাহাড়ি ছাত্র পরিষদ ১৯৯৮ সালের ডিসেম্বর মাসে প্রতিষ্ঠা করেন ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট বা ইউপিডিএফ।

এরপর পরই সন্তু লারমা পিসিজেএসএস'র সাথে সংঘাতে জড়িয়ে পড়ে ইউপিডিএফ। সাংবাদিক সুনীল দে'র ভাষ্য অনুযায়ী, জনসংহতি সমিতি এবং ইউপিডিএফ'র সম্পর্ক শুরু থেকেই 'সাপে-নেউলে'। প্রায় ১২ বছর এ দুটি সংগঠনের মধ্যে আধিপত্যের লড়াই চলছে।

এ সময়ের মধ্যে সন্তু লারমার প্রতি তার দলের একটি আস্থা হারাতে থাকেন। ২০১০ সালে সন্তু লারমার নেতৃত্বে পার্বত্য চট্টগ্রাম জনসংহতি সমিতি ভেঙ্গে আরেকটি নতুন দলের জন্ম হয় যার নাম জেএসএস (এমএন লারমা)।

সম্প্রতি রাঙামাটির নানিয়ারচরে উপজেলা চেয়ারম্যান শক্তিমান চাকমাকে গুলি করে হত্যা করা হয়। শক্তিমান চাকমা ছিলেন সন্তু লারমার দল থেকে বেরিয়ে যাওয়া জেএসএস (এমএন লারমা) দলের অন্যতম শীর্ষ নেতা।

২০১৭ সালে ইউনাইটেড পিপলস ডেমোক্রেটিক ফ্রন্ট বা ইউপিডিএফও ভাঙনের কবলে পড়ে। সে দল ভেঙ্গে প্রতিষ্ঠা করা হয় ইউপিডিএফ (গণতান্ত্রিক)। দলটির প্রতিষ্ঠাতা তপন জ্যোতি চাকমাসহ পাঁচজনকে কয়েকদিন আগেই গুলি করে হত্যা করা হয়।

সবমিলিয়ে পার্বত্য এলাকায় এখন পাহাড়িদের চারটি সংগঠন রয়েছে। সে এলাকায় অস্থিরতা, হত্যা, চাঁদাবাজী এবং অপহরণের জন্য এসব আঞ্চলিক দলগুলো পরস্পরকে দায়ী করে। পাহাড়ি সংগঠনগুলোর অনেক নেতা মনে করেন, 'অসৎ উদ্দেশ্য' বাস্তবায়নের জন্য দলগুলোর মধ্যে ভাঙন সৃষ্টি করা হচ্ছে।

পাহাড়িরা যাতে তাদের অধিকারের কথা বলতে না পারে সেজন্য একটি 'বিশেষ মহলের ছত্রছায়ায়' পাহাড়ী সংগঠনগুলোকে ভেঙ্গে টুকরো-টুকরো করা হচ্ছে বলে তাদের অভিযোগ। ইউপিডিএফ'র মুখপাত্র মাইকেল চাকমা পার্বত্য চট্টগ্রামের পরিস্থিতিকে 'জটিল' হিসেবে বর্ণনা করেন।

তিনি বলেন, জনগণের মধ্যে ভীতি ছড়ানোর কাজ করছে একটি 'বিশেষ মহল'। শান্তি চুক্তি পরবর্তী পার্বত্য এলাকায় বাঙালীদেরও সংগঠন গড়ে উঠেছে। সেসব সংগঠনের সাথেও পাহাড়ি সংগঠনগুলোর তীব্র মতভেদ রয়েছে যেটি কখনো-কখনো সংঘাতে রূপ নেয়।



খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


যে দুই কাজের কারণে বান্দার কোনো দোয়াই আল্লাহ তাআলা কবুল করেন না

যে-দুই-কাজের-কারণে-বান্দার-কোনো-দোয়াই-আল্লাহ-তাআলা-কবুল-করেন-না

অভাবীকে সাহায্য করলেই আল্লাহর সাহায্য মিলবে

অভাবীকে-সাহায্য-করলেই-আল্লাহর-সাহায্য-মিলবে

সূরা ফাতেহা সব রোগের মহাওষুধ

সূরা-ফাতেহা-সব-রোগের-মহাওষুধ ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


৩৩ বার ম্যাট্রিকে ফেল করেও হাল ছাড়েননি নুরউদ্দিন, অবশেষে লকডাউনে ভাগ্য খুললো

৩৩-বার-ম্যাট্রিকে-ফেল-করেও-হাল-ছাড়েননি-নুরউদ্দিন-অবশেষে-লকডাউনে-ভাগ্য-খুললো

করোনার মূল উপসর্গ নিয়ে গোড়াতেই বড় ভুল হয়ে গেছে: দাবি বিশেষজ্ঞদের

করোনার-মূল-উপসর্গ-নিয়ে-গোড়াতেই-বড়-ভুল-হয়ে-গেছে-দাবি-বিশেষজ্ঞদের

একটি পাখির বাসা বাঁ'চাতেই টানা ৩৫ দিন অন্ধকারে গ্রাম

একটি-পাখির-বাসা-বাঁ-চাতেই-টানা-৩৫-দিন-অন্ধকারে-গ্রাম এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


২০২০ স্থগিতের পর ২০২১ টি-২০ বিশ্বকাপ ভারতে হবে : আইসিসি

প্রকা'শ্যে রাস্তায় স্ত্রীর গ'লা কে'টে মু'ণ্ডু নিয়ে থানায় হা'জির যুবক!

মাশরাফির বাবা, মা, মামি ও ছোট ভাইয়ের স্ত্রী করোনায় আক্রা'ন্ত

পাকিস্তানি সেনার জন্য প্রয়োজনে ঘাস খেতেও রাজি: শোয়েব আখতার

বিচিত্র জগৎ


গত ২০ বছর ধরে হেলমেট পরে আছেন এই নারী!

গত-২০-বছর-ধরে-হেলমেট-পরে-আছেন-এই-নারী-

এই নারীর কাহিনি চমকে দেওয়ার মতো, রাস্তায় ছোলা বিক্রি করে কোটিপতি!

এই-নারীর-কাহিনি-চমকে-দেওয়ার-মতো-রাস্তায়-ছোলা-বিক্রি-করে-কোটিপতি-

পৃথিবীর যে রহস্যের কোনও সমাধানই করা গেল না আজ পর্যন্ত, যার ব্যাখ্যা বিজ্ঞানও দিতে পারেনি!

পৃথিবীর-যে-রহস্যের-কোনও-সমাধানই-করা-গেল-না-আজ-পর্যন্ত-যার-ব্যাখ্যা-বিজ্ঞানও-দিতে-পারেনি- বিচিত্র জগতের সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ