০৪:৪৫:০৮ বুধবার, ১৯ জুন ২০১৯

সর্বশেষ সংবাদ :

     • জনসংখ্যায় ‘জন্মশত্রু চীনকে টপকে যাচ্ছে ভারত     • বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে বৃষ্টি হলে বেশি ক্ষতি হবে যাদের     • বিশ্বকাপের সবচেয়ে ‌’ডিসিপ্লিন’ বোলার মাশরাফি     • ভারতীয় টিভি সিরিয়াল ক্রাইম প্যাট্রোল দেখে খুন করত তিন তরুণ     • প্রধান শিক্ষকের বিরুদ্ধে দীর্ঘদিন ধরে ছাত্রীদের জিম্মি করে ধর্ষণের অভিযোগ      • বড় ধরনের মার্কিন গুপ্তচর নেটওয়ার্ক গুড়িয়ে দিল ইরান     • শাজাহান খানের ছোট ভাইয়ের কাছে নৌকার ভরাডুবি     • বাংলাদেশ-অস্ট্রেলিয়া ম্যাচে সে কথাই পুরোটাই মিলে গেছে, শেষ পর্যন্ত দু:সংবাদ     • শ্রীলঙ্কা সেমিফাইনাল খেলবে: স্টিভ ওয়াহ     • ফাইনাল খেলার দরকার নেই, ইংল্যান্ডকে এখনই বিশ্বকাপটি দিয়ে দাও: পিটারসেন

শুক্রবার, ০৬ এপ্রিল, ২০১৮, ১১:৪৩:৩৩

যেভাবে পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত হন স্নিগ্ধা-কামরুল

যেভাবে পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত হন স্নিগ্ধা-কামরুল

জাভেদ ইকবাল, রংপুর থেকে : একটি পরকীয়া। ভেঙে চুরমার দুটি সাজানো সংসার। স্ত্রী স্নিগ্ধা ও তার প্রেমিক কামরুল মিলে অ্যাডভোকেট রথীশ চন্দ্র ভৌমিককে খুনের ঘটনায় বিস্মিত-হতবাক রংপুরসহ দেশের মানুষ। সর্বত্র ক্ষোভ-ধিক্কার। দু’ জন দু’ ধর্মের। পরিবার-সন্তান রয়েছে দু’ জনেরই। তবুও তাদের এই প্রেম-পরকীয়ার ঘটনার চলছে চুলচেরা বিশ্লেষণ।

দু’ জনই দীর্ঘকাল ধরে চাকরি করতেন তাজহাট উচ্চ   বিদ্যালয়ে। গতকাল সে স্কুলে গিয়ে দেখা যায় এক অন্যরকম পরিবেশ। স্কুলের শিক্ষিকা ফেরদৌসী আরা পলি বলেন, যেভাবে এ দু’শিক্ষক মেলামেশা করতো তাতে আমরা সহকর্মী হিসেবে তেমন কিছু মনে করতাম না। গণমাধ্যমে প্রকাশ পাওয়ার পর আমরা বিষয়টি জানতে পেরেছি।

ওদিকে অনুসন্ধানে বেরিয়ে এসেছে দু’সন্তানের জননী স্নিগ্ধা ভৌমিক ও এক সন্তানের জনক কামরুল ইসলামের পরকীয়া প্রেমের গল্প। প্রায়ই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটির পর সব শিক্ষকদের পরে  বের হতো স্নিগ্ধা ও কামরুল। প্রায়ই তারা মোটরসাইকেলে করে দূরে নিভৃত স্থানে গিয়ে সময় পার করতো।

অ্যাড. রথীশ ভৌমিকের দুই সন্তানের মধ্যে এল.এল.বি অনার্স পড়ুয়া পুত্র ঢাকায় থাকতেন। নবম শ্রেণি পড়ুয়া কন্যা থাকতো বাসায়। কন্যা স্কুলে চলে যাওয়ার পর কামরুল পেছনের দরজা দিয়ে স্নিগ্ধার বাসায় গিয়ে গোপনে অবৈধ মেলামেশা করতো। বিষয়টি রথীশ ভৌমিক আঁচ করতে পারলে তাদের সংসারে অশান্তি নেমে আসে।

এদিকে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ও এলাকাবাসীর সূত্রে জানা যায়, ১৮৯৪ সালে গড়ে ওঠা তাজহাট উচ্চ বিদ্যালয়ে ১৯৯৪ সালে অ্যাড. রথিশ চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিক ধর্মীয় শিক্ষক এবং কামিল পাস করা কামরুল ইসলাম একই সঙ্গে নিয়োগপ্রাপ্ত হয়ে স্কুলে শিক্ষকতা শুরু করেন।

স্নিগ্ধা ভৌমিক শান্ত স্বভাবের হলেও কামরুল ইসলাম চতুর ও চঞ্চল প্রকৃতির। হাসি, ঠাট্টা করতো সবার সঙ্গে। দীর্ঘদিন চলার পথে শিক্ষক স্নিগ্ধা ও কামরুলের মধ্যে একটি সম্পর্ক গড়ে উঠে। এ সম্পর্কের কারণে স্নিগ্ধার দাপ্তরিক যাবতীয় কাজকর্ম কামরুল করে দিতো।

বিনিময়ে স্নিগ্ধা বাড়ি থেকে টিফিন বক্সে করে কামরুলের জন্য খিচুড়ি, ছানা, পায়েসসহ ফলমূল নিয়ে এসে তাকে খাওয়াতো। তার সহকর্মীরা প্রশ্ন করলেও স্নিগ্ধা বলতো আমার কাজ করে দেয় বিধায় তাকে নাস্তা খাওয়াই। এসব বিষয় জানতে পারেন স্নিগ্ধার স্বামী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক। তিনি শিক্ষক কামরুলকে সাবধান করে দেন।

এ থেকে তাদের  মেলামেশা বন্ধ হয়ে যায়। সেই থেকে মোবাইল ফোনে কামরুল আর স্নিগ্ধা পরিকল্পনা করে কীভাবে আগের সম্পর্ক ফিরিয়ে আনা যায়। তারা দিনে কখনো ৩০-৩৫ বারও কথা বলেছেন। এসব বিষয় নিয়ে রথীশের পরিবারে নেমে আসে চরম অশান্তি। দেখা দেয় স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে মনোমালিন্য ও বিরোধ। স্নিগ্ধা প্রায়ই শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে স্বামীকে গালমন্দও করতো।

সম্প্রতি তাজহাট উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক কামরুলের বেপরোয়া চলাফেরা ও শৃঙ্খলা ভঙ্গের অভিযোগে রথীশ প্রধান শিক্ষিকাকে শোকজ করার তাগিদ দেন। এরই প্রেক্ষিতে প্রধান শিক্ষিকা ৪ঠা মার্চ তাকে শোকজ করে ৭ কার্যদিবসের মধ্যে উত্তর দিতে বলেন।

শোকজ নোটিশ পাওয়ার পর কামরুল তার চিঠির জবাব দিলেও সন্তোষজনক না হওয়ায় ম্যানেজিং কমিটির নির্দেশে ৩ সদস্যবিশিষ্ট তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। এ কমিটির আহ্বায়ক করা হয় অভিভাবক সদস্য বিপুল সরকারকে। অপর দুই সদস্য হলেন- শিক্ষক প্রতিনিধি মতিউর রহমান ও সহকারী প্রধান শিক্ষক বেলাল হোসেন। ২৮শে মার্চ ওই তদন্ত কমিটি কামরুলকে জিজ্ঞাসাবাদ করে। এরই মধ্যে ঘটে যায় ২৯শে মার্চ রাতে রথীশের হত্যার ঘটনা।

শিক্ষক শাহরুল হুদাসহ অন্যরা বলেন, ৩০শে মার্চ শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি অ্যাড. রথীশ চন্দ্র ভৌমিক নিখোঁজ সংবাদ শুনে আমরা শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের পক্ষ থেকে ৩১শে মার্চ সড়ক অবরোধ কর্মসূচি পালন করি। ওই কর্মসূচিতে কামরুলও উপস্থিত ছিল এবং সে স্বাভাবিকভাবে কর্মসূচি পালন করে। তার চোখ- মুখ দেখে বোঝার উপায় ছিল না যে, সে এ ঘটনা ঘটিয়েছে।

এদিকে নিহত রথীশের হত্যাকাণ্ড ঘটনার রহস্য গতকাল বৃহস্পতিবার সংবাদপত্রে প্রকাশের পর রংপুরে জাতীয় ও স্থানীয় সব পত্রিকা দিনের অর্ধবেলায় বিক্রি হয়ে যায়। সর্বত্রই স্নিগ্ধা ও কামরুলকে নিয়ে চলে সমালোচনা। রংপুর নগরীর বাবুপাড়ার বাড়ি থেকে ৩০শে মার্চ নিখোঁজ হন আইনজীবী রথীশ চন্দ্র ভৌমিক। তিনি জাপানি নাগরিক হোশি কুনিও এবং মাজারের খাদেম হত্যা মামলার সরকারি আইনজীবী ছিলেন।

নিখোঁজ হওয়ার পর থেকে এ ঘটনার জন্য জামায়াত-শিবির ও জঙ্গিদের দায়ী করে আওয়ামী লীগ, আইনজীবী সমিতি, হিন্দু বৌদ্ধ খ্রিস্টান ঐক্যপরিষদ, পূজা উদযাপন পরিষদ, ক্ষত্রিয় সমিতি, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোটসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক সংগঠন আন্দোলনে নামে। সড়ক অবরোধ, বিক্ষোভ সমাবেশ, মানববন্ধন, স্মারকলিপি প্রদান, সংবাদ সম্মেলন, গণঅনশন থেকে শুরু করে সব ধরনের আন্দোলনে তোলপাড় শুরু হয় প্রশাসনে।

নিখোঁজ রথীশের সন্ধানে মাঠে নামে র‌্যাব, পুলিশ, পিবিআইসহ বিভিন্ন গোয়েন্দা সংস্থা। মোবাইল ফোনের কল লিস্টের সূত্র ধরে আইনজীবীর স্ত্রী স্নিগ্ধা ভৌমিক এবং তার সহকর্মী স্কুলশিক্ষক কামরুল ইসলামকে গ্রেপ্তার করে ষষ্ঠ দিন ৪ঠা এপ্রিল হত্যাকাণ্ডের রহস্য বের করা হয়।

স্নিগ্ধা ভৌমিক র‌্যাবকে জানায়, পরিবারিক কলহ, সন্দেহ ও অশান্তির কারণে সে পরকীয়া প্রেমে লিপ্ত হয়ে স্বামী রথীশ চন্দ্র ভৌমিককে ভাতের সঙ্গে ঘুমের ওষুধ খাইয়ে শ্বাসরোধ করে হত্যা করে। তাকে এ কাজে সহায়তা করে তার কথিত প্রেমিক কামরুল। এমজমিন
এমটিনিউজ/এসএস



খেলাধুলার খবর »
খেলাধুলার সকল খবর »

ইসলাম


দীর্ঘ ১৮০ বছর অপেক্ষার পর মসজিদে নামাজ পড়ার অনুমতি পেল গ্রিসের মুসল্লিরা

দীর্ঘ-১৮০-বছর-অপেক্ষার-পর-মসজিদে-নামাজ-পড়ার-অনুমতি-পেল-গ্রিসের-মুসল্লিরা

যে দোয়াটি পড়লে ৭০ টি বিপদ থেকে মুক্তি পাবেন, সর্বনিম্নটি হলো দারিদ্রতা

যে-দোয়াটি-পড়লে-৭০-টি-বিপদ-থেকে-মুক্তি-পাবেন-সর্বনিম্নটি-হলো-দারিদ্রতা

ঘোর বিপদে সবাই মুখ ফিরিয়ে নিলেও, মহান আল্লাহপাক ফিরিয়ে নেননা

ঘোর-বিপদে-সবাই-মুখ-ফিরিয়ে-নিলেও-মহান-আল্লাহপাক-ফিরিয়ে-নেননা ইসলাম সকল খবর »

এক্সক্লুসিভ নিউজ


ঘুমানোর সময় মোবাইল বন্ধ করে শরীর থেকে ৩ ফুট দূরত্বে রাখতে হবে: ডা. সঞ্চিতা বর্মন

ঘুমানোর-সময়-মোবাইল-বন্ধ-করে-শরীর-থেকে-৩-ফুট-দূরত্বে-রাখতে-হবে-ডা-সঞ্চিতা-বর্মন

বাংলাদেশে তরুণদের হৃদরোগ হওয়ার কারণ জানালেন ডা. দেবী শেঠি

বাংলাদেশে-তরুণদের-হৃদরোগ-হওয়ার-কারণ-জানালেন-ডা-দেবী-শেঠি

৯২ বছর বয়সেও সাইকেল চালিয়ে স্বাস্থ্যসেবা দিচ্ছেন বৃদ্ধা

৯২-বছর-বয়সেও-সাইকেল-চালিয়ে-স্বাস্থ্যসেবা-দিচ্ছেন-বৃদ্ধা এক্সক্লুসিভ সকল খবর »

সর্বাধিক পঠিত


ছক্কার হ্যাটট্রিক করে ইতিহাস তৈরি করলেন লিটন দাস

দুর্দান্ত জয়ের পরই সুখবর পেল বাংলাদেশ

সাকিব নয়, ম্যাচ জয়ের টার্নিং পয়েন্ট হিসেবে যার নাম বললেন মাশরাফি

নতুন আইন, ধর্ষণ করলে ইনজেকশন প্রদানের মাধ্যমে ধর্ষকের যৌন ক্ষমতা নষ্ট করে দেয়া হবে

পাঠকই লেখক


লাখ টাকার অপারেশন বিনামূল্যে করেন ডা. সায়েবা আক্তার!

লাখ-টাকার-অপারেশন-বিনামূল্যে-করেন-ডা-সায়েবা-আক্তার-

নাড়ীর নীড়ে

নাড়ীর-নীড়ে

বিলাসবহুল বিএমডব্লিউ গাড়ির তেল কিনতে রাতের আধাঁরে হাঁস-মুরগি চুরি!

বিলাসবহুল-বিএমডব্লিউ-গাড়ির-তেল-কিনতে-রাতের-আধাঁরে-হাঁস-মুরগি-চুরি- পাঠকই সকল খবর »

জেলার খবর


ঢাকা ফরিদপুর
গাজীপুর গোপালগঞ্জ
জামালপুর কিশোরগঞ্জ
মাদারীপুর মানিকগঞ্জ
মুন্সিগঞ্জ ময়মনসিংহ
নারায়ণগঞ্জ নরসিংদী
নেত্রকোনা রাজবাড়ী
শরীয়তপুর শেরপুর
টাঙ্গাইল ব্রাহ্মণবাড়িয়া
কুমিল্লা চাঁদপুর
লক্ষ্মীপুর নোয়াখালী
ফেনী চট্টগ্রাম
খাগড়াছড়ি রাঙ্গামাটি
বান্দরবান কক্সবাজার
বরগুনা বরিশাল
ভোলা ঝালকাঠি
পটুয়াখালী পিরোজপুর
বাগেরহাট চুয়াডাঙ্গা
যশোর ঝিনাইদহ
খুলনা মেহেরপুর
নড়াইল নওগাঁ
নাটোর গাইবান্ধা
রংপুর সিলেট
মৌলভীবাজার হবিগঞ্জ
নীলফামারী দিনাজপুর
কুড়িগ্রাম লালমনিরহাট
পঞ্চগড় ঠাকুরগাঁ
সুনামগঞ্জ কুষ্টিয়া
মাগুরা সাতক্ষীরা
বগুড়া জয়পুরহাট
চাঁপাই নবাবগঞ্জ পাবনা
রাজশাহী সিরাজগঞ্জ